অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/03/udzapon.html

স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও আমন্ত্রণ পত্র

আপনি কি স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আজকের আমাদের এই পোস্টটি আপনার জন্য। আজ আমরা আলোচনা করব স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র নিয়ে।

চলুন আর দেরি না করে জেনে নেই স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র সম্পর্কে কিছু তথ্য।

আরও পড়ুনঃ স্বাধীনতার ঘোষণা পাঠ করেন কে?

পেজ সূচিপত্রঃ স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন - স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র

স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন লিখ।

মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদনটি নিম্নরূপঃ

বরাবর

অধ্যক্ষ,

রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, সপুরা, রাজশাহী

বিষয়: স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন।

জনাব,

রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, রাজশাহী মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করছি।

রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত।

গত ২৬ মার্চ, ২০২২ বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে ৫২তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

স্বাধীনতা দিবসের মূল পর্ব ছিল আলোচনা সভা যা যথাযোগ্য মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন বিজিবির মহাপরিচালক, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি মারুফ রায়হান, কবি নাসির আহমেদ ও কবি তারেক রেজা যা রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট অধ্যক্ষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় এবং মুক্তিযোদ্ধা হায়দার জাহান চৌধুরীও আলোচনায় অংশ নেন ।

প্রধান অতিথি তাঁর ভাষণে বলেন, আমাদের জাতীয় জীবনের স্বাধীনতা সবচেয়ে বড় অর্জন। আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলাম দীর্ঘ নয় মাস স্বাধীনতার যুদ্ধ শেষ করে। এই স্বাধীনতার জন্য শহীদ হয়েছে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ। ২৬-শে মার্চ আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সূচনা হলেও ’৫২-এর ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট তৈরি হয় এবং যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, ’৬২-এর শিক্ষা আন্দোলন, ’৬৬-এর ৬ দফা আন্দোলন, ’৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান, ‘সর্বদলীয় ছাত্রসংগ্রাম পরিষদ’ কর্তৃক ১১ দফা আন্দোলন, ৭০-এর সাধারণ নির্বাচনের মধ্য দিয়েই ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাই আমরা। আমরা স্বাধীনতাযুদ্ধে বিজয় অর্জন করেছি অনেক ত্যাগের মধ্য দিয়ে।

কবি মারুফ রায়হান বিশেষ অতিথির ভাষণে বলেন, আমাদের স্বপ্ন ছিল স্বাধীনতাযুদ্ধে বিজয় অর্জনের পর আমরা সুখী ও সমৃদ্ধিশালী একটি বাংলাদেশ গড়ব। কবি তারেক রেজা বিশেষ অতিথির ভাষণে আরও বলেন, যারা স্বাধীনতাযুদ্ধে শহীদ হয়েছেন, তাঁদেরকে জাতি মনে রাখবে যুগ যুগ ধরে। বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে যেটা এই জাতির এ সূর্যসন্তানদের স্বপ্ন ছিল।

আরও পড়ুনঃ বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণা প্রেরণ করেন কে?

কবি নাসির আহমেদ বলেন, আমাদের জন্য স্বাধীনতা একটি স্বর্ণদুয়ার খুলে দিয়েছিল। আমরা আমাদের যুগসঞ্চিত জঞ্জাল দূর করতে পেরেছিলাম যে দুয়ার দিয়ে প্রবেশ করে। আমাদের স্বপ্ন ছিল তখন, সব ধরনের অন্যায়, অত্যাচার, নির্যাতন দূর করে আমরা একটি সুস্থ, শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে পারব। দেশ গঠনে আমাদের সবাইকে সেই সদিচ্ছা নিয়ে কাজ করতে হবে।

কলেজের সম্মানিত অধ্যক্ষ মোহম্মদ আব্দুর রশীদ মল্লিক সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে বলেন, স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে আমাদের ইতিহাসে স্বাধীনতা সংগ্রাম ও স্বাধীনতা দিবসের কথা, আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস অনন্তকাল থাকবে।

এছাড়াও রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয় স্বাধীনতার শহীদদের স্বরণে। এবং স্বাধীনতা উপলক্ষে নাট্যানুষ্ঠান, স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর, সংগীতানুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছিল। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন।

প্রতিবেদকের নামঃ সানিয়া আক্তার

কম্পিউটার টেকনোলজি, রোল নংঃ ৩১৭৭২০, রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, সপুরা, রাজশাহী।

প্রতিবেদনের শিরোনামঃ রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে  স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত।

প্রতিবেদন তৈরির সময়: সন্ধ্যা ৭ঃ০০ টা

তারিখঃ ২৬ মার্চ, ২০২২।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র | স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র কিভাবে লিখবেন তা নিচে দেওয়া হলঃ

২৬শে মার্চ 

মহান স্বাধীনতা দিবস

২০২২

সম্মানীত সুধী,

মহান স্বাধীনতা দিবস ২০২২ উপলক্ষে রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, সপুরা, রাজশাহীর প্রাঙ্গনে ২৬শে মার্চ ২০২২, ৫২ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা উপলক্ষে আলোচনা সভা, নাট্যানুষ্ঠান, স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর, সংগীতানুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছে। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রাজশাহীর মেয়র জনাব এ এইচ এম খাইরুজ্জামান লিটন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি কবি মারুফ রায়হান ও কবি নাসির আহমেদ এবং মুক্তিযোদ্ধা হায়দার জাহান চৌধুরী।

উক্ত অনুষ্ঠানে আপনার সবান্ধব উপস্থিতি আমাদের একান্ত আন্তরিকভাবে কাম্য।

মোহম্মদ আব্দুর রশীদ মল্লিক  
অধ্যক্ষ               
রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট 
রাজশাহী              

শেষ কথাঃ স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন - স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র

বন্ধুরা আজ আমরা স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের এই পোস্টটিতে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র বিস্তারিত দেওয়া হয়েছে। আশা করি আমাদের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন ও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র নিয়ে লিখা এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে। ধন্যবাদ।

আপনার জন্য এই ধরণের আরো কিছু পোস্ট

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?