অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2020/04/esheba.cnsbd.com.html

অনলাইনে ট্রেনের অগ্রীম টিকেট কাটার নিয়ম | বিকাশ বা রকেট

বিকাশের মাধ্যমে ট্রেনের অগ্রীম টিকিট অনলাইনে কাটার নিয়ম জানতে চান? বাংলাদেশে ট্রেনকে সবচেয়ে নিরাপদ ও সাশ্রয়ী পরিবহন ধরা হয়। দূরপাল্লার যেকোনো ভ্রমণে তাই সবাই ট্রেন ব্যবহারেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। কিন্তু ট্রেনের টিকিট কাটা এখানে অত্যন্ত দুঃসাধ্য কাজগুলোর মধ্যে একটি। বিশাল লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কাটার ঝামেলা থেকে বাঁচতে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ই-টিকেটিং সিস্টেম। বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে আপনি অনলাইনেই টিকিট কেটে ফেলতে পারেন। তবে এজন্য আপনার কিছু জিনিসের প্রয়োজন হবে।
Logo of Bangladesh Railway and some writings

https://esheba.cnsbd.com/ এই সাইটটি থেকে আপনি কোন ঝামেলা ছাড়াই টিকিট কেটে ফেলতে পারবেন। চলুন দেখে নেওয়া যাক মাত্র ৩টি ধাপে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার পদ্ধতি।

ধাপ ১: অ্যাকাউন্ট খোলা | অনলাইনে ট্রেনের অগ্রীম টিকেট কাটার নিয়ম

যেসব জিনিস প্রয়োজন হবে: | ট্রেনের অগ্রীম টিকিট অনলাইন

  • জাভাস্ক্রিপ্ট সাপোর্টেড কোন ব্রাউজার (মজিলা, গুগলক্রোম, অপেরা, যেকোনো ব্রাউজার হলেই হবে)
  • আপনার ফোন নম্বর

কার্যপ্রণালী: | বিকাশে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

১. https://esheba.cnsbd.com/ সাইটে গিয়ে Register এ ক্লিক করুন।

২. এরপরে যে ফর্মটা আসবে সেটি ভালো ও নির্ভুলভাবে পূরণ করে Sign Up বাটনে ক্লিক করুন।


৩. সব ঠিকঠাক থাকলে আপনাকে ভেরিফিকেশন কোড দিতে বলবে। ভেরিফিকেশন কোডটা আপনি যে নাম্বার দিয়েছিলেন সেই নাম্বারে সেন্ড করা হবে ০১৮৪৭১৬৯৯৫৮ এই নাম্বার থেকে। ৬ ডিজিটের ভেরিফিকেশন কোডটি প্রবেশ করিয়ে Verify বাটনে ক্লিক করুন। 

এভাবে আপনার অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট হয়ে যাবে। এরপর আপনাকে অ্যাকাউন্ট আপডেট করতে হবে।

ধাপ ২: অ্যাকাউন্ট আপডেট

যেসব জিনিস প্রয়োজন হবে: 

  • একটি অ্যাকাউন্ট (যেটি আপনি আগের ধাপে ক্রিয়েট করলেন)
  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম-নিবন্ধন নম্বর

কার্যপ্রণালী:

১. ব্রাউজারে ই-টিকেটিং সাইটে গিয়ে আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করুন। সাধারণত লগইন করাই থাকবে।

২. লগইন করার পরই আপনাকে একটি ফর্ম দেওয়া হবে। ফর্মটা ঠিকঠাক ভাবে পূরণ করতে হবে। উল্লেখ্য আপনার সার্টিফিকেটের জন্মতারিখ ব্যবহার করতে হবে। আর আপনি যেখানে থাকেন সে এলাকার পোস্ট কোড দিতে হবে। এই সাইটে গিয়ে আপনার এলাকার পোস্ট কোড খুঁজে বের কতে পারবেন। সব পূরণ করার পরে নিচের Update Your Profile বাটনে ক্লিক করুন।

 ৩. সব ঠিক থাকলে উপরে একটা নীল ড্যাসবোর্ডে আপনার সব তথ্য দেখাবে।


এভাবে আপনার অ্যাকাউন্ট আপডেট হয়ে গেলেই আপনি টিকিট কিনতে পারবেন।

ধাপ ৩: টিকিট কেনা 

যেসব জিনিস প্রয়োজন হবে:

  • যেকোন একটি পেমেন্ট মেথড (বিকাশ, রকেট, নেক্সাস পে, অ্যামেক্স অথবা ব্র্যাক বা সিটি ব্যাংক এর যেকোনো মাস্টার-কার্ড বা ভিসা কার্ড)
  • আপডেট করা একটি অ্যাকাউন্ট

কার্যপদ্ধতি:

১. প্রথমে আপনার ব্রাউজারে ই-টিকেটিং সাইটে গিয়ে লগইন করে নিন।

২. এরপর হোম এ গিয়ে আপনার রুট ঠিক করে “Find” এ ক্লিক করুন।

৩. এরপরে ট্রেনের লিস্ট থেকে আপনি যে ট্রেনে যেতে চান সেটির পাশের “Details” বাটনে ক্লিক করুন।

৪. ডিটেইলস দেখে নিশ্চিত হয়ে “Purchase” বাটনে ক্লিক করুন।


৫. এরপর একটি স্ক্রিনে আপনার টিকিট এর ব্যাপারে সব ডিটেইলস চলে আসবে। সব ঠিকঠাক থাকলে “Buy Ticket” বাটনে ক্লিক করে  “Agree” বাটনে ক্লিক করুন।


৬. এর পরের স্ক্রিন থেকে আপনার পেমেন্ট মেথড সিলেক্ট করে পে করলেই একটি ফিরতি ইমেইলে আপনার টিকিট চলে আসবে।


সবশেষে আপনার ইমেইলে পাঠানো অ্যাটাচমেন্ট টি প্রিন্ট-আউট করে নিশ্চিন্তে ট্রেনে উঠে যান। টিটিই কে ওই প্রিন্ট আউট দেখালেই হয়ে যাবে।

কোন সমস্যা হলে…:

  • আপনার ভিপিএন বন্ধ করুন। এ সাইটটি শুধুমাত্র বাংলাদেশের জন্য।
  • ধাপ ২ এ কোন সমস্যা হলে ব্রাউজার চেঞ্জ করুন। অনেক সময়ে মজিলা ব্রাউজারে অ্যাকাউন্ট আপডেট হয় না। 

সাইটের নিয়ম অনুযায়ী এ টিকিট হস্তান্তরযোগ্য নয়। তবে এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। একজনের টিকিট অন্যজন নিয়ে গেলেও টিটিই ধরবে না। টিটিই শুধু দেখবে যে আপনি বা অন্য কেউ বৈধ টিকিট নিয়ে ভ্রমণ করছে কি না। আর হ্যাঁ ভুলেও টিকিট ছাড়া ট্রেনে ভ্রমণ করবেন না।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?