-->
অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2020/07/chrome-extention.html

গুগল ক্রোমের ১০টি সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

১০টি সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন সম্পর্কে জেনে নিন তাও আবার গুগল ক্রোমের। বিগত কয়েক বছরে গুগল ক্রোম ব্যবহারকারীদের সার্বিক সুবিধার কথা বিবেচনায় রেখে গুগল নিজেদের সেবার মান যথেষ্ট ভালো ও উন্নত করেছে। কিন্তু তবুও গুগল ক্রোম তাদের নিজেদের ডাউনলোড ম্যানেজারটিকে খুব বেশি আপডেট বা উন্নত করে নি।


যার কারণে ক্রোমের নেটিভ বা Default ডাউনলোড ম্যানেজারটি ব্যবহার করতে বেশ কিছু সমস্যা  দেখা যায়। যেমনঃ হঠাৎ ডাউনলোড আটকে যাওয়া, হঠাৎ গতি কমে যাওয়া, এমনকি ডাউনলোড রিসিডিউল হয়ে যাওয়া সহ ইত্যাদি।

কিন্তু সৌভাগ্যক্রমে কিছু থার্ড পার্টি ডাউনলোড ম্যানেজার আছে, যেগুলো গুগল ক্রোমের ডিফল্ট ডাউনলোড ম্যানেজারের চেয়ে যথেষ্ট ভালো কাজ করে। অতএব, যতদিন না পর্যন্ত  গুগল তাদের ডাউনলোড ম্যানেজারটাকে আরো উন্নত ও সাবলীল করছে, ততোদিন আমরা এই থার্ড পার্টি ডাউনলোড ম্যানেজারগুলোর সাহায্য নিতে পারি।
এই আর্টিকেলে আমরা এমন কিছু ডাউনলোড ম্যানেজার নিয়ে আলোচনা করবো, যেগুলো আপনি চাইলেই ব্যবহার করতে পারেন! 

ক্রোম এক্সটেনশানে দুইধরণের ডাউনলোড ম্যানেজার ব্যবহার করা যায়। তার মধ্যে একপ্রকার হলো "Standalone Download Manager"। এইধরণের এক্সটেনশান ব্যবহার করতে হলে আপনার আলাদা কোনো এপ ডাউনলোড করতে হবে না। অন্য একপ্রকার আছে, যেগুলো মূলত " Download Manager App"। এগুলো নির্দিষ্ট কিছু এক্সটেনশানের সাথে ডাউনলোড করে নিতে হয়।

আমরা এই আর্টিকেলে দুইধরণের এক্সটেনশান ডাউনলোড ম্যানেজার নিয়েই আলোচনা করবো। তবে মূল আলোচনায় যাওয়ার আগে একটা কথা বলে রাখি। আপনি চাইলে কিন্তু "Chrome Flag" ব্যবহার করে ক্রোমের ডিফল্ট ডাউনলোড ম্যানেজারের কার্যকারিতা বাড়াতে পারেন। যারা এখনো জানেন না, তাদের জন্য বলছি। "Chrome Flag" হলো গুগল ক্রোমের একটি এক্সপেরিমেন্টাল ফিচার। এগুলো এখনো পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহারকারীদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়ে যাচ্ছে ক্রোম কর্তৃপক্ষ। একটা ফ্লাগ আছে, যার নাম "প্যারালাল ডাউনলোডিং" যেটা এনাবল করলে আপনার ডিফল্ট ডাউনলোড ম্যানেজারের গতি বেড়ে যাবে বহুগুণ। এটা chrome://flags পেইজে গিয়ে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন।
এবার তাহলে আর দেরী না করে আমাদের টপ ১০ ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশান লিস্টে চলে যাওয়া যাক!

1. Chrono Download Manager Extention

এটা নিঃসন্দেহে সেরা ক্রোম এক্সটেনশান ডাউনলোড ম্যানেজার। ক্রোনো ডাউনলোড ম্যানেজারে দরকারী সব ধরণেরই ফিচার আছে এবং এটি খুব দ্রুত এবং কোনো সমস্যা ছাড়াই নির্বিঘ্নে চলে। এটি ব্যবহার করাও অত্যন্ত সহজ। এটা যদি আপনার এক্সটেনশানে এড করা থাকে, তাহলে আপনি যেকোনো ফাইলে কেবল "ডাউনলোড" বাটনে ক্লিক করলেই ডাউনলোডের কাজ শুরু হয়ে যাবে। আপনি চাইলে যেকোনো সময় ক্রোমের  উপরের ডান পাশে থাকা এই এক্সটেনশানের আইকনে ক্লিক করে ডাউনলোড করা সব ফাইন দেখতে পাবেন।

