অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/08/15-aug.html

১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস

প্রিয় পাঠক আজকের এই পোস্টে আমরা ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানব। বাংলাদেশের ইতিহাসে ১৫ আগস্ট জঘন্যতম একটি দিন। এই দিনে বাংলাদেশ শোক দিবস পালিত হয়। তাই আজকের পোস্টে আমরা ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানব।

আপনি যদি ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জেনে আসি।

১৫ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস নিয়ে আরো পোস্ট


পেজ সূচিপত্রঃ ১৫ আগস্ট উপলক্ষে রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস

১৫ আগস্ট কি? ১৫ আগস্ট উপলক্ষে রচনা

আপনারা যারা এই পোস্টটি করছেন তারা নিশ্চয়ই ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চান। আমরা বাঙালি হিসেবে সকলেই জানি ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি শোকের দিন। কমবেশি আমরা সবাই জানি। আপনারা যারা এই পোস্টটি পড়েছেন তারা ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস জানার জন্য গুগলের সার্চ করে আমাদের এই পোস্টে ওপেন করেছেন। তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। তাহলে চলুন ১৫ আগস্ট কি সে সম্পর্কে জেনে আসি।

আরো পড়ুনঃ জুম্মা মোবারক স্ট্যাটাস 2022

১৫ আগস্ট হল জাতীয় শোক দিবস। এই দিনে বাঙালি জাতির স্বাধীনতার নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পুরো পরিবারকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তাই এই দিনটি বাংলাদেশের মানুষ বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে শ্রদ্ধা এবং ভালবাসার সাথে স্মরণ করে। তাহলে চলুন ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জেনে নেই।

১৫ আগস্ট এর রচনা

১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে স্কুল-কলেজে বিভিন্ন রকম প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়। যেমন ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর রচনা। তাই আপনাদের সুবিধার্থে আজকের এই পোস্টে ১৫ আগস্ট এর রচনা উল্লেখ করা হলো। আপনি যদি জাতীয় শোক দিবস এর রচনার জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস জেনে আসি।

একটি প্রজাতি কে সংগঠিত করে স্বাধীনতার মন্ত্র তাদের মনে উজ্জীবিত করা এবং সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া সহজ কাজ নয় কিন্তু এই কঠিন কাজটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান খুব সহজে করেছিলেন। বাংলাদেশ স্বাধীন করার লক্ষ্যে প্রথম থেকে স্বাধীনতা অর্জন এবং স্বাধীনতা সংগ্রাম সবকিছু দক্ষতার সাথে পরিচালনা করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

মানুষকে স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতি জাগ্রত করার মত অসাধারণ বজ্রকন্ঠ ছিল শেখ মুজিবুর রহমানের। অথচ সবার সেরা বাঙালির প্রাণপ্রিয় নেতা কে ঘাতকেরা নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করেছেন। এই নিষ্ঠুর ঘাতকেরা শুধু একজন মানুষকে হত্যা করেনি করেছেন বাঙালি স্বাধীনতা সংগ্রামের মহানায়ককে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কালো অধ্যায় রচিত করেন।

আরো পড়ুনঃ ঈদ মোবারক স্ট্যাটাস

১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির জীবনে একটি কলঙ্কময় দিন। বাঙালি জাতি এই দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করে। বাঙালি জাতির জীবনে ইতিহাসে করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার আহবানে জেগে উঠেছিল বাঙালি জাতি। 30 লক্ষ শহীদের বিনিময়ে বাংলাদেশ পেয়েছি তার পেছনে সবচেয়ে গুরুত্ব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের।

বাংলাদেশের মানুষের কাছে তিনি মুক্তির প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন সকল প্রেরণার উৎস। পৃথিবীর খুব কম রাজনৈতিক নেতা আছে যারা এত জনপ্রিয়তা লাভ করতে পেরেছিল। অথচ তাকে কে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এজন্য এ দিনটিকে বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কলঙ্কিত দিন বলা হয়।

