অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/10/robiul-roza.html

রবিউল আউয়াল মাসে কতটি রোজা রাখতে হবে ও তার নিয়ম

প্রিয় পাঠক আপনি কি রবিউল আউয়াল মাসের রোজা সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন আজকের এই পোস্টে আমরা রবিউল আউয়াল মাসের রোজা করার নিয়ম। এ সম্পর্কিত আরও কিছু তথ্য নিয়ে আলোচনা করব। শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকুন।

আপনি যদি রবিউল আউয়াল মাসের রোজা সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন দেরী না করে রবিউল আউয়াল মাসে রোজা সম্পর্কে জেনে নেই।

পেজ সূচিপত্রঃ রবিউল আউয়াল মাসে রোজা

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী

আমরা সকলেই অবগত আছি যে এখন হিজরী বর্ষের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়াল চলছে। হিজরী বছরের রবিউল আউয়াল মাসের ১২ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করা হয়। যেখানে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু ওয়া সাল্লাম এর আদর্শ তুলে ধরা হয়। দীর্ঘ দিন ব্যাপী এই দিন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল আলোচনা সভা ইত্যাদি আয়োজন করা হয়।

আরো পড়ুনঃ আলহামদুলিল্লাহ শব্দের বাংলা অর্থ কি

১৪৪৪ হিজরী ১২ রবিউল আউয়াল অনুযায়ী পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী ৯ অক্টোবর রোজ রবিবার আনন্দ উৎসবের মাধ্যমে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর জন্মদিন বিশ্বব্যাপী এর সাথে বাংলাদেশেও পালন করা হয়। ১২ রবিউল আউয়াল দিনটি জন্ম ও মৃত্যু দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

১২ই রবিউল আউয়াল ও ঈদে মিলাদুন্নবী নিয়ে আরও কিছু পোস্ট

রবিউল আউয়াল মাসের রোজা রাখার ফজিলত

আমরা অনেকেই জানি যে রবিউল আউয়াল মাস অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি মাস। রবিউল আউয়াল মাসের কিছু রোজা রয়েছে যেগুলো পালন করলে অনেক সওয়াব পাওয়া যায়। রবিউল আউয়াল মাসের রোজা রাখার ফজিলত রয়েছে অনেক। হিজরী বছরের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়াল। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এই মাসে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। প্রিয় নবীর সুন্নত অনুসরণে প্রতি আরবি মাসের ১৩, ১৪, ১৫ তারিখ রোজা রাখার সুন্নত।

আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একই দিনে রোজা রাখতেন। ১২ রবিউল আউয়াল (৯ অক্টোবর, রবিবার) এর দিনে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল ইত্যাদি অনুষ্ঠিত হবে। ১৪৪৪ হিজরীর ১৩, ১৪,ও ১৫ রবিউল আউয়াল ইংরেজি মাসের ১০, ১১  ও ১২ তারিখ অর্থাৎ সোমবার, মঙ্গলবার এবং বুধবার রোজা পালন করতে হবে।

এজন্য আপনাকে ১২ রবিউল আউয়াল রবিবার দিবাগত রাতে সেহরি খেতে হবে রোজা রাখার উদ্দেশ্যে। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ শুধু রবিউল আউয়াল মাসের নয়। প্রতিটি আরবি মাসে মধ্যভাগে তিনটি করে রোজা রাখতেন। তাই আমাদের উচিত আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ কে অনুসরন করা। এবং তার সুন্নত প্রতি আরবি মাসে মধ্যভাগে তিনটি করে রোজা রাখা।

আইয়ামে বিজের রোজার ফজিলত

আমরা ইতিমধ্যে রবিউল আউয়াল মাসে রোজা রাখার ফজিলত সম্পর্কে জেনে এসেছি। এখন আমরা আইয়ামে বিজের রোজার ফজিলত সম্পর্কে জানব। আইয়ামে বিজের রোজা রাখার ফজিলত এবং গুরুত্ব সম্পর্কে বিভিন্ন হাদিস থেকে পাওয়া যায়। তাহলে চলুন ফজিলত এবং গুরুত্ব গুলো জেনে নেই।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের জনপ্রিয় ৪০ জন আলেম

