অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2021/07/walton-fridge-price.html

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ - ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১

আপনি ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ সম্পর্কে জানতে আগ্রহী? আপনি কি কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম  ২০২১ সঠিক ধারণা খোঁজ করছেন? ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১ বাংলাদেশের সর্বশেষ আপডেট তথ্য নিয়ে আজকে আমরা আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি।
 

তাই ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২১ বা ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা 2021 সম্পর্কে জানতে  পোস্টটি পড়তে থাকুন-

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজের দাম

বাংলাদেশের মৌসুমী জলবায়ু হওয়ায়  অধিক সময় গরমকাল স্থায়ী হয়। তাই খাদ্য পণ্য সংরক্ষণ করার প্রয়োজনীয়তা বেশি। তাই আজকাল প্রতিটি মানুষের জন্য ফ্রিজ একটি আবশ্যক এবং দরকারী  উপকরণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কাঁচা খাদ্য সামগ্রী, মাছ  ও মাংস, রান্না করা বিভিন্ন খাবার,  ফলমূল ও শাকসবজি  ইত্যাদি সংরক্ষণ ফ্রিজ আমাদের একান্ত প্রয়োজন।

দেশের অভ্যন্তরে একমাত্র তৈরিকৃত দেশীয় পণ্য দ্বারা তৈরি হয় ওয়ালটন এর বিভিন্ন সামগ্রী।  বাংলাদেশী পণ্য হিসেবে ইতোমধ্যে দেশের সমস্ত প্রান্তে পৌঁছে গেছে ওয়ালটনের সেবা। এমনকি দেশীয় পণ্য হিসেবেবেশ সাশ্রয়ী দামেই পাওয়া যায় ওয়ালটনের বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী। গুণগত মান এবং সার্বিক দিক বিবেচনা করে ওয়ালটন আজ বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের প্রায় পছন্দের তালিকা দখল করে নিয়েছে। ঠিক একইভাবে ওয়ালটন ফ্রিজ আমাদের মানুষের ঘরে ঘরে আজকাল দেখা যায়।যে

অন্যান্য যে কোন ব্রান্ডের কোম্পানির ফ্রিজের তুলনায় ওয়ালটন ফ্রিজের গুণগত মান ভালো এবং দামের দিক দিয়ে অনেক সস্তা। তাই আপনি যদি ফ্রিজ কিনবেন বলে ঠিক করে থাকেন তবে আপনার বাজেট এবং সার্বিক দিক বিবেচনা করে দেশীয় কোম্পানির ফ্রিজ হিসেবে ওয়ালটন ফ্রিজ নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন। আর এর সাথে পাচ্ছেন কোম্পানির বিভিন্ন ধরনের সেবা। যার মধ্যে প্রথমেই আপনি পাবেন 12 বছরের  গ্যারান্টি। হ্যাঁ আপনি ঠিকই বলেছেন 12 বছরের গ্যারান্টি। এছাড়াও আরো অন্যান্য ফ্যাসিলিটিস তো আছে।

আপনাদের সুবিধার জন্য আজকে আমাদের পোস্টে আমরা বিভিন্ন সাইজের অলটন ফ্রিজ ফিচার এবং তার দাম সম্পর্কে উল্লেখ করব আরো সাদা জানাবো ওয়ালটনের ফ্রিজ  কিস্তিতে কেনার জন্য আপনাকে কি কি ধরনের শর্ত মেনে চলতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১৮ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFC-3F5-GDNE-XX ফ্রিজের মূল্য

এটি একটি কি অত্যাধুনিক টেকনোলজি সমৃদ্ধ ফ্রিজ এবং ধারণ ক্ষমতা অনেক বেশি প্রায় 380 লিটার।  এই পরিবারে জন্মগ্রহণ করা একটু কষ্ট হতে পারে কারণ এর দাম প্রায় ৪০,৩৯০/-  টাকা।  এই ফ্রিজের মূল আকর্ষণ হচ্ছে “ইন্টেলিজেন্ট  ইনভার্টার”। এটি এমন একটি পদ্ধতি যেখানে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার পছন্দের ওয়ালটন ফ্রিজটি নিয়ন্ত্রিত হবে। এমনকি ইনভার্টার এর কারণে বিদ্যুৎ অপচয় প্রায় অর্ধেক কমে যাবে। অন্যদিকে এর আকর্ষণীয় ডিজাইন এবং রং এর কারনে প্রথম দেখাতেই সৃষ্টি আপনার চোখে ধরবে।  তাই আপনার যদি বাজেট একটু বেশি হয়ে থাকে তবে নিশ্চিন্তে এই ফ্রিজ কিনতে পারেন।

কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFC-3F5-GDNE-XX
  2. দামঃ ৪০৩৯০/- টাকা।
  3. ক্যাপাসিটিঃ ৩৮০ লিটার।
  4. ওজনঃ ৭০ কেজি।   
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৮৬ সেন্টিমিটার।
  6. প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।  
  7. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।   
  8. ম্যাজিক্যাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি।
  9. এভার্টস হার্মফুল ভেকটোরিয়া।
  10. টেমপার গ্লাস ডোর।    
  11. ইন্ডিলিজেন্ট ইনভার্টার।
  12. ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।
  13. এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  14. কালারঃ নীল ও গোলাপী রংয়ের দুটি কালার।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১৮ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFE-3E8-GDEN-XX ফ্রিজের মূল্য

৩৫৮লিটার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন বড় সাইজের এই ওয়ালটন ফ্রিজটির দাম তুলনামূলক একটু বেশি তবে ফ্রিজ টিতে সার্ভিস  টেকনোলজি এবং ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম সহ কয়েক রকমের ডিজাইন থাকায় অত্যন্ত আকর্ষণীয় লাগে। তাই আপনার বাজেট যদি একটু বেশি হয়ে থাকে তবে আপনি চাইলে এই  ফ্রিজটি নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন। তবে ফ্রিজটির ওজন তুলনামূলক  একটু বেশি।

সাধারণ কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFE-3E8-GDEN-XX    
  2. দামঃ ৩৭৫০০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ৩৫৮ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৭৬ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৮২ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৫৮ সেন্টিমিটার।    
  7. দ্রুত ঠান্ডা হওয়ার সিস্টেম।    
  8. লংগার ফ্রেশনেস।   
  9. এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  10. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।    
  11. টেমপার গ্লাস ডোর।     
  12. লং ইনডোরিং কুলিং সিস্টেম।    
  13. এয়ার ফ্রেশ ফিল্টার।   
  14. কালারঃ কালো, বেগুনী ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১৪ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFC-3D8-GDNE-XX ফ্রিজের মূল্য

যারা অল্প বাজেটে বড় আয়তনের ফ্রিজ খুঁজছেন তাদের জন্য ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি হতে পারে আদর্শএকটি ফ্রিজ। এই ফ্রিজটি স্বল্পমূল্যে একটি বড় পরিবারের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিসপত্র অনায়াসে সংরক্ষণ করতে পারবে। আবার দাম মাত্র ৩৬ (ছত্রিশ) হাজার টাকা। তাই আপনি যদি এরকম কম দামে বড় মাপের কোন ফ্রিজ খুঁজে থাকেন তাহলে নিঃসন্দেহে এই ফ্রিজটি নিতে পারেন। সাথে থাকছে ১২ বছরের ওয়ারেন্টি।

সাধারণ কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFC-3D8-GDNE-XX
  2. দামঃ ৩৬২০০/- টাকা।
  3. ক্যাপাসিটিঃ ৩৪৮ লিটার।
  4. ওজনঃ ৭১ কেজি।
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৭৪ সেন্টিমিটার।
  6. প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।
  7. ইকুলজিক্যাল সেইফ।
  8. এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  9. ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।
  10. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  11. ন্যানো হেলত কেয়ার।
  12. ফাস্টার কুলিং সিস্টেম।
  13. লংগার ফুড ফ্রেশনেশ।
  14. কালারঃ কালো ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১৪ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFE-3A2-NXXX-XX ফ্রিজের মূল্য

ওয়ালটন কোম্পানির এই ফ্রিজটি সর্বাধিক বিক্রি হওয়া একটি ফ্রিজের মধ্যে পড়ে। স্টিল কোয়ালিটি এবং আকৃতি অত্যন্ত উন্নত মানের এবং দেখতেও তেমন সুন্দর। ফ্রিজটিতে ব্যবহার করা হয়েছে এনার্জি সেভিং সিস্টেম যার ফলে বিদ্যুৎ খরচ অনেকাংশে কমে যায়। আবার বড় ফ্যামিলির ব্যবহার করার জন্য অত্যন্ত উপযোগী। তাই আপনার ফ্যামিলি যদি বড় হয়ে থাকে এবং আপনি কোনো  ফ্রিজ কিনতে আগ্রহী হন তবে আপনি এই ফ্রিজটি কোন দ্বিধা ছাড়াই কিনতে পারেন।

কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFE-3A2-NXXX-XX   
  2. দামঃ ২৮৭৫০/- টাকা।
  3. ক্যাপাসিটিঃ ৩১২ লিটার।
  4. ওজনঃ ৫৯ কেজি।   
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৬২.৬০ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৬০ সেন্টিমিটার।
  7. লংগার ইনডোরিং কুলিং সিস্টেম।    
  8. এনার্জি সেভিং ফাইভ স্টার।
  9. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।   
  10. বিএসটিআই অনুমোদিত।    
  11. এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।
  12. ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।
  13. কালারঃ অফ-হোয়াইট সিলভার।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১৩ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFC-3X7-GDEH-XX ফ্রিজের মূল্য

কুলিং সিস্টেম টেকনোলজির সমৃদ্ধ ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি মধ্যম রেঞ্জের মধ্যে সর্বোত্তম একটি প্রোডাক্ট। আপনারা যারা স্বল্প বাজেটের মধ্যে ভাল ফ্রিজ চাচ্ছেন তাদের জন্য এই  মধ্যম রেঞ্জের ফ্রিজটি হতে পারে সবচেয়ে ভালো। তাছাড়া এর উন্নত মানের বডি এবং সেন্সর প্রযুক্তি তাপমাত্রাকে সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম। অন্যদিকে এর একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো এটি সাউন্ড ফ্রী একটি ফ্রিজ। অর্থাৎ, এটি কোন প্রকার শব্দ করবে না। তাই কোনোরকমে চিন্তাভাবনা ছাড়াই নিঃসন্দেহে আপনি কিনতে পারেন যার দাম পড়বে মাত্র ৩২৭৫০ টাকা। সাথে আকর্ষণীয় রং এবং ডিজাইন তো থাকছেই।

সাধারণ কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFC-3X7-GDEH-XX
  2. দামঃ ৩২৭৫০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ৩০৭ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৬০ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৬০ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।
  7. স্ক্রেচ রেসিডেন্ট।    
  8. এয়ার ফ্রেশ ফিল্টার।    
  9. ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।    
  10. DECS টেকনোলজি ব্যবহার।    
  11. ফ্রেশ ফুড রাখার নিশ্চয়তা।
  12. পাওয়ারফুল কুলিং সিস্টেম।      
  13. সহজ অপারেশন করা।    
  14. বড় মাপের স্টোরেজ।    
  15. কালারঃ বেগুনী ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১২ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFB-2B3-GDEL-XX ফ্রিজের মূল্য

যাদের বাজেট খুব কম  কিন্তু মানসম্মত একটি ফ্রিজ কিনতে চাচ্ছেন তাদের জন্য ওয়ালটন দিচ্ছে মাত্র ২৬ (ছাব্বিশ) হাজার টাকায় একটি কালারফুল এবং আকর্ষণীয় ডিজাইনের ওয়ালটনের ফ্রিজ। এই ফ্রিজটি তে উন্নত মানের ফ্রীজিং প্রযুক্তি এবং টেম্পার গ্লাস ডোর ব্যবহার করায় ফ্রিজটি আরো ফিচার ফুল হয়ে উঠেছে। তাই আপনি যদি মধ্যম রেঞ্জের মধ্যে কোন ফ্রিজ কিনতে চান তবে ওয়ালটনের এই  ফ্রিজটি হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ।

সাধারণ কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFB-2B3-GDEL-XX    
  2. দামঃ ২৬৭৫০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ২২৩ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৫১ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৫৫ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৫৫ সেন্টিমিটার।    
  7. উন্নত মানের ফ্রিজির প্রযুক্তি।    
  8. টেমপার গ্লাস ডোর।  
  9. ইকোজন নন ফরস্ট রিফ্রিজারেটর।    
  10. ন্যানো হেলথ কেয়ার।    
  11. প্রিভেন্ট ভেকটেরিয়া।    
  12. ম্যাজিক্যাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি।
  13. কালারঃ ম্যাট ব্লাক ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রন।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১২ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFA-2A3-GDEL-XX ফ্রিজের মূল্য

