অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2020/05/youtube-view.html

সহজে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়ানোর ৭ কৌশল

ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াতে চাচ্ছেন? ২০২০ সালে এসে ইউটিউব ব্যাবহার করি না এমন মানুষের সংখ্যা খুবিই কম। যার মধ্যে অনেকের নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল আছে আবার অনেকে ইউটিউবে নিজের একটা চ্যানেল খুলতে চায় এই পোস্টটি তাদের জন্য।


এই পোস্টটির সাহায্যে আপনারা ইউটিউবে ভিউ বাড়ানোর কিছু কার্জকারি ট্রিকস সম্পর্কে জানতে পারবেন। ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াতেয যেসব বিষয়ে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে সেগুলো হলোঃ

ইউটিউব ভিডিও কোয়ালিটিঃ

স্বাভাবিক ভাবেই আপনার ভিডিওর কোয়ালিটি যদি ভালো হয় তাহলে ভিউয়ার দেখতে বশি আগ্রহী হবে, কিন্তু ভিডিওর কোয়ালিটি বলতে শুধু ভিডিওর রেজুলেশন, সাউন্ড, দেখতে কেমন এইগুলাকে বোঝায় না। এছাড়াও যে বিষয়টি গুরুত্তপুর্ণ সেটা হচ্ছে ভিডিওর কনটেন্ট।
কনটেন্টঃ আপনার কনটেন্টের উপর আপনার ভিডিওর ভিউ অনেকটাই নির্ভর করে। আপনার ভিডিওর কনটেন্ট যদি ইউনিক হয়, তাহলে ভিডিওর কোয়ালিটি তুলনা মুলক ভাবে ভালো না হলেও ভিডিও ভাইরাল হতে পারে।

থাম্বনেইলঃ খুব সহজে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়ায়

আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে হলে প্রথমে ভিউয়ারকে আপনার ভিডিওতে ক্লিক করাতে হবে। একজন ভিউয়ার মুলত দুটি জিনিসের উপর ভিত্তি করে আপনার ভিডিওতে ক্লিক করবে।
  1. থাম্বনেইল 
  2. টাইটেল
এখন আমারা অনেকেই জানিনা থাম্বনেইল কি ? আসুন থাম্বনেইল সম্পর্কে বিস্তারিত জানি।

থাম্বনেইল হলো একটি ফটো বা চিত্র যাকে আপনি ইউটিউব ভিডিওর পোস্টারও বলতে পারেন। সহজ ভাবে বলতে গেলে ইউটিউবের প্রায় প্রত্যেকটি ভিডিওতে দেখবেন একটি ফটোর উপর কিছু লেখা থাকে, যা ভিডিওর ভিতরে থাকে না। এটিকে আলাদা করে বানাতে হয়। কোন ভিডিওর থাম্বনেইল দেখেই বোঝা যায় ভিডিওটি কিসের উপর বানানো। এই জন্যই ভিউ বাড়ানোর জন্য ভালো থাম্বনেইল খুবি জরুরি।

টাইটেলঃ খুব সহজে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াতে সাহায্য করে

থাম্বনেইল এর পরে আর যে জিনিস দেখে ভিউয়াররা আপনার ভিডিওতে  ক্লিক করবে সেটা হলো আপনার ভিডিওর টাইটেল। তাই ভিডিওর সাথে সঙ্গতিপূর্ণ এবং সুন্দর একটি টাইটেল নির্বাচন করুর। যাতে ভিউয়ার আপনার ভিডিওতে ক্লিক করে। টাইটেলে কিছু ইন্টারেস্টিং কথা রাখুন , কিন্তু খেয়াল রাখুন সেটা যেন আপনার ভিডিওর সাথে সঙ্গতিপুর্ন হয়, তা না হলে আপনার ভিডিওটি বাতিল হয়ে যেতে পারে।

