অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/11/sonbidhan-dibos.html

সংবিধান দিবস কত তারিখ - সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়

সংবিধান দিবস কত তারিখ? আজকের আর্টিকেলে এ বিষয়ে জানবেন। সংবিধান আমাদের একটি দেশের নাগরিকদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু সংবিধান দিবস কত তারিখে সম্পর্কে না জানা আমাদের ব্যর্থতা। তাই আজকের এই আর্টিকেলে আমরা জানবো সংবিধান দিবস কত তারিখ এবং আপনাদেরও জানাবো।

আপনি যদি শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকেন তাহলে সংবিধান দিবস কত তারিখে বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে সংবিধান দিবস কত তারিখ এবং সংবিধান দিবস কবে পালিত হয় বিষয়টি জেনে নেওয়া যাক।

কনটেন্ট সূচিপত্রঃ সংবিধান দিবস কত তারিখ - সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়

সংবিধান দিবস কত তারিখ - সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়ঃ ভূমিকা

সংবিধান দিবস হল একটি দেশের সংবিধানকে সম্মাননা জানানোর জন্য সরকারি ছুটির দিন। ঠিক তেমন বাংলাদেশের ও একটি নির্দিষ্ট সংবিধান রয়েছে। এবং আমরা প্রতি বছর এটি নির্দিষ্ট দিনে সংবিধানকে সম্মান জানানোর জন্য সারা বাংলাদেশে সরকারি ছুটি ঘোষণা করা হয়। আজকের এই পোষ্ট আপনাদের জন্য সংবিধান দিবস কত তারিখ তা নিয়ে আলোচনা করব। সংবিধান দিবস কত তারিখ তা সম্পর্কে জেনে নিন।

সংবিধান দিবস কাকে বলে?

সংবিধান কি? সংবিধান দিবস সংবিধান কি বিষয় সম্পর্কে আপনাকে আগে জানতে হবে। সংবিধান হল কোন শাসন ব্যবস্থার মূল গ্রন্থ যেখানে স্বায়ত্তশাসিত কোন রাজনৈতিক সত্তার কর্তব্য নির্ধারণের মৌলিক নিয়ম ও সূত্র মূলক লিপিবদ্ধ থাকে। কোন দেশের ক্ষেত্রে এই শব্দ সেই দেশের জাতীয় সংবিধান কে বোঝায় রাজনৈতিক মৌলিক নিয়ম ও সরকারের পরিকাঠামো পদ্ধতি ক্ষমতা প্রতিস্থাপন করে।

আরো পড়ুনঃ বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস ২০২২ বিস্তারিত জেনে নিন

সংবিধান দিবস কাকে বলেঃ সংবিধান দিবস হল একটি দেশের সংবিধানকে সম্মাননা জানানোর জন্য সারা দেশে সরকারিভাবে ছুটির দিন। সংবিধান হল একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন। বাংলাদেশের অথবা যে কোন দেশের প্রতিটি নাগরিককে এই সংবিধান মেনে চলতে হবে এটা বাধ্যতামূলক। আশাকরি সংবিধান দিবস কাকে বলে? এর সাথে সংবিধান কি এবিষয়ে বুঝতে পেরেছেন।

সংবিধান দিবস পালিত

এই বছর সংবিধান দিবস এর ৫১ তম বছর পালন করা হবে। কিন্তু অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর সংবিধান দিবস জাতীয়ভাবে পালন করা হবে। বাংলাদেশের মানুষ প্রতিবছর ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস পালন করে থাকে। কিন্তু এ বছর প্রথমবারের মতো সংবিধান দিবস জাতীয়ভাবে পালন করা হবে। সংবিধান প্রণয়নের উদ্দেশ্যে ১৯৭২ সালের ১১ এপ্রিল ডঃ কামাল হোসেনকে সভাপতি করে ৩৪ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

গণপরিষদের সংবিধানের ওপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন সংবিধান শহীদদের রক্তের লিখিত, সংবিধান সমগ্র জনগণের আশা-আকাঙ্খার মূত্র পথিক হয়ে বেঁচে থাকবে। সাধারণত মূল সংবিধান ইংরেজি ভাষায় রচিত হয় কিন্তু পরে সেটি কে বাংলায় অনুবাদ করা হয়। বাংলাদেশের মানুষ প্রতিবছর ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস পালন করে।

