অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/05/rozar-eid.html

রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে - ঈদ উল ফিতর ২০২৩

মুসলিম ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় আনন্দ উৎসব দুটি একটি ঈদুল ফিতর অন্যটি ঈদুল আযহা। আজকের এই পোস্টে মুসলিমদের সবচেয়ে বড় ঈদ উৎসব ঈদুল ফিতর নিয়ে আলোচনা করব। এই পোস্টে ঈদ উল ফিতর ২০২৩। ২০২৩ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করব।

চলুন তাহলে আর দেরি না করে জেনে নেই, ২০২৩ সালের রমজান কোন মাসে? রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে ? রমজানের ঈদ কত তারিখে ২০২৩ ইত্যাদি আরো অনেক বিষয়।

পোস্ট সূচিপত্রঃ

ঈদ উল ফিতর কি? ঈদ উল ফিতর ২০২৩

মুসলিম ধর্মালম্বীদের পাঁচটি ফরজ কাজের মধ্যে একটি হল রোজা। মুসলিম ধর্মালম্বী মানুষেরা রমজান মাসে ৩০ টি রোজা পালন করে থাকে। আর এই রমজান শেষে আসে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় আনন্দ উৎসব ঈদ উল ফিতর। সুতরাং আমরা বলতে পারি পবিত্র রমজান শেষে মুসলমান ধর্মালম্বী লোকেরা যে আনন্দ উৎসব পালন করে তাই ঈদ উল ফিতর।

১৪৪৪ রমজান মাসের ক্যালেন্ডার-ঈদ উল ফিতর ২০২৩

অনেকেই গুগলে রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে বা ঈদ উল ফিতর ২০২৩ কত তারিখে তা জানতে চান। আবার অনেকে ১৪৪৪ রমজান মাসের ক্যালেন্ডার খুঁজে থাকেন । চলুন আগে জেনে নেই ২০২৩ সালের রমজান কয় তারিখ থেকে শুরু এবং কয় তারিখে শেষ তাহলে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন ২০২৩ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে।নিচে হিজরী ১৪৪৪ রমজান মাসের ক্যালেন্ডার এর ছবি দেওয়া হল ।

হিজরী ১৪৪৪ রমজান মাসের ক্যালেন্ডার

১৪৪৪ হিজরী রমজান মাসের ক্যালেন্ডারে আমরা দেখতে পাচ্ছি রমজান মাস শুরু হবে ২০২৩ সালের মার্চ মাসের ২৩ তারিখ (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল) এবং রমজান মাস শেষ হবে ২০ এপ্রিল।

রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে বাংলাদেশে |  ঈদ উল ফিতর ২০২৩

অনেকেই আছেন যারা গুগলে গিয়ে সার্চ করেন ২০২৩ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে অথবা রমজানের ঈদ কত তারিখে ২০২৩ ইত্যাদি । এই পোস্টটি তাদের জন্য খুবই উপকারী। নিচে এ বিষয়ে আলোচনা করা হবে । মনোযোগ সহকারে পড়ার অনুরোধ রইল।

সাধারণত আরবি মাস গুলোতে বিভিন্ন মাস ও  দুটি ঈদ উৎসব এগুলো চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল। তেমনি রমজান মাস চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে শুরু হয়।

উপরের হিজরী ১৪৪৪ রমজান মাসের ক্যালেন্ডারে আমরা দেখতে পাচ্ছি রমজান মাস শুরু হবে ২০২৩ সালের মার্চ মাসের ২৩ তারিখ (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল) এবং রমজান মাস শেষ হবে ২০এপ্রিল। 

রমজান শেষে শাওয়াল মাসের ১ তারিখ সাধারণত ঈদ উল ফিতর পালিত হয়। সুতরাং আমরা বলতে পারি বাংলাদেশে ঈদ উল ফিতর ২০২৩ পালিত হবে আরবি শাওয়াল মাসের ১ তারিখ বা ইংরেজি ২০২৩ সালের মার্চ মাসের ২১ তারিখ। (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)

অনেক সময় ২৯ রমজানের পরে চাঁদ উঠে যাই সেই ক্ষেত্রে পরের দিন আরবি শাওয়াল মাসের ১ তারিখ ধরা হয় সেই দিন রোজার ঈদ বা ঈদ উল ফিতর পালন করা হয়।

ঈদ উল ফিতর ২০২৩ সরকারি ছুটির তালিকা

ঈদ উল ফিতর ২০২৩ পালিত হবে মার্চ মাসের ২১ তারিখ শুক্রবার (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)। সুতরাং, সরকারি ছুটির তালিকা অনুযায়ী ঈদ উল ফিতর ২০২৩ এর ছুটি থাকবে মার্চ মাসের ২০তারিখ থেকে ২২ তারিখ মোট তিন দিন। এছাড়া ঈদের পরের দ্বিতীয় দিন ঐচ্ছিক ছুটি থাকবে ১ দিন। সুতরাং এই বছর ঈদ উল ফিতর ২০২৩ এর ছুটি পালিত হবে সর্বমোট ৪ দিন। বাংলাদেশে রোজার ঈদ ২০২৩ পালিত হবে আরবি শাওয়াল মাসের ১ তারিখ বা ইংরেজি ২০২৩ সালের মার্চ মাসের ২১ তারিখ। (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)

ঈদ উল ফিতর এর সুন্নত সমূহ | ঈদ উল ফিতর ২০২৩

ঈদ উল ফিতরের বেশ কিছু সুন্নত রয়েছে। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) ঈদের নামাজ পড়তে যাওয়ার আগে বেশ কিছু নিয়ম কানুন পালন করতেন।ঈদ উল ফিতরের সুন্নত গুলো হলঃ