কালার গ্যারান্টি ফিচার সম্পন্ন এই ফ্রিজটি আপনার জন্য হতে পারে আকর্ষণীয় ডিজাইনের এবং কালারের একটি ফ্রিজ। স্বল্পমূল্যের এবং নান্দনিক ডিজাইনের ফ্রিজটি মাত্র ২৫ (পঁচিশ) হাজার টাকার মধ্যে আপনি কিনতে পারবেন।  তাই যারা স্বল্প আয়ের মানুষ তাদের জন্য এই ফ্রিজটি প্রথম পছন্দ হতে পারে। এছাড়া ন এন্ট্রি টেকনোলজি সমৃদ্ধ এই ফ্রিজটিতে এনার্জি সেভিং সিস্টেম ইনক্লুডেড। তাই  ফ্রিজে রাখা খাবারটি স্বাস্থ্যকর খাবার কিনা তা নিয়ে আপনাকে কোনো দুশ্চিন্তা করতে হবে না। আপনি চোখ বন্ধ করে কিনে ফেলতে  পারেন।
 

কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFA-2A3-GDEL-XX    
  2. দামঃ ২৫৩০০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ২১৩ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৪৫ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৫১ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৫৪.৫০ সেন্টিমিটার।    
  7. ডাইরেক্ট ও ফাস্ট কুলিং সিস্টেম ব্যবহার।    
  8. সাউন্ড/নয়েজ ফ্রি টেকনোলজি।    
  9. এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।    
  10. ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।    
  11. এনার্জি সেভিং সিস্টেম।    
  12. দীর্ঘ সময় স্বাস্থ্যকর খাবার রাখার নিশ্চয়ত।    
  13. কালারঃ নীল ও গোলাপি।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১১ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFD-1F3-RXXX-XX ফ্রিজের মূল্য

আমাদের প্রায় সব মানুষের দেখা যায় সিলভার কালার ফ্রিজ, গাড়ি বা বিভিন্ন ইলেকট্রিক সামগ্রী ক্ষেত্রে সবার প্রথম চাহিদায় থাকে। তাই স্বল্পমূল্যে সিলভার কালার লাভার মানুষদের জন্য মাত্র ২১ (একুশ) হাজার টাকার এই ফ্রিজটি হতে পারে প্রথম পছন্দ। এছাড়া এতে আপনি পাচ্ছেন ১৪৬ লিটার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ইনডোর কোয়ালিটি। সাথে থাকছে ম্যাজিকাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি। তাই আপনি যদি ফ্রিজ কেনা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বতে পড়ে থাকেন তবে আপনাকে সাজেস্ট করবো এই ফ্রিজটি আপনি নিঃসন্দেহে কিনতে পারেন যা আপনার বাজেটের মধ্যে অধিক স্থায়ী এবং গুণগত মানসম্পন্ন।

সাধারণ কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFD-1F3-RXXX-XX    
  2. দামঃ ২১১০০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ১৭৬ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৪৬ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ১৬০ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ৫১.২০ সেন্টিমিটার।   
  7. প্রিভেন্ট বেড ডোর।    
  8. ইকোলজিক্যাল সেইফ।  
  9. ম্যাজিক্যাল নেনো সিলভার টেকনোলজি।    
  10. এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।    
  11. ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।   
  12. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।    
  13. ফাস্টার কুলিং স্পিড।   
  14. কালারঃ সিলভার ব্লাক।

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ১১ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFD-1B6-GDEL-XX ফ্রিজের মূল্য

ছোট পরিবারের সদস্যদের জন্য মানসম্মত একটি ফ্রিজ হতে পারে ওয়ালটনের এই মডেলের ফ্রিজটি।  আকর্ষণীয় কালার এবং উন্নত ডিজাইন এর এই ফ্রিজটি প্রথম দেখাতেই আপনার নজর কাড়বে।  ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম এবং ফাস্টার কুলিং স্পীড সমৃদ্ধ মাঝারি সাইজের ছোট ফ্রিজটি রুমের পছন্দমত জায়গাতে রাখতে পারবেন। এমনকি পরিবেশবান্ধব এই ফ্রিজটি ইকোলজিক্যালি সেইফ।

কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
  1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFD-1B6-GDEL-XX    
  2. দামঃ ১৯৫০০/- টাকা।    
  3. ক্যাপাসিটিঃ ১৩২ লিটার।    
  4. ওজনঃ ৪২ কেজি।    
  5. দৈর্ঘ্যঃ ৫১ সেন্টিমিটার।    
  6. প্রস্থঃ ১৩২ সেন্টিমিটার।    
  7. ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।    
  8. এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট    
  9. ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  10. ফাস্টার কুলিং স্পিড।    
  11. ম্যাজিক্যাল নেনো সিলভার টেকনোলজি।    
  12. প্রিভেন্ট বেড ডোর।    
  13. ইকোলজিক্যাল সেইফ।
  14. কালারঃ গোলাপী ও নীল।

    ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ ৮ সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন WFO-1A5-RXXX-XX ফ্রিজের মূল্য

    এই সাইজের ফ্রিজটি সবচেয়ে ছোট সাইজের ফ্রিজ বলে বিবেচিত। মাত্র চৌদ্দ হাজার টাকার মধ্যে আপনি এই ছোট সাইজের ফ্রিজটি কিনতে পারবেন। তাই আপনি যদি বাড়ির জন্য অতিরিক্ত একটি ছোট ফ্রিজ কিনতে চান তাহলে আপনি এই ফ্রিজটি নিঃসন্দেহে কিনে ফেলতে পারেন। ছোট পরিবার বা সিঙ্গেল পরিবারের জন্য বিশেষ করে ওয়ালটনের পক্ষ থেকে একটি সিটি বাজারে আনা হয়েছে।

    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ

    1. ফ্রিজের নামঃ ওয়ালটন WFO-1A5-RXXX-XX    
    2. দামঃ ১৪৩০০/- টাকা।    
    3. ক্যাপাসিটিঃ ১১৫ লিটার।
    4. ওজনঃ ২৬ কেজি।
    5. দৈর্ঘ্যঃ ৯০ সেন্টিমিটার।    
    6. প্রস্থঃ ৪৯ সেন্টিমিটার।    
    7. ফাস্টার কুলিং স্পিড।    
    8. নেনো সিলভার টেকনোলজি।    
    9. ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।   
    10. প্রিভেন্ট বেড ডোর।   
    11. ইকোলজিক্যাল সেইফ।    
    12. কালারঃ গোল্ড সিলভার ও অফ-হোয়াইট সিলভার।

    ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ বিভিন্ন সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২১

    আমরা ইতোমধ্যেই ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২১ সম্পর্কে জেনে ফেলেছি| ওয়ালটন ফ্রিজ ১৮ সেফটি দাম ২০২১  বা ওয়ালটন ফ্রিজ ৮ সেফটি দাম ২০২১ দুটোই আমাদের সাধ্যের মধ্যে | পাওয়া মধ্যবিত্ত একসাথে বেশি টাকা দিয়ে কোন পণ্য কিনতে গেলে অনেক সমস্যা থাকে। তাই এই সমস্ত মানুষের কথা চিন্তা করে কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১ দেওয়া যায়।

    চলুন জেনে নিই কিস্তি সিস্টেম কি?  কিভাবে কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করা হয়?  কিস্তি বলতে মূলত প্রতি কিছু পরিমাণ টাকা জমা দিয়ে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ টাকাকে পরিশোধ করে দেওয়া। ধরুন আপনি একটি ফ্রিজ কিনলেন যার মূল্য ৫০ হাজার টাকা। কিন্তু একবারে আপনার পক্ষে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া সম্ভব নাও হতে পারে। সে ক্ষেত্রে আপনি ১০,০০০ টাকা ফ্রিজটি  কিনলেন এবং সাথে  এক বছরের কিস্তিতে বাকি টাকা শোধ করবেন বলে কাগজ করে নিনেল।  এখন আপনাকে বাকি ৪০ হাজার টাকা প্রতি মাসে মাসে একটি নির্দিষ্ট  অ্যামাউন্ট সহ জিমা দিয়ে এক বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

    এটি মূলত কিস্তি সিস্টেম। তবে এখানে বলে রাখা ভালো, আপনি যদি কিস্তিতে ফ্রিজ কেনেন তবে আপনাকে কোন  ক্যাশ ডিসকাউন্ট দেওয়া হবে না।