হযরত আবু যার (রাঃ) বর্ণনা করেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, " যে ব্যক্তি প্রতি মাসে(আরবি মাস অনুযায়ী) তিনটি রোজা রাখল, সে যেন সারা বছরই রোজা রাখল"

আবু হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, " রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাকে তিনটি বিষয় নির্দেশ দিয়েছেন। প্রতিমাসে তিনদিন করে সাওম পালন করা এবং দুই রাকাত সালাতুল দুহা এবং ঘুমের পূর্বে বিতর সালাত আদায় করা" { বুখারি হাদিসঃ ১৯৮১}

হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর কোন স্ত্রী থেকে বর্ণিত হয়েছে যে, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জিলহজ মাসের নয় দিন, আশুরার দিন এবং প্রত্যেক মাসের তিন দিন রোযা পালন করতেন। আরবি মাসের প্রথম সোমবার এবং দুই বৃহস্পতিবার।

করেনজারীর ইবন আব্দুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, প্রত্যেক মাসের তিন দিন রোজা পালন করা। সারা বছর রোজা পালন করার সমতুল্য।

হযরত আব্দুল্লাহ রাঃ হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম প্রত্যেক মাসে তিন দিন রোজা রাখতেন।

হযরত ইবনু মিলহান আল-খাইছি তার পিতার সূত্রে বর্ণনা করেন, " রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম আমাদের আইয়ামে বিজের রোজার ব্যাপারে নসিহত করেছেন। আমরা যেন মাসের ১৩, ১৪, ও ১৫ তারিখ রোজা পালন করি। তিনি আরও বলেন এটা সারা বছর রোজা রাখার মত"----আবু দাউদ

রবিউল আউয়াল মাসে রোজা রাখার নিয়ম

ইতিমধ্যে আমরা রবিউল আউয়াল মাসে রোজা রাখার নিয়ম সম্পর্কে জেনে গিয়েছি। তাহলে চলুন আমরা আরো ভালোভাবে একটু বিস্তারিত ভাবে রবিউল আউয়াল মাসে রোজা রাখার নিয়ম জেনে নেই। আমরা সকলেই জানি যে হিজরী বছরের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়াল। রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখ অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ প্রতিমাসে তিনটি রোজা পালন করতেন।

আরো পড়ুনঃ আজ বাংলা মাসের কত তারিখ ২০২২ - বাংলা ইংরেজি আরবি ক্যালেন্ডার

আপনি যদি রবিউল আউয়াল মাসের রোজা পালন করতে চান তাহলে ১৪৪৪ হিজরী অনুযায়ী ১৩, ১৪ ও ১৫ রবিউল আউয়াল আপনাকে রোজা পালন করতে হবে। ইংরেজি তারিখ অনুযায়ী  ১০, ১১ ও ১২ তারিখ রোজা পালন করতে হবে। বিশেষ করে ১২ রবিউল আউয়াল দিবাগত রাত্রে ভরে রোজা পালন করার উদ্দেশ্যে সাহরি খেতে হবে।

শেষ কথাঃ রবিউল আউয়াল মাসে রোজা

আপনারা যারা রবিউল আউয়াল মাসে রোজা সম্পর্কে জানতে চেয়েছিলাম তাদের জন্য উপরে এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনারা যদি রবিউল আউয়াল মাসে রোজা কিভাবে করতে হবে এবং রবিউল আউয়াল মাসের রোজার ফজিলত সম্পর্কে বলা হয়েছে। শুধু রবিউল আউয়াল মাসের নয় প্রতিটি হিজরী মাসে তিনটি করে রোজা পালন করতে হবে। এটি আমাদের হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নত।

এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম পোস্ট আরও পড়তে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।১৬৮৩০

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?