2. Online Download Manager Extention

এরপরেই আসছে এই এক্সটেনশানটি। এটাও যথেষ্ট ভালো এবং ব্যবহারকারীদের বিভিন্ন সুবিধা দিয়ে থাকে। স্পিড ও পারফরমেন্স যথেষ্ট ভালো। কিন্তু সমস্যা হলো মাঝে মাঝে হঠাৎ অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে এটি ওপেন করার সময় আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে এই এক্সটেনশানের একটি ভালো ব্যাপার হলো কেবল একটি ক্লিকেই আপনি আপনার ডাউনলোড করা সব ফাইল ম্যানেজ করতে পারবেন। নতুন উইন্ডোতে যাওয়ার দরকার পড়বে না। তবে একটা ব্যাপার হলো, এই ডাউনলোড ম্যানেজারের মাধ্যমে আপনি চাইলেই ইউটিউবের মতো জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলো থেকে ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন না।
Install: (Free)

3. Turbo Download Manager (v2)

Turbo Download Manager (v2) হলো খুব সিম্পল একটি এক্সটেনশান যেটা আপনার সব ডাউনলোড করা ফাইলগুলোকে একটি ছোট উইন্ডোতে রাখতে পারে,যেখান থেকে এগুলো নিয়ন্ত্রন করা সোজা। এখান থেকে আপনি চাইলেই একসাথে একযোগে একাধিক ফাইল ডাউনলোড করতে পারেন। ডাউনলোড স্থগিত(Pause) রাখতে পারেন। এতে কানেকশান ব্রেক বা ফাইলের ক্ষতি সবার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। এছাড়াও আপনার ডাউনলোড করা ফাইলগুলোকে চাইলে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সাজানোর সুবিধা দিবে এই ডাউনলোড ম্যানেজারটি।

4. VLC | গুগল ক্রোমের সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

VLC Video Downloader এর সাহায্যে আপনি ফেসবুক, টুইটার,ইন্সটাগ্রামের মতো জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলো থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে রাখতে পারেন। যদিও এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করা সম্ভব না। এটা যেকোনো স্ট্রীম প্লাটফর্মে স্ট্রীম হতে থাকা যেকোনো লাইভকে VLC MEDIA PLAYER এ দেখতে সাহায্য করে।  

এছাড়াও আপনি  “Video Downloader professional” extension (free) ব্যবহার করতে পারেন। এটিও ভিডিও ফাইল ডাউনলোড করার জন্য ভালো।

এবার দেখে নেয়া যাক কিছু App Enabled Download Manager Chrome Extensions

5. IDM | সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

Internet Download Manager  সম্ভবত উইন্ডোজের সবচেয়ে জনপ্রিয় ডাউনলোড ম্যানেজার। এটার সবচেয়ে ভালো ব্যাপার হলো এটি Dynamic Segmentation technology ব্যবহার করে ডাউনলোডের গতি বাড়িয়ে দেয় বহুলাংশে। এছাড়া IDM ব্যবহার করে অডিও, ভিডিও, ইমেজ সহ সব ধরণের ফাইল ডাউনলোড করা সম্ভব। এর সাহায্যে ইউটিউব থেকেও সহজে ভিডিও ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া আপনি এর সাহায্যে টাইম শিডিউল করে তাৎক্ষণিক ডাউনলোড না করেও পরে নিজের ইচ্ছামতো সময়ে ডাউনলোড করে নিতে পারেন। এটি প্রক্সি সার্ভারও সাপোর্ট করে এবং এর কানেকশান "ব্রেক" হয়ে যাওয়া ডাউনলোড টাস্ক রিকভার করে নিয়ে ঠিকঠাক ডাউনলোড করার ক্ষমতাও আছে। ক্রোমের সাথে যুক্ত IDM এর এক্সটেনশান এর কাজের গতি বা কার্যকারিতা বাড়ায় বহুগুণে।

6. Folx  | গুগল ক্রোমের সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

বলা হয়ে থাকে, Folx হলো ম্যাক এর IDM. এর কার্যকারিতা IDM এর মতোই। পার্থক্য হলো IDM উইন্ডোজের জন্য। আর Folx হলো ম্যাক এর জন্য। Folx তার এক্সটেনশানের মাধ্যমে ডাউনলোড লিংক ক্যাচ করে। এর সাহায্যে যেকোনো ধরণের ফাইল ডাউনলোড করা যায় এবং যেকোনো জনপ্রিয় ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যায়। এটি প্রক্সি সুবিধা দেয়। যার মাধ্যমে চাইলেই আপনি গোপণীয়তা বজায় রেখে ফাইল ডাউনলোড করতে পারেন। এছাড়া রিসিডিউলিং সুবিধা তো আছেই। এগুলো ছাড়াও একটি ভালো ডাউনলোড ম্যানেজারের মধ্যে আপনি যা যা সুবিধা চান, তার সবটিই পাবেন Folx ডাউনলোড ম্যানেজারে।