কারণ সংবিধান হল একটি দেশের সর্বোচ্চ আইন ব্যবস্থা। এবং একটি দেশের সকল নাগরিককে সংবিধান মেনে চলতে হবে। সংবিধান জনগণকে যে অধিকার দিয়েছে অবশ্যই তা পূরণ করতে হবে এবং সংবিধান যে সকল কাজকে রাষ্ট্রদ্রোহিতা বলেছে সে থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে। তাই প্রতিবছর বাংলাদেশের সংবিধান কে সম্মান জানানোর জন্য ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস পালন করা হয়।

সংবিধান দিবস কত তারিখ - সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়

সংবিধান দিবস কত তারিখ? এ প্রশ্নটি অনেক শোনা যায়। বাংলাদেশের স্বাধীনতা পর অনেক গুরুত্বপূর্ণ দিন ঘটেছে যেগুলোকে স্মরণ রাখার জন্য সেগুলোর নামে একটি ঘরের দিবস পালন করা হয়। সবার পক্ষে সবগুলো দিবস মনে রাখার সম্ভব না হলেও অনেকেই এই দিবস গুলোর সম্পর্কে জানেন। বাংলাদেশের একজন নাগরিক হিসেবে আপনাকে অবশ্যই এটি জেনে থাকতে হবে।

আরো পড়ুনঃ বিশ্ব শিক্ষক দিবস ২০২২ - বিশ্ব শিক্ষক দিবস বাংলাদেশ ২০২২

বাংলাদেশের সংবিধান দিবস প্রতিবছর ৪ নভেম্বর পালন করা হয়। ১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বর বাংলাদেশের সংবিধান প্রণয়ন করা হয় এবং ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের সংবিধান কার্যকর করা হয়। বাংলাদেশের সংবিধানের ৫০ বছর পূর্ণ হবে। এ ৫০ বছরে বাংলাদেশের সংবিধানের ১৭ বার পরিবর্তন করা হয়েছে।

সংবিধান দিবস কত তারিখ বাংলাদেশ - সংবিধান দিবস বাংলাদেশ

সংবিধান হল একটি দেশের সর্বোচ্চ আইন ব্যবস্থা। পৃথিবীতে প্রতিটি দেশের একটি নির্দিষ্ট সংবিধান রয়েছে যা প্রতিটি নাগরিককে মেনে চলতে হয়। বাংলাদেশের সংবিধানে যেদিন প্রেরণ করা হয় সেদিনকে সংবিধান দিবস হিসেবে পালন করা হয়। আমাদের সবাইকে সংবিধান দিবস কত তারিখ বাংলাদেশ এ সম্পর্কে জেনে থাকতে হবে।

১৯৭২ সালের ১০ এপ্রিল গণপরিষদের প্রথম অধিবেশন বসে। এ অধিবেশনে ৩৪ জন সদস্য বিশিষ্ট একটি সংবিধান গ্রহণ কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটির সভাপতি ছিলেন তৎকালীন আইন ও সংসদীয় মন্ত্রী ডঃ কামাল হোসেন। এ কমিটি ১৯৭২ সালের ১২ অক্টোবর গণপরিষদের সংবিধানের খসড়া পেশ করে।

আরো পড়ুনঃ জাতীয় শোক দিবস অনুচ্ছেদ - জাতীয় শোক দিবস রচনা

যেটি ১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বর গণপরিষদ কর্তৃক গৃহীত হয়। এই দিনটিকে স্মরণ করার জন্য বাংলাদেশে প্রতিবছর ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস হিসেবে পালন করা হয়। যদিও ১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বর সংবিধান প্রণয়ন করা হয় কিন্তু সংবিধান ১৬ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর করা হয়। আশা করি বাংলাদেশের সংবিধান সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

সংবিধান দিবস কত তারিখ - সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়ঃ উপসংহার

সংবিধান দিবস কত তারিখ, সংবিধান দিবস কবে পালিত হয়? সংবিধান দিবস কাকে বলে? উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলের আলোচনা করা হয়েছে। প্রিয় বন্ধুরা আশাকরি আপনারা আমাদের এই আর্টিকেল থেকে উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আপনাকেও বিষয়গুলো জানাতে পেয়ে আমরা সত্যিই অনেক আনন্দিত। আপনার এবং আপনার পরিবারের সুস্থতা কামনা করে আজকের মত এখানেই শেষ করছি ধন্যবাদ।২০৮৭৬

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?