অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/04/period.html

পিরিয়ডের যত দিন পর সহবাস, নামাজ, রোজা, কোরআন পড়া যায়

 মেয়েদের প্রতি মাসে স্বাভাবিকভাবে একবার পিরিয়ড হয়ে থাকে। সেই সময় মেয়েদের কাছে কিছু প্রশ্ন থাকে  যেমন- পিরিয়ডের কত দিন পর সহবাস করা যায়? আবার মেয়েটি যদি মুসলমান হয় তাহলে আরো প্রশ্ন থাকে যেমন- পিরিয়ডের কত দিন পর নামাজ পড়া যায়? আবার পিরিয়ডের কত দিন পর কোরআন পড়া যায়? ইত্যাদি নানান ধরনের প্রশ্ন।
চলুন জেনে নিই পিরিয়ডের কতদিন পর নামাজ-রোজা ও সহবাস করা যাবে?

পেজের সূচিপত্রঃ- পিরিয়ডের কতদিন পর নামাজ-রোজা ও সহবাস করা যাবে?

পিরিয়ড কি?

প্রতি চন্দ্রমাস পরপর হরমোনের প্রভাবে পরিণত মেয়েদের জরায়ু চক্রাকারে যে পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যায় এবং রক্ত ও জরায়ু নিঃসৃত অংশ যোনিপথে বের হয়ে আসে তাকেই পিরিয়ড বলে। পিরিয়ডের সময় মেয়েরা অনেক দুর্বল হয়ে পরে তাই পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। যেমন- পালংশাক, কলা, ডার্ক চকলেট ইত্যাদি।

পিরিয়ডের কত দিন পর নামাজ পড়া যায়?

পিরিয়ড সাধারণত তিন দিন তিন রাত হয়ে থাকে। আবার কোন সমস্যা দেখাদিলে প্রায় দশ দিন দশ রাত হয়ে থাকে। তাই টিক বলা সম্ভব না যে পিরিয়ডের কত দিন পর নামাজ পড়া যায়? কিন্তু পিরিয়ডের দিন গুলোতে নামাজ পড়া পুরোপুরি মাপ হয়ে যায়। তাই পিরিয়ডের দিনগুলোর নামাজ না পড়েও পাপ হবে না। আবার সেই দিনগুলোর নামাজ পরে তুলতেও হয় না। কিন্তু পিরিয়ড ভালো হয়ে যাওয়ার ঠিক পরের ওয়াক্তের নামাজ পড়তে হবে।

পিরিয়ডের কত দিন পর কোরআন পড়া যায়?

পিরিয়ড় যেহেতু সারবো নিম্ন তিন দিন তিন রাত এর সরবো উচ্চ দশ দিন দশ রাত প্রায়। তাই সঠিক ভাবে বলা যায় না পিরিয়ডের কত দিন পর কোরান পড়া যায়? তবে পিরিয়ড শেষ হয়ার ঠিক কয়েক ঘন্টা পরেই বা পুরোপুরি সুস্থ হয়ে কোরান পড়া যায়।

পিরিয়ডের কত দিন পর রোজা রাখা যায়?

পিরিয়ড হলে পেট ব্যথাসহ নানানরকম সমস্যা হয়ে থাকে। আর রোজা রাখতে হলে না খেয়ে থাকতে হয় তাই সারীক সমস্যা হতে পারে। তাই পিরিয়ড সম্পুর্ণ ভালো না হলে রোজা না রাখায় ভালো। কিন্তু নামাজ যেমন পিরিয়ডের দিনগুলো মাপ হয়ে যায় তেমন রোজা মাপ হয় না। পিরিয়ড শেষ হয়ার পরে রোজা আদায় করতে হবে। সঠিকভাবে বলা জাইনা তাই পিরিয়ডের কত দিন পর রোজা রাখা যায় তা বলা সম্ভব হয়না।

পিরিয়ডের কত দিন পর সহবাস করা যায়?

পিরিয়ড শেষ হওয়ার পরেই সহবাস করা জাবে। কিন্তু  পিরিয়ডের দিন গুলির সঙ্গে নিরাপদ সহবাস ও জন্মনিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি জারিত। একটি পরিক্ষায় দেখা গিয়েছে পিরিয়ডের ৯ তম দিন থেকে ১৯ তম দিনের মধ্যে ডিম্বাণু তৈরি হয়। এবং ডিম্বাণু ১৪ তম দিনে উর্বর হয়ে থাকে। এই সময় সহবাস করলে গর্ভধারণ এর চান্স সবচেয়ে বেশি থাকে।
তাই পিরিয়ডের কত দিন পর সহবাস করা যায়? এটা বলা সম্ভব নাহলেও ৯ থেকে ১৯ তম দিনের মধ্যে সহবাস করলে গর্ভধারণ এর চান্স বেশি থাকে এটা বলা সম্ভব। আমার মতে পিরিয়ডের পরে সহবাস করলে কনডম ব্যবহার করাই উত্তম। আবার ১৯ তম দিন থেকে পরের পিরিয়ড পরযন্ত সহবাস করলে গর্ভধারণের আশংকা কম থাকে।

পিরিয়ড থেকে অতিদ্রুত সুস্থ হওয়ার উপায়

পিরিয়ড থেকে অতিদ্রুত সুস্থ হতে হলে নিয়ম মেনে ঔষধ খেতে হবে ও ডায়েট কন্ট্রোল করতে হবে। তাহলে আপনি অতিদ্রুত সুস্থ হতে পারবেন। এবং যেসব প্রশ্ন গুলো করেন যেমন- পিরিয়ডের কত দিন পর সহবাস করা যায়? আবার মেয়েটি যদি মুসলমান হয় তাহলে আরো প্রশ্ন থাকে যেমন- পিরিয়ডের কত দিন পর নামাজ পড়া যায়? আবার পিরিয়ডের কত দিন পর কোরআন পড়া যায়? ইত্যাদি নানান ধরনের প্রশ্ন গুলোর উত্তর আপনাকে আর খুজতে হবে না।
উত্তর গুলো খোঁজার আগেই আপনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে জেতে পারেন। আপনার ডায়েট এ যেসব খাবার রাখবেন সেগুলো হলো- পিরিয়ড চলা কালিন বেশি করে ক্যালসিয়াম যুক্ত করতে হবে। যেসব খাবারে ক্যালিসয়াম বেশি থাকে সেগুলো হলো- দুধজাতীয় খাবার, কাঁটাযুক্ত মাছ, ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ সয়া মিল্ক, পনির, ইত্যাদি। তাছাড়াও খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন সবুজ শাকসবজি, ফলমূল যেমন- পুইশাক, মিষ্টি কুমরা, আলু ইত্যাদি।
এ-ই সকল খাবার খেতে পারেন এতে শরীর সুস্থ থাকবে। এর সাথে সবথেকে বেশি পানি পান করবেন। পিরিয়ড সময়ে রক্তের সাথে অনেক পানি বের হয়ে যায়। তাই পানি পান করার কোনো বিকল্প নেই।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?