7. Free Download Manager

এটা আসলে একটা ফ্রী এপ। যেটা দ্বারা সহজেই ফাইল ডাউনলোড এবং অর্গানাইজ করা যায়। উইন্ডোজ/ম্যাক দুই অপারেটিং সিস্টেমেই এটি ব্যবহার করা যায়। এটির সাহায্যেও বাকি ডাউনলোড ম্যানেজারের মতো রিসিডিউলিং, ব্রেক হয়ে যাওয়া ডাউনলোড ঠিকঠাক ডাউনলোডের মতো সুবিধা পাবেন। তবে এটির আরো ইন্টারেস্টিং একটি ফিচার আছে, যেটি বাকিগুলোতে নেই। এর সাহায্যে ডাউনলোড করার পূর্বে যা ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন, তার একটি প্রিভিউ দেখতে পাবেন, যা আসলে খুবই দরকারী একটা ফিচার। আপনি যদি ফ্রী কোনো এপ খুঁজেন, তাহলে নিঃসন্দেহে এটি আপনার জন্য সেরা এপ!

8. FlareGet  | ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

FlareGet উইন্ডোজ,ম্যাক,লিনাক্স সবখানেই ব্যবহার করা যায়। এটা ক্রোমে এক্সটেনশানের মাধ্যমে কার্য নির্বাহ করে। "Dynamic File segmentation technology" ব্যবহারের কারণে এটির স্পিড অনেক ভালো। এর সবচেয়ে ভালো দিক হলো, যদি কোনো কারণে ডাউনলোড চলমান অবস্থায় আপনার কম্পিউটার বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে যখন পরে আবার অন হবে, তখনই ডাউনলোড কন্টিনিউ করে যাবে। এতে ফাইলের কোনো ক্ষতি হবে না। এর সাহায্যে ডাউনলোড রিসিডিউলিং, প্রক্সির মতো সুবিধাগুলো পাবেন। তবে এই এপটি ফ্রী না। ট্রায়াল শেষ হলে টাকা দিয়ে কিনে ব্যবহার করতে হবে।
Install: (Free, $9.99)

9. EagleGet  | গুগল ক্রোমের ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

EagleGet একটি শক্তিশালী ডাউনলোডিং এপ যার অনেক সুবিধা আছে। এটি মাল্টি থ্রেডিং টেকনোলজি ব্যবহারের মাধ্যমে ডাউনলোড করে, যা খুব দ্রুত ডাউনলোড করতে সাহায্য করে। এর ক্রোম এক্সটেনশান ওয়েবপেইজের কোনটা ইমেজ ফাইল, কোনটা ভিডিও ফাইল এগুলো খুব সহজে ডিটেক্ট কর‍তে পারে, যা ডাউনলোডের প্রক্রিয়াকে অনেক সহজ করে দেয়। অন্যান্য ডাউনলোড ম্যানেজারগুলোর চেয়ে এর ফিচার অনেক বেশি। যেমনঃ  smart scheduling, clipboard capture, integrity check for downloaded files, media conversion after download ইত্যাদি। অর্থাৎ, EagleGet ডাউনলোড ম্যানেজারের বেসিক সুবিধা ছাড়াও আরো প্রচুর সুবিধা দিয়ে থাকে। যা সাধারণত বাকিগুলো থেকে পাওয়া কঠিন!

10. iDownload Manager  | ক্রোমের সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার এক্সটেনশন

এটি খুব সিম্পল কিন্তু শক্তিশালী একটি এপ। এর একটা ভালো ব্যাপার হলো এটি উইন্ডোজ স্টোরেই পাওয়া যায়। তাই আপনার আর আলাদাভাবে বাড়তি ডাউনলোড,সেটআপ এর ঝামেলায় যাওয়ার দরকার নেই। এটার স্পিডও যথেষ্ট ভালো। উপরোক্ত এপ গুলোর মতো যতোগুলো সুবিধা একটি ডাউনলোড ম্যানেজারের থাকার কথা, তার সবই এখানে আছে! আশা করি বুঝতে পারেছেন কি কি সুবিধাগুলোর কথা বলা হচ্ছে! অবশ্য এটি ফ্রী এপ নয়।
এই ছিলো ১০টি সেরা ডাউনলোড ম্যানেজার ক্রোম এক্সটেনশান। এছাড়াও আরো অনেক ডাউনলোড ম্যানেজার আছে। তবে আমাদের চোখে এই ১০ টাই সেরা। আশা করি এই আর্টিকেলটার মাধ্যমে আপনি আপনার চয়েজ এবং সামর্থ্য অনুসারে আপনার জন্য সেরা ডাউনলোড ম্যানেজারটি খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। আরো কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট সেকশানে করতে পারেন। ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

3 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

  1. স্যার কিভাবে বাংলাদেশের যে কোন অপারেটরে ফ্রি তে কথা বলা যায় এটা নিয়ে একটি পোস্ট করা দরকার

    ReplyDelete
    Replies
    1. আগামী পোস্টের জন্য অপেক্ষা করুন।

      Delete

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?