অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/01/mobile-youtube.html

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর বিভিন্ন উপায়

 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো নিয়ে অনেক প্রশ্ন থাকে পাঠক মনে। সবাই জানতে চান কিভাবে মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো যায়। 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য আপনাকে কি কি করতে হবে তা জানতে পোস্টটি পড়ুন এবং আমাদের সাথে থাকুন।

বিস্তারিত শুরু করার আগে সূচিপত্র দেখে নিনঃ

পেজ সূচিপত্রঃ মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো যায় কি - মোবাইল ইউটিউব 

জ্বি হ্যা।  মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো যায়। আপনি যদি ইউটিউবে নিয়মিত ভিডিও দেখেন তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন এই ভিডিওগুলোর মধ্যে অনেকগুলোই হচ্ছে মোবাইল দিয়ে বানানো। মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো যায় যা দেখতে মনে হয় ক্যামেরা দিয়ে তৈরি করা ভিডিও। 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য কি কি প্রয়োজন - মোবাইল দিয়ে ইউটিউবিং 

পোস্টটি এতক্ষন পড়লে নিশ্চয় বুঝতে পারছেন যে মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো যায়। তবে এছাড়াও আরো কয়েকটি উপকরণ লাগে যা একদম সহজলভ্য এবং আপনি খুব সহজে ম্যানেজ করতে পারবেন। চলুন দেখে নেয়া যাক কি কি উপকরণ লাগেঃ

  • লাইট
  • স্ট্যান্ড বা ট্রাইপড
  • মাইক্রোফোন

আশা করি আপনারা এতক্ষনে বুঝছেন মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য একটি স্মার্টফোন এর প্রয়োজন।

 এগুলো বাদে উপরোক্ত আলোচনা থেকে দেখেছেন মোবাইল ছাড়া লাইট এবং স্ট্যান্ড এর প্রয়োজন।

লাইটঃ

মোবাইল দিয়ে ভিডিও করতে গেলে একটু বেশি আলোর প্রয়োজন হয়ে থাকে।  কারণ বেশি আলোতে মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোতে রেজ্যুলেশন ভালো আসে এবং ভিডিও স্পষ্ট হয়। এজন্য আপনি চেষ্টা করবেন যেন আপনার মুখের দুই পাশে দুইটি এলইডি বাল্ব থাকে। এতে করে আপনার আশেপাশের এরিয়া আলোকিত হবে এবং আপনার ভিডিও সুন্দর হবে। 

স্ট্যান্ডঃ 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য প্রয়োজন একটি স্ট্যান্ড এর।  স্ট্যান্ড না থাকলে ভিডিও করতে গিয়ে আপনাকে একটু বিপদেই পড়তে হবে না হয়। স্ট্যান্ড এর কাজ মূলত একটি জায়গায় স্থির থেকে আপনার ভিডিওটি ধারণ করা। তবে স্ট্যান্ড বা ট্রাইপড আপনি যে ধরনের ভিডিও বানান না কেন এর কার্যকারিতা অনেক। ট্রাইপড বা স্ট্যান্ড আপনি যেকোনো ইলেক্ট্রনিক দোকানে পাবেন এবং দামেও খুব সল্প। 

মাইক্রোফোনঃ 

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ন উপকরণ হলো মাইক্রোফোন। মাইক্রোফোনটি আপনাদেরকে একটু সঠিকভাবে যাচাই করতে হবে।  মাইক্রোফোন দিয়ে কথা না বললে ভিডিওতে আপনার কথা অস্পষ্ট আসবে। মানুষের কথা বুঝতে কষ্ট হবে। তাই আপনি যখন মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানাবেন তখন আপনি মাইক্রোফোন দিয়ে কথা রেকর্ড করার চেষ্টা করবেন। আপনারা মাইক্রোফন ট্রাইপড বা স্ট্যান্ড যে দোকান থেকে কিনবেন সেখান থেকে নিতে পারেন অথবা আপনি চাইলে কোনো অনলাইন শপ থেকে কিনতে পারেন। এগুলো সব জায়গাতে সহজলভ্য।

ভিডিও তৈরি করার সফটওয়্যার - ইউটিউব তৈরি - মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানো 

এতো গেল মোবাইল ইউটিউব ভিডিও বানানোর উপায়। ভিডিও বানানো হয়ে গেলে প্রয়োজন হবে ভিডিওটি এডিট করার। তাছাড়া আপনি যদি এডিট ছাড়াই আপলোড করেন ভিডিওটি তাহলে আপনি হয়তো সফলতা অর্জন করতে পারবেন না। তাহলে এখন উপায় কি মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর জন্য যে ভিডিওটি ডাউনলোড করা হয়েছে সে ভিডিওটি এডিট করার। 

ভিডিও এডিট করার জন্য কয়েকটি অ্যাপস এর প্রয়োজন। দেখে নিন কি কি অ্যাপস লাগবেঃ

চলুন তাহলে অ্যাপসগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাকঃ

Open Camera and XRecorderঃ 

এই দুইটি অ্যাপস মূলত ব্যবহার করা হয় ভিডিওটি রেকর্ড করার জন্য। Open Camera ব্যবহার করলে আপনি মোবাইল ক্যামেরাতে যেরকম ভিডিও বানাতেন তার থেকে কোয়ালিটি অনেক ভালো হবে। তাই চেষ্টা করবেন ভিডিও করার সময় এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে। 

আর যারা স্ক্রীন রেকর্ড করেন তাদের জন্য সাজেস্ট করব আপনারা XRecorder ব্যবহার করবেন। তাহলে আপনাদের ভিডিও এর মান ভালো হবে অনেক।

KineMaster Liteঃ

এটি মূলত ব্যবহার করা হয় ভিডিওটি এডিট করার ক্ষেত্রে। আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো আপনি এই অ্যাপ এর সাহায্যে মোবাইল দিয়ে আপনার ভিডিওটি এডিট করতে পারবেন সহজে। 

Lexis Audio Editor and PixelLabঃ

এগুলো ব্যবহার করা সাউন্ড কোয়ালিটি ভালো করার জন্য। আপনি এই দুইটি অ্যাপস দিয়ে আপনার ভিডিও এর সাউন্ড কোয়ালিটি সুন্দর করতে পারবে।

এছাড়াও আপনি যদি অন্য কোনো অ্যাপ ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনি গুগল প্লেস্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 

আশা করি আপনারা মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও বানানোর সকল টিপস অনুসরণ করলে আপনাদের ভিডিও বানাতে কোনো সমস্যা হবেনা।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?