    এতক্ষণ আমরা সেফটি সিস্টেম ওয়ালটন ফ্রিজ দেখলাম। এখন আমরা দেখব কুলিং টাইপের উপর ভিত্তি করে বেশকিছু ওয়ালটন ফ্রিজ-

    ডাইরেক্ট কুল ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরঃ

    নতুন বেশকিছু ডাইরেক্ট কুল টেকনোলজিসহ ওয়ালটন ফ্রিজ মার্কেটপ্লেস এসেছে। চলুন তাহলে দেখে নেই সে সমস্ত ফ্রিজ-

    ১. WFC-3F5-GDNE-XX (Inverter)
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৪০,৩৯০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডাইরেক্ট কুল টেকনোলজি সমৃদ্ধ।
    2. গ্যাস নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি R600a রেফ্রিজারেন্ট।
    3. সম্পূর্ণ অত্যাধুনিক ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার টেকনোলজি রিলেটেড।
    4. ফ্রিজের সম্পূর্ণ আয়তন ৩৮০ লিটার।
    5. ফ্রিজারের আয়তন ৩৬৫ লিটার।
    6. কোন স্ট্রাব্লাইজার করার দরকার নেই।

    ২. WFK-3D7-GDEL-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৩৭,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডাইরেক্ট ইভাপোরিটিং কুল টেকনোলজি সমৃদ্ধ।
    2. গ্যাস নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি R600a রেফ্রিজারেন্ট।
    3. ফ্রিজের সম্পূর্ণ আয়তন ৩৪৭ লিটার।
    4. ফ্রিজারের আয়তন ৩৪৫ লিটার।
    5. কোন স্ট্রাব্লাইজার করার দরকার নেই।

    নন ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর

    যে সমস্ত ফ্রিজ অতিরিক্ত পরিমাণে বরফ জমে না সে সময় সাধারণত নন ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর বলে পরিচিত। এসমস্ত ফ্রিজের একটি সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এদের কোন অতিরিক্ত হিসাবে বলে বারবার পরিষ্কার করার প্রয়োজন পড়ে না। বাজারে সেজন্য নন ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর এর চাহিদা অনেক বেশি। চলুন দেখে আসি কিছু নন ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর-

    ১. WNI-6A9-GDSD-DD
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৮০,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ফ্রিজটি সম্পূর্ণরূপে নন ফ্রস্ট ফ্রিজ।
    2. সম্পূর্ণরূপে সাইক্লোপেন্টেন গ্যাস দ্বারা নিয়ন্ত্রিত তাই পরিবেশ বান্ধব।
    3. কম্প্রেসরের ইনপুট পাওয়ার প্রায় ৪৫.৪ থেকে ১৯৭ ওয়াট পর্যন্ত।
    4. টেম্পারেচার ইলেকট্রনিক ভাবে নিয়ন্ত্রিত হবে।
    5. ফ্রিজের সম্পন্ন আয়তন ৬১৬ লিটার।
    6. ফ্রিজার এর আয়তন ৫৯০ লিটার।
    7. কম্প্রেসর BLDC Inverter.
    8. গ্যাস নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি R600a রেফ্রিজারেন্ট।
    9. সবচেয়ে আপডেট ইন্টেলিজেন্ট ইনভেস্টর টেকনোলজি সমৃদ্ধ।
    10. কোন ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার এর ব্যবহার করার প্রয়োজন নাই।

    ২. WNL-5G5-KPXX-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৫৪,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ফ্রিজটি সম্পূর্ণরূপে নন ফ্রস্ট ফ্রিজ।
    2. সম্পূর্ণরূপে সাইক্লোপেন্টেন গ্যাস দ্বারা নিয়ন্ত্রিত তাই পরিবেশ বান্ধব।
    3. টেম্পারেচার মেকানিক্যাল ভাবে নিয়ন্ত্রিত হবে।
    4. ফ্রিজের সম্পন্ন আয়তন ৫৬২ লিটার।
    5. ফ্রিজার এর আয়তন ৫০০ লিটার।
    6. গ্যাস নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি R600a রেফ্রিজারেন্ট।
    7. সবচেয়ে আপডেট ইন্টেলিজেন্ট ইনভেস্টর টেকনোলজি সমৃদ্ধ।
    8. কোন ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার এর ব্যবহার করার প্রয়োজন নাই।