আরো পড়ুনঃ মহিলাদের ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম ও নিয়ত সম্পর্কে জানুন।

  • অন্যান্য দিনের তুলনায় ঈদের দিন সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠা [ বাইহাকী হাদীস নং-৬১১২৬]
  • মেসওয়াক করা।[ তাবয়ীনুল হাকায়েক- ১/৫৩৮]
  • গোসল করা এবং শরীয়ত মত সাজসজ্জা করা
  • সমর্থ অনুসারে উত্তম পোষাক পরিধান করা ।[ বুখারী হাদিস নং-৯৩৮]
  • সুগন্ধি ব্যবহার করা।
  • ঈদুল ফিতরে ঈদগাহে যাওয়ার আগে কিছু মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া। হাদীসে আছে নবীজি (সাঃ) ঈদুল ফিতরের দিন ঈদগাহে বের হতেন না যতক্ষণ পর্যন্ত খেজুর না খেয়ে নিতেন। [ বুখারী তাও , হাদিস ৯৫৩]
  • সকাল সকাল ঈদগাহে যাওয়া
  • ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের পূর্বে সাদকায়ে ফিতর আদায় করা।
  • পায়ে হেঁটে ঈদগাহে যাওয়া
  • ঈদগাহে নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় তাকবীর পড়তে পড়তে যাওয়া।[ ""আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু, আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, ওয়া লিল্লাহিল হামদ ""]

ঈদ উল ফিতরের নামাজের নিয়ত | ঈদ উল ফিতর ২০২৩

ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ সাধারণত দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ। ঈদ-উল-ফিতরের নামাজের নিয়ত নিচে দেওয়া হলঃ

আরো পড়ুনঃ ঈদুল ফিতরের নামাজের নিয়ম, নিয়ত ও খুতবা সম্পর্কে জানুন।

উচ্চারণঃ "নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা রাকাআতাইন সালাতিল ঈদুল ফিতরি মাআ সিত্তাতিত তাকবিরাতি ওয়াঝিবিল্লাহি তাআলা ইকতাদাইতু বিহাজাল মুতাওয়াঝঝিহান ইলা ঝিহাতিল কাবাতিশ শারিফাতি আল্লাহু আকবার"।

অর্থঃ ঈদুল ফিতরের দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ অতিরিক্ত ছয় তাকবীরের সঙ্গে ইমাম সাহেবের পেছনে কেবলা মুখী হয়ে আল্লাহর জন্য আদায় করছি- ' আল্লাহু আকবার'।

ঈদ উল ফিতরের নামাজের নিয়ম | ঈদ উল ফিতর ২০২৩

ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ সাধারণত দুই রাকাত হয়ে থাকে। তবে অন্যান্য ফরজ ও সুন্নত নামাজের চেয়ে ঈদ-উল-ফিতরের নামাজের নিয়ম কিছুটা ভিন্ন। নামাজের নিয়ম নিচে দেওয়া হলঃ

প্রথমে নামাজের নিয়ত করতে হবে। এরপর ইমামের সঙ্গে তাকবীরে তাহরীমা ' আল্লাহু আকবার' বলে উভয় হাত বাঁধতে হবে। তাকবীরে তাহরীমার পর সানা পড়তে হবে।

এরপর অতিরিক্ত ৩ তাকবীর দেয়া । প্রথম ও দ্বিতীয় তাকবীরে উভয় হাত উঠিয়ে তা ছেড়ে দেওয়া । তৃতীয় তাকবীর দিয়ে উভয় হাত বেঁধে দিতে হবে। এরপর ইমাম সাহেব সূরা ফাতিহা সূরার সাথে অন্য একটি সূরা পড়ে নিয়মিত নামাজের মত রুকু ও সেজদার মাধ্যমে প্রথমে রাকাত শেষ হবে।

দ্বিতীয় রাকাতে সূরা মিলানোর পরে অতিরিক্ত ৩ তাকবীর দেওয়া। প্রথম ও দ্বিতীয় তাকবীরে উভয় হাত ছেড়ে দিতে হবে ।

তৃতীয় তাকবীর দিয়ে উভয় হাত তাকবীরে তাহরীমা বলার পর বেধে নেওয়া। এরপর রুকুর তাকবীর দিয়ে রুকুতে যাওয়া।এরপর সেজদা আদায় করা। শেষে বৈঠকে বসার পর তাশাহহুদ, দুরুদ শরীফ, দোয়া মাসুরা পড়ে সালাম ফেরানোর মাধ্যমে ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ সম্পন্ন করা।

মন্তব্য | রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে | ঈদ উল ফিতর ২০২৩

প্রিয় পাঠক অনেকের প্রশ্ন থাকে,ঈদ উল ফিতর ২০২৩ নিয়ে, রোজার ঈদ ২০২৩ কত তারিখে , রমজানের ঈদ কত তারিখে ২০২৩ , ২০২৩ সালের রমজান কোন মাসে,২০২৩ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে ইত্যাদি বিষয় নিয়ে।

আরো পড়ুনঃ লাইলাতুল কদরের গুরুত্ব, ফজিলত ও দোয়া সম্পর্কে জেনে নিন।

আজকের এই পোস্টে আমরা উপরের সমস্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি । এছাড়াও আলোচনা করেছি ঈদুল ফিতরের সরকারি ছুটি নিয়ে, ঈদের নামাজের নিয়ত ও নিয়ম নিয়ে। পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার প্রিয়জনের সাথে নিচের শেয়ার বাটনগুলো তে চাপ দিয়ে।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?