ট্যাগ এবংডিস্ক্রিপশনঃ

ভিডিওর ভিউয়ের ক্ষেত্রে ট্যাগও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আপনার ভিডিওতে আছে এমন শব্দের সমর্থক শব্দ ট্যাগে ব্যবহার করবেন। যেমন আপনার ভিডিওর টাইটেলে যদি আগুন শব্দটা থাকে তাহলে ট্যাগে অগ্নি ব্যাবহার করতে পারেন। ফলে যখন কেউ অগ্নি বা আগুন লিখে সার্চ করবে ইউটিউব তখন আপনার ভিডিওটা সামনে আনবে। এইভাবে ট্যাগ আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে সাহায্য করে।

আর ডেসক্রিপশন হচ্ছে আপনার ভিডিও সম্পর্কে কিছু তথ্য। ভিউয়ার যদি ভিডিও না দেখে জানতে চায় যে আপনার ভিডিওতে কি আছে সেই ক্ষেত্রে ডেসক্রিপশন তাদেরকে সাহায্য করে। এক্ষেত্রে ডেসক্রিপশন আর ট্যাগে একই কি ওয়ার্ড ব্যবহার করেও ভিডিওর ভিউ বাড়াতে পারেন।

সাবটাইটেলঃ খুব সহজে ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়ায়

সাবটাইটেলও আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে সাহায্য করে। আপনার ভিডিওতে যদি ইংলিশ সাবটাইটেল  দেওয়া থাকে তাহলে ইউটিউব আপনার ভিডিওটি বাইরের দেশের ভিউয়ারদের সার্চেও সো করবে ফলে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়বে।

হ্যাশ ট্যাগঃ

হ্যাশ ট্যাগ আসলে ভিডিওর ভিউয়ের ক্ষেত্রে ততোটা প্রভাব ফেলে না। আপনি যদি ট্রেন্ডি কোন ভিডিওর সাথে আপনার ভিডিওর লিঙ্কটা হ্যাশ ট্যাগে দিয়ে দেন তাহলে ভিউয়ার যখন ওই ভিডিওটা দেখবে তখন হ্যাশ ট্যাগে ক্লিক করে আপনার ভিডিওটাও দেখতে পারে এবং আপনার ভিউ বাড়বে।

ওয়াচ টাইমঃ

আপনি হয়তো মনে করতে পারেন যে ওয়াচ টাইম কিভাবে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াবে? কিন্তু আসলেই ওয়াচ টাইম আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে পারে। কারণ আপনার ভিডিওর ওয়াচ টাইম যদি বেশি হয় তাহলে ইউটিউব আপনার ভিডিওকে সার্চ লিস্টে উপরের দিকে দেখাবে ফলে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়বে। তাই যথা সম্ভব চেষ্টা করুন আপনার ভিডিওর শুরুর দিকটা ভিউয়ারের কাছে আকর্ষণীয় করতে, যাতে কেউ আপনার ভিডিওতে ক্লিক করেই বেরিয়ে না আসে।
সর্বপরি ইউটিউবে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে হলে প্রথমে যেটা প্রয়োজন সেটা হলো আপনার ভিডিওতে ক্লিক। তার জন্য আপনার থাম্বনেইল আর টাইটেলটা অবশ্যই ভালো হতে হবে যাতে ভিউয়ার আপনার ভিডিওতে ক্লিক করে। তারপর আপনার ভিডিওর কোয়ালিটি ভালো হতে হবে, ভিডিও বানানোর সময় ইউনিক কন্সেপ্ট এর উপর মনোযোগ দিন। যাতে ভিউয়ার সেটা দেখতে আগ্রহী হয়। তারপর ট্যাগ এবং ডেসক্রিপশনে একই কিওয়ার্ড ব্যাবহার করুন আর সাবটাইটেল দিন। এভাবেই খুব সহজে আপনি আপনার ইউটিউব ভিডিওর ভিউ বাড়াতে পারেন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?