    ফ্রিজারঃ

    ফ্রিজের বিভিন্ন ফি সমূহ সাধারণত সরাসরি কুল করার কাজে ব্যবহৃত হয় এবং স্বভাবতই ছোট আকৃতির ফ্রিজ। এসব ফ্রিজ সহজে ব্যবহারযোগ্য বলে মানুষের মধ্যে অনেক বেশি চাহিদা রয়েছে এই ফ্রিজের। তাই মানুষের চাহিদা এবং সামনে কোরবানি ঈদকে উপলক্ষ করে ওয়ালটন এনেছে তাদের নিজস্ব বেশকিছু নতুন ফ্রিজার। যে সমস্ত ফ্রিজার-

    ১. WCG-2E5-EHLC-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ২৮,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডিরেক্ট কুল সিস্টেম।
    2. ফ্রিজের কুলিং পাওয়ার -18℃ পর্যন্ত কার্যকর।
    3. ফ্রিজের আয়তন ২৫৫ লিটার।
    4. ফ্রিজার এর আয়তন ২৫৫ লিটার।
    5. রেফ্রিজারেন্ট কোয়ালিটি R600a.

    ২. WCG-2G0-CGXX-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৪৩,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডিইসিএস ধরনের ফ্রিজ।
    2. এটি এক ধরনের আইসক্রিম ফ্রিজার।
    3. ফ্রিজের আয়তন ২৭০ লিটার।
    4. ফ্রিজার এর আয়তন ২৭০ লিটার।
    5. রেফ্রিজারেন্ট কোয়ালিটি R600a.

    ব্রেভারেজ কুলার ফ্রিজঃ

    এই সমস্ত ব্রেভারেজ কুলার ফ্রিজ আমরা সাধারণত বিভিন্ন কনফেকশনারী টাইপের দোকানে দেখে থাকি। সাধারণত বিভিন্ন ধরনের ড্রিঙ্ক এবং জুস প্রডাক্ট এই সমস্ত ফ্রিজে খুব সুন্দর ভাবে সংরক্ষণ করা যায় বলে বাজারে দোকানির কাছে এই ধরনের ফ্রিজের অনেক চাহিদা রয়েছে। চলুন দেখে নিই এই ধরনের কিছু ফ্রিজ-

    ১. WBQ-4D0-TDXX-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ৫৯,৯০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ইনডিরেক্ট কুল সিস্টেম।
    2. ননফ্রস্ট ফ্রিজ।
    3. ফ্রিজের আয়তন ৪৪০ লিটার।
    4. ফ্রিজার এর আয়তন ৩৯৬ লিটার।
    5. রেফ্রিজারেন্ট কোয়ালিটি R134a.
    6. অধিক ক্ষমতা সম্পন্ন ফ্রিজ।

    ২. WBB-2A5-TDXX-RP
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ ২৯,৫০০ টাকা।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডাইরেক্ট কুল ফ্রিজ।
    2. সাধারণত হালকা কাজের ক্ষেত্রে অধিক উপযোগী।
    3. ফ্রিজের আয়তন ২১৫ লিটার।
    4. ফ্রিজার এর আয়তন ২০২ লিটার।
    5. রেফ্রিজারেন্ট কোয়ালিটি R134a.

    আপকামিংঃ

    এসমস্ত ফ্রিজ গুলো এখনো বাজারে আসেনি তবে বেশ কিছুদিনের মধ্যে মার্কেটপ্লেসে এরা তাদের নিজস্ব অবস্থান দখল করে নেবে বলে আশা করা যায়। এসমস্ত ফ্রিজ আরো অত্যাধুনিক টেকনোলজি সমৃদ্ধ এবং কোন মানে অনেক আপডেটেড ভার্সন। চলুন দেখি নি এরকম কয়েকটি ফ্রিজ-

