অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/10/robiul-biye.html

রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করার ফজিলত সম্পর্কে বিস্তারিত

প্রিয় পাঠক আজকের এই পোস্টে আমরা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করার ফজিলত সম্পর্কে আলোচনা করব। অনেকেই আছে রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে জানতে চাই। তাহলে চলুন রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

পেজ সূচিপত্রঃ রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর জন্ম তারিখ

প্রিয় পাঠক আজকের এই পোস্টটি আমরা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে আলোচনা করব। অনেকেই আছে যারা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করতে চাই অথবা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করার ফজিলত সম্পর্কে জানতে চাই। আজকে আমরা আপনাদের সাথে এসকল বিষয় নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। তাহলে চলুন তার আগে আমরা মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম তারিখ সম্পর্কে জেনে নেই।

আরো পড়ুনঃ রবিউল আউয়াল মাসের ১২ টি ফজিলত ও আমল সমূহ

ইতিহাস অনুযায়ী আমরা জানতে পারি যে ৫৭১ খ্রিস্টাব্দে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ জন্মগ্রহণ করেন। ২০ এপ্রিল তিনি জন্মগ্রহণ করেন। আরবি অনুযায়ী তার জন্মের তারিখ নিয়ে মতভেদ রয়েছে। কেউ বলেছে রবিউল আউয়াল মাসের ৮ তারিখ মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জন্মগ্রহণ করেছেন।

১২ই রবিউল আউয়াল ও ঈদে মিলাদুন্নবী নিয়ে আরও কিছু পোস্ট

কিন্তু বেশিরভাগ হাদীস বিশারদ এই যুক্তিকে বিশুদ্ধ বলেছেন। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর জীবনকারদের মধ্যে ইবনে ইসহাক প্রথম সারির জীবনীকার। তিনি বলেছেন মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম হাতি বাহিনীর ঘটনা বছর ১২ রবিউল আউয়াল জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

এ বিষয়ে সবাই একমত যে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রবিউল আউয়াল মাসের সোমবারের দিন জন্মগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু তারিখ নিয়ে বিভিন্ন জনের সাথে মতবাদ রয়েছে। কিন্তু সবচেয়ে প্রসিদ্ধ বর্ণনা হচ্ছে ১২ রবিউল আউয়াল। যদিও সবার মাঝে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম তারিখ নিয়ে মতভেদ রয়েছে কিন্তু কারো মাঝে সোমবার সম্পর্কে মতভেদ নেই। সকল ওলামা কেরাম প্রায় একমত যে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ৮-১২ রবিউল আউয়াল তারিখের মধ্যে জন্মগ্রহণ করেন।

ঈদে মিলাদুন্নবী তে আমাদের করণীয়

আমরা সকলেই জানি যে হিজরী বছরের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়াল। রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখ ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করা হয়। বিভিন্ন রকম ইবাদত-বন্দেগির সাথে মুসলিমগণ মিলাদুন্নবী পালন করে থাকেন। ঈদে মিলাদুন্নবী আমাদের করণীয় কি সম্পর্কে অনেকেই জানতে চাই। তাই আজকে আমরা আপনাদের জন্য ঈদে মিলাদুন্নবীতে আমাদের করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করব।

সোমবারের রোজা সম্পর্কে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, " এই দিনে আমি জন্মগ্রহণ করেছি এবং এই দিনে আমাকে নবুয়াত দান করা হয়েছে"{ মুসলিম শরীফ হাদিসঃ ১১৬২}

উপরের হাদীস থেকে আমরা জানতে পারি যে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর জন্মদিন উপলক্ষে আমাদের করণীয় কি। আমাদের সর্বোত্তম কাজ হল রোজা রাখা। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর প্রতি দুরুদ ও সালাম পাঠ করা। অন্য হাদীসে পাওয়া যায় যে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, " সোমবার ও বৃহস্পতিবার বান্দার আমলনামা আল্লাহর কাছে উপস্থাপন করা হয়। সুতরাং রোজা অবস্থায় আমার না আমলনামা উপস্থাপন করা হোক এটা আমি পছন্দ করি"{ তিরমিজি হাদিসঃ ৭৪৭}

আরো পড়ুনঃ রবিউল আউয়াল মাসের কত তারিখ আজ ২০২২

তাই এই দিনে আমাদের করণীয় হলো যে রোজা রাখা এবং বেশি বেশি ইবাদত বন্দেগী করা। হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর প্রতি দুরুদ পাঠ করা। কোন রকম খারাপ কাজের সাথে না জড়িয়ে এবাদত এর সাথে দিনটি পালন করা এটি আমাদের নির্দেশ দিয়েছে। রোজা করার ফজিলত রয়েছে।