১৫ আগস্ট উপলক্ষে রচনা

বঙ্গবন্ধু এমন একজন মানুষ ছিলেন তিনি একাধারে একজন নেতা হিসেবে একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে, পিতা হিসেবে একটি জাতির ভরসার স্থল, অভাবী ও দুঃখী মানুষের ভরসার প্রতীক ছিলেন। যে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল তারা জানত এই একজন পারেনা এমন কোন কাজ বাংলায় নেই। সুতরাং তাকে হত্যা করতে পারলে বাংলাদেশ অচল হয়ে পড়বে।

ঘাতকেরা বুলেটের আঘাতে বঙ্গবন্ধুকে চূর্ণ-বিচূর্ণ করে দেয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর এর দেহাবসান হয়ে থাকলেও শেখ মুজিবুর অবসায়ন এ বাংলায় কখনো সম্ভব না। তিনি আজীবন তার কর্ম মাধ্যমে বেঁচে থাকবেন সকলের অন্তরে। বাঙালি তাকে সারাজীবন কৃতজ্ঞতার সাথে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে যাবে।

স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ১১ই জানুয়ারি তারিখ হতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাসনকাল ছিল। এই সময়ে শেখ মুজিবুর এর একক সর্বাত্তক নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ দলীয় সরকারের পতন ঘটে।

১৫ আগস্ট এর ইতিহাস

আপনারা যারা এই পোস্টটি করছেন তারা নিশ্চয়ই ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চান তাই আমাদের এ পোস্টটি ওপেন করেছেন। ইতিমধ্যে উপরে ১৫ আগস্ট এর রচনা উল্লেখ করা হয়েছে। এখন আমরা ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে আলোচনা করব।

প্রতিবছর ১৫ আগস্ট আমাদের দেশের জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়। ১৫ আগস্ট শোক দিবস পালন করার পেছনে একটি ইতিহাস রয়েছে। আমাদের বাঙালি হিসেবে সকলের জানা উচিত। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সেনাবাহিনীর কতিপয় কিছু বিপথগামী ধানমন্ডির 32 নম্বর বাসায় সপরিবারে হত্যা করেন।

আরো পড়ুনঃ দশটি শুভ সকাল সোমবার এর ছবি

১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের কোনো সদস্য কে বাঁচিয়ে রাখে নি নিষ্ঠুররা। নিষ্ঠুর ভাবে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পুরো পরিবারের উপর। সেই সময় দেশের বাইরে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ রেহেনা এবং শেখ হাসিনা বেঁচে যান।

ঐতিহাসিক এর পরিপ্রেক্ষিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের জন্য শোক পালন এর জন্য ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয় প্রতিবছর। ১৫ আগস্ট দিনটি বাঙালির ইতিহাসে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। কারণ এই দিনে মারা গিয়েছে স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

১৫ আগস্ট রাত্রে যাদের হত্যা করা হয়েছিলঃ

  1. শেখ কামাল
  2. শেখ জামাল
  3. শিশু পুত্র শেখ রাসেল
  4. পুত্রবধূ সুলতানা কামাল
  5. ও রোজী কামাল
  6. ভাই শেখ আবু নাসের
  7. ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবত 
  8. ভাগনে শেখ ফজলুল হক মনি
  9. শেখ ফজলুল হকের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেগম আরজু মনি
  10. বঙ্গবন্ধুর জীবন বাঁচাতে ছুটে আসেন কর্নেল জামিল উদ্দিন তিনিও নিহত হয়।
  11. বেবি সেরনিয়াবাত 
  12. আরিফ সেরনিয়াবাত 
  13. সুকান্ত আব্দুল্লাহ বাবু
  14. শহীদ সেরনিয়াবাত 
  15. আব্দুল নাঈম খান রিন্টু

শেষ কথাঃ ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস

আপনারা যারা ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে জানতে চেয়ে আমাদের এই পোস্টটি ওপেন করেছেন। তাদের জন্য উপরে ১৫ আগস্ট এর রচনা - ১৫ আগস্ট এর ইতিহাস সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি এই বিষয়ে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে সম্পূর্ণ বিষয়টি বুঝতে পারবেন।

এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম পোস্ট আরও পড়তে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?