    ১.  WFB-2A8-GDXX-XX
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ এখনো নির্ধারিত হয়নি।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডাইরেক্ট কুল টেকনোলজি রিলেটেড।
    2. ফ্রিজের আয়তন ২১৮ লিটার।
    3. ফ্রিজার এর আয়তন ১৯০ লিটার।
    4. কম্প্রেসর ইনপুট পাওয়ার ৮৮ থেকে ১১১ ওয়াট।
    5. কুলিং ইফেক্ট -18℃ থেকে +5℃ পর্যন্ত নিয়ন্ত্রিত হবে।
    6. এতে কম্প্রেসার টাইপ দেওয়া হবে RSCR.
    7. মেকানিক্যাল পদ্ধতিতে টেম্পারেচার নিয়ন্ত্রণ করবে।
    8. ইন্টেরিয়র ল্যাম্পশেড বিদ্যমান।
    ২. WNR-6E6-GDCS-DD
    বর্তমান বাজার মূল্যঃ এখনো নির্ধারিত নয়।
    কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ
    1. ডিজিটাল ডিসপ্লে সমৃদ্ধ।
    2. দুই পাল্লা বিশিষ্ট দরজা।
    3. ডোর ওপেনিং এলার্ম সিস্টেম।
    4. আলাদাভাবে বরফ তৈরি করার জায়গা বিদ্যমান।
    5. ইউভি রশ্মি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।
    6. আদ্রতা নির্ধারক জায়গা বিশিষ্ট।
    7. ফ্রিজের আয়তন ৬৫৬ লিটার।
    8. ফ্রিজার এর আয়তন ৫৯৯ লিটার।
    9. কোয়ালিটি BLDC Inverter.
    10. অটোমেটিক ভাবে ডিফরেস্টিং হবে।

    ওয়ালটন ফ্রিজ বিভিন্ন সেফটি দাম ২০২১ | ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২১

    ওয়ালটন দেশীয় পণ্য হাওয়ায়  দেশের নাগরিকের কথা চিন্তা করে সর্বোচ্চ পরিমাণ কিস্তি সুবিধা দেওয়া হয়েছে। সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ ৩০ (ত্রিশ) মাস মেয়াদী কিস্তিতে ওয়ালটন পণ্য কেনা যাবে বলে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে মাসিক কিস্তির পরিমাণ কমে যাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়। ফলে ওয়ালটনের  পণ্য কেনা-বেচা কিছুটা ভাটা পড়েছে।

    পরবর্তীতে সাম্প্রতিক ওয়ালটনের কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন করে ৩ (তিন) বছর মেয়াদী কিস্তিতে পণ্য বিক্রয়ের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে যা পহেলা জুন থেকে সারা দেশের প্রতিটি শোরুমে কার্যকর হয়েছে। দেশের মানুষ যাতে প্রযুক্তির সুবিধা ভোগ করতে পারে তাই তাদের কথা ভেবেই নতুন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

    তবে এক্ষেত্রে কিছু নিয়মকানুন রয়েছে। কিস্তি কার্যকর হওয়ার জন্য গ্রাহককে অবশ্যই সর্বনিম্ন ৮ (আট) হাজার টাকা মূল্যের পণ্য ক্রয় করতে হবে। এর কম মূল্যের কোন পণ্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না অন্যদিকে রোজার ঈদ উপলক্ষে ফ্রিজের দাম কমেছে এবং বিভিন্ন ধরনের ডিসকাউন্ট অফার চলছে তাই আপনি আপনার সুবিধামতো ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ফেলতে পারেন।

    ফ্রিজ ব্যতীত ওয়ালটন ব্র্যান্ডের বিভিন্ন টিভি, এসি, মোটরসাইকেল, জেনারেটর, হোম ও কিচেনএপ্লায়েন্স সহ অন্যান্য যেকোনো পণ্য কিনে আপনি এই ডিসকাউন্ট অফার উপভোগ করতে পারবেন সাথে তো কিস্তি সুবিধা রয়েছেই।

    ফ্রিজ প্রতিটি মানুষের একটি প্রয়োজনীয় জিনিস। কমবেশি আজকাল প্রায় সব মানুষের ঘরেই ফেস দেখা যায়। আর বর্তমানে ওয়ালটন দেশীয় পণ্য ব্যবহার করে সম্পূর্ণ নিজের দেশের মানুষের জন্য তারা বিভিন্ন প্রোডাক্ট তৈরি করছে। বিশ্বমানের মানসম্পন্ন। তাই বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে আমাদের প্রত্যেকেরই দেশীয় পণ্য ব্যবহার করা উচিত।

    অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

    0 Comments

    দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

    সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

    অর্ডিনারি আইটি কী?