ঈদে মিলাদুন্নবী কখন

আজকে আমাদের এই পোষ্টের মূল আলোচনার বিষয় হলো রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে।প্রকৃত মুসলিম হিসেবে আমাদের জানা উচিত যে আজকে হিজরী বছরের কততম দিন? আপনি যদি না জানেন তাহলে আপনাকে জানিয়ে দিই এখন হচ্ছে হিজরী বছরের তৃতীয় মাস রবিউল আউয়াল মাস। আমরা এখন রবিউল আউয়াল মাসের প্রথম সপ্তাহ অতিবাহিত করছি। আমরা অনেকেই জানি যে রবিউল আউয়াল মাস মুসলিম জাতির কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি মাস। কারণ এই দিনে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জন্মগ্রহণ করেন।

আরবি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ১২ রবিউল আউয়াল ইংরেজি বছরের ৯ তারিখ রোজ রবিবার পালন করা হবে। এই দিনে বিশেষ করে আমাদের দেশে বাংলাদেশের সকল ধরনের সরকারি কার্যক্রম ছুটি ঘোষণা করা হয় ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে। ঈদে মিলাদুন্নবীর ফজিলত এবং গুরুত্ব রয়েছে যা ইতিমধ্যে আমরা আলোচনা করেছি। তাহলে আপনি জানতে পেরেছেন যে ঈদে মিলাদুন্নবী কখন।

রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে

প্রিয় পাঠক আজকে আমাদের পোস্টের মূল আলোচনার বিষয় হলো রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে। আমরা সকলেই জানি যে বিয়ে হল আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর একটি উল্লেখযোগ্য সুন্নত। তাই বিবাহ করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় যদি আপনার সামর্থ্য থাকে এবং আপনি প্রাপ্তবয়স্ক হন। তাহলে চলুন আমরা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে জেনে নেই।

বিয়ে করার আগে যে কথাটি প্রথমেই চলে আসে সেটি হল সামর্থ্য। যার সামর্থ্য রয়েছে সে বিবাহ করতে পারবে। যদি একজনের যৌন চাহিদা ঠিক থাকে এবং ভরণপোষণ করতে পারে তাহলে বিবাহ করা ওই ব্যক্তির ওপর হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর একটি সুন্নত। যদি কোন ব্যক্তি ভরণপোষণ দিতে অক্ষম হয় অথবা যৌন চাহিদা সম্পূর্ণ না হয় তাহলে তার জন্য উত্তম হলো রোজা পালন করা।

আরো পড়ুনঃ রবিউল আউয়াল মাসের বয়ান - রবিউল আউয়াল মাসের খুতবা

আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন," হে যুবকগণ তোমাদের মধ্যে যাদের সামর্থ্য রয়েছে তারা বিয়ে করো এবং যাদের সামর্থ্য নেই তারা সিয়াম পালন করো। তাহলে সিয়াম তোমাদের যৌন চাহিদা কে দমন করে রাখবে।" অনেকে প্রশ্ন করে রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করা যাবে কিনা? আপনার প্রশ্নের উত্তর হলো অবশ্যই রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করা যাবে।

পৃথিবীতে আল্লাহ তাআলা বারটি মাস দিয়েছেন। বারটি মাসের কথা আল্লাহ তাআলা কুরআনে উল্লেখ করেছেন। কোরআন এবং হাদীসে এমন কোন দিন পাওয়া যায় না যে ওই দিন অথবা মাসে বিবাহ করা যাবে না। আপনি ইসলামে যেকোনো দিন যেকোনো সময় বিয়ে করতে পারেন এতে কোন সমস্যা নেই। আপনি যদি চান রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করবেন করতে পারেন যদি আপনার সামর্থ্য থাকে।

শেষ কথাঃ রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে

আপনারা যারা রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে সম্পর্কে জানতে চেয়েছিলেন তাদের জন্য উপরে এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। প্রিয় পাঠক আপনি যদি রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করতে চান তাহলে এতে কোন সমস্যা নেই ইসলাম আপনাকে কখনো কোন মাসে অথবা কোন তারিখে বিয়ে করা যাবেনা এরকম বলা হয়নি। ইসলামে বারটি মাস রয়েছে যেগুলোর মধ্যে আপনি যে কোন মাসে এবং যে কোন তারিখে বিয়ে করতে পারবেন।

তাই আমরা জানতে পারি যে রবিউল আউয়াল মাসে বিয়ে করা যেতে পারে। এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম পোস্ট আরও করতে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।১৬৮৩০

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?