অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/12/khristo.html

যিশু খ্রিস্টের জীবনী - যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ - যিশু খ্রিস্টের বাণী

যিশু খ্রিস্টের জীবনী সম্পর্কে যদি আপনি বিস্তারিত জানতে চান, তাহলে শেষ পর্যন্ত এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। নিচে ইসলাম ধর্ম অনুসারে যিশু খ্রিস্টের জীবনী এবং খ্রিস্টান ধর্ম অনুসারে যিশু খ্রিস্টের জীবনী সবিস্তারে তুলে ধরা হবে।

পেজ সূচিপত্র: যিশু খ্রিস্টের জীবনী - যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ

যিশু কে - যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ: ভূমিকা

যিশু খ্রিস্ট বা ঈসা(আ:) সম্পর্কে এই আর্টিকেলটিতে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে। যিশু কে, যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় সেই বিষয়গুলো সম্পর্কে এই আর্টিকেলটিতে তথ্যবহুল আলোচনা করা হবে। তাই যীশু খ্রীষ্টের জীবনী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য শেষ পর্যন্ত পুরো আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন। যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ, যিশু খ্রিস্টের ছবি এবং যিশু খ্রিস্টের বাণী নিচে উল্লেখ করা হবে।

যিশু কে - যিশু খ্রিস্টের জীবনী

যিশু কে? এবং যিশু খ্রিস্টের জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করার পূর্বে বলে রাখা ভালো যে, বক্ষমান আর্টিকেলটিতে  ইসলামের দৃষ্টিতে যীশু খ্রীষ্টের জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করা হবে। যেহেতু যীশু খ্রীষ্ট অর্থাৎ হযরত ঈসা আলাইহিস সালাম, ইসলাম ধর্মের একজন সম্মানিত নবী, তাই খ্রিস্টানদের বিকৃত বাইবেল থেকে তার জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করা সমীচীন নয়। বাইবেলের যেসকল চ্যাপ্টার কুরআনের সাথে সামঞ্জস্যশীল শুধুমাত্র সেই বক্তব্য গুলো গ্রহন করা হবে। 
যাইহোক চলুন পবিত্র কুরআনের দৃষ্টিতে যিশু খ্রিস্টের জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করা যাক। সেই সাথে এই আর্টিকেলটিতে আরো তুলে ধরা হবে যে, যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে হয়েছিল বা যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায়? এছাড়াও আলোচনা করা হবে যীশু খ্রীষ্টের মৃত্যু হয়েছিল কিনা? যদি হয়ে থাকে তাহলে যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ কত ছিল? আর মৃত্যু না হয়ে থাকলে তার কারণ কি?

যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ

যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। খ্রিষ্টানরা দাবি করে থাকে যে, যীশু ক্রুশ বিদ্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। বাইবেলের বর্ণনা অনুযায়ী তৎকালীন সময়ের রাজা পিলত যীশু খ্রীষ্ট কে শূলে চড়িয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে রোমানগণ শূলে চড়িয়ে যীশু খ্রীষ্ট কে হত্যা করে। যীশু খ্রীষ্ট কে হত্যা করার পূর্বে তার শরীরের সকল কাপড়-চোপড় খুলে নেয়া হয় এবং তাকে বেত্রাঘাত করা হয়। অবশেষে দুইজন অপরাধীর মাঝখানে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়। খ্রিস্টানদের দাবি অনুসারে যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ ৩০ বা ৩৩ খ্রীষ্টাব্দ। 

যোহনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ক্রুশবিদ্ধ করার পরে তার মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য একজন সৈন্য বর্শা দিয়ে তার দেহে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে। খ্রিষ্টানদের ধর্ম বিশ্বাস অনুসারে যীশু খ্রীষ্ট তিনদিন পরে  পুনরায় জীবিত হয়ে ওঠেন। আর সেই দিনটিকে খ্রিস্টানরা ইস্টার সানডে হিসেবে পালন করে। তারা মনে করে যে, পাপী লোকদের পাপমোচনের জন্যই নিষ্পাপ যীশু খ্রীষ্ট ক্রুশবিদ্ধ হয়েছিলেন। তার কষ্টদায়ক মৃত্যুর মাধ্যমে সকল খ্রিষ্টান পাপ থেকে মুক্ত হয়েছে। 

উপরোল্লিখিত তথ্যগুলো খ্রিস্টানদের বিকৃত বাইবেল থেকে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে যিশু খ্রিস্ট বা ঈসা (আ:) মৃত্যুবরণ করেন নি। আল্লাহতালা তাকে সশরীরে চতুর্থ আসমানে উঠিয়ে নেন এবং তিনি সেখানেই অবস্থান করছেন। এ ব্যাপারে পবিত্র কোরআনে উল্লেখ করা হয়, 

আর তাদের একথা বলার কারণে যে, আমরা মরিয়ম পুত্র ঈসা মসীহকে হত্যা করেছি যিনি ছিলেন আল্লাহর রসূল। অথচ তারা না তাঁকে হত্যা করেছে, আর না শুলীতে চড়িয়েছে, বরং তারা এরূপ ধাঁধায় পতিত হয়েছিল। বস্তুত: তারা এ ব্যাপারে নানা রকম কথা বলে, তারা এক্ষেত্রে সন্দেহের মাঝে পড়ে আছে, শুধুমাত্র অনুমান করা ছাড়া তারা এ বিষয়ে কোন খবরই রাখে না। আর নিশ্চয়ই তাঁকে তারা হত্যা করেনি। (সূরা নিসা ১৫৭)

যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ সম্পর্কিত মধ্যেই উপরে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। নিচে যিশু কে, যিশু খ্রিস্টের জীবনী, যিশু খ্রিস্টের ছবি, এবং যিশু খ্রিস্টের বাণী সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। সেই সাথে যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় তা উল্লেখ করা হবে। 

যিশু খ্রিস্টের ছবি

যিশু খ্রিস্টের ছবি বলতে আমরা যে সকল ছবি দেখতে পাই মূলত এর সবগুলোই আর্ট করা। যিশু খ্রিস্টের  প্রকৃত কোন ছবি নেই। সুতরাং যিশু খ্রিস্টের ছবি হিসেবে যেই ছবিগুলো আমাদের সামনে রয়েছে এই ছবিগুলো কখনোই যিশুখ্রিস্টের ছবি নয়। তাই যিশুখ্রিস্টের ছবি দেখতে না চাওয়াই উত্তম। 

তবে খ্রিস্টানরা যিশুখ্রিস্টের যেসকল ছবি ব্যবহার করে থাকে তারা কয়েকটি নিচে তুলে ধরা হলো। চলুন দেখে নেয়া যাক যিশু খ্রিস্টের ছবি। যিশু কে, যিশু খ্রিস্টের জীবনী এবং যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ সম্পর্ক পরে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। নিচে যিশু খ্রিস্টের বাণী, যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় হয়েছিল সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।





যিশু খ্রিস্টের বাণী

যিশু খ্রিস্টের বাণী হিসেবে পরিচিত অনেক বাণী রয়েছে। তবে সেগুলো প্রকৃতপক্ষেই যিশু খ্রিস্টের বাণী কি না সে ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সেগুলো যীশু খ্রীষ্টের বাণী নয়। যাই হোক নিচে প্রচলিত যিশু খ্রিস্টের বাণী সমূহ তুলে ধরা হয়েছে। যিশু খ্রিস্টের বাণী সমূহ নিম্নরূপ।

  • তোমরা তোমাদের শত্রুদেরকে ভালবাসবে। যে সকল লোক তোমাদেরকে হিংসা করে তাদের মঙ্গলে কাজ করবে। আর যারা তোমাদেরকে অভিশাপ দেয় তাদেরকে করবে আশীর্বাদ। যে সকল মানুষ তোমাদেরকে নিন্দা করে, তাদেরকে তাদের জন্য তোমরা প্রার্থনা করবে। 
  • যদি কোন ব্যক্তি তোমার এক গালে চড় মারে তাহলে তুমি তার দিকে তোমার অপর গালটিও বাড়িয়ে দিবে চড় খাওয়ার জন্য।
  • যে তোমার কাছে চায়, তাকে তা দাও। যে তোমার দ্রব্য তোমার কাছ থেকে তুলে নেয়, তুমি তাকে তা দিয়ে দাও চেওনা। 
  • তোমরা দান করবে। দোষী ব্যক্তির দোষ ঢেকে রাখবে। তুমি যাকে যতটুকু দান করবে তার চেয়ে বেশি তোমাকে দেওয়া হবে। 
  • শিষ্য কখনোই গুরুর চেয়ে বড় হতে পারবে না। তবে যে শীর্ষ পরিপক্ক হবে সে তার গুরুর তুলল হতে পারবে। 

যিশু কে, যিশু খ্রিস্টের জীবনী এবং যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ সম্পর্ক পরে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। সেইসাথে যিশু খ্রিস্টের ছবি তুলে ধরা হয়েছে। নিচে যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় সেই বিষয় সম্পর্কে আলোকপাত করা হবে।

যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে - যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায়

যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় হয়েছিল তা নিচে তুলে ধরা হবে।যিশুখ্রিস্টের জন্ম তারিখ এবং জন্ম সাল সর্ম্পকে নিরপেক্ষ কোন তথ্য পাওয়া যায় না। ধারণা করা হয় খ্রিস্টপূর্ব চার কিংবা ৬ সনে ২৫ শে ডিসেম্বর তিনি জন্মগ্রহণ করেন। একথা স্বতঃসিদ্ধ যে কোন পুরুষের সংস্পর্শ ছাড়াই সম্পূর্ণ অলৌকিকভাবে তিনি পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করেন।
ম্যাথিউ এবং লূক থেকে জানা যায়, যীশু খ্রীষ্ট তৎকালীন সময়ের যিহূদিয়া প্রদেশের বাইতুল লাহাম নামক স্থানে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে এই জায়গাটি জেরুজালেমের বেথেলহেমে অবস্থিত। যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় আশা করি তারা জানতে পেরেছেন। যিশু যিশু খ্রিস্টের জীবনী, খ্রিস্টের জন্ম কত সালে এবং যিশু খ্রিস্টের ছবি গুলো উপরে তুলে ধরা হয়েছে। 

যিশু খ্রিস্টের জীবনী - যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ: শেষ কথা

যিশু কে, যিশু খ্রিস্টের জীবনী এবং যিশু খ্রিস্টের মৃত্যুর তারিখ সম্পর্কে এই আর্টিকেলটিতে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরা হয়েছে। যিশু খ্রিস্টের বাণী, যিশু খ্রিস্টের জন্মস্থান কোথায় এবং যিশু খ্রিস্টের জন্ম কত সালে সেই বিষয়গুলো ইতোমধ্যেই আলোচনা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি যিশু খ্রিস্টের ছবি তুলে ধরা হয়েছে। ১৬৪১৩

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?