অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/10/30000-income.html

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার ২০টি সেরা ও কার্যকরী উপায়

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে এই আর্টিকেলটিতে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে। আপনি যদি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে জানতে পারবেন মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

পেজ সূচিপত্র: মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: ২০টি কার্যকর পদ্ধতি

কিভাবে অনায়াসে আপনি প্রতিমাসে অন্তত ৩০ হাজার টাকা আয় করতে পারেন সেই সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা উপার্জন করার যে সকল পদ্ধতি নিচে তুলে ধরা হয়েছে, তার যেকোনো একটি পদ্ধতি যদি আপনি সঠিকভাবে অনুসরণ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকার বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: ১-৫

ব্লগিং। মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো ব্লগিং করা। ভালোভাবে ব্লগিং শিখতে চাইলে আপনাকে পেইড কোর্স করতে হবে। বাংলাদেশের সেরা ফ্রিল্যান্সিং ট্রেনিং সেন্টার অর্ডিনারি আইটি থেকে স্বল্পমূল্যে ব্লগিং কোর্স করতে পারেন। অর্ডিনারি আইটি থেকে থেকে ব্লগিং কোর্স শেষ করার পরে নিশ্চিতভাবে আপনি ব্লগিং করে ইনকাম করতে পারবেন। জনপ্রিয় আইটি সেন্টার অর্ডিনারি আইটির সাথে যোগাযোগ করতে এখানে ক্লিক করুন

ডাটা এন্ট্রি। ডাটা এন্ট্রির কাজ করে ৩০ হাজার টাকা আয় করা খুবই সহজ বিষয়। ডাটা এন্ট্রি করে ইনকাম করার জন্য আপনাকে অনলাইন ভিত্তিক ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে কে কাজ সংগ্রহ করতে হবে। 

পার্ট টাইম ব্যবসা। পার্ট টাইম ব্যবসা করব কিন্তু আপনি মাসে ৩০০০০ টাকা ইনকাম করতে পারেন তাই আপনি যদি পার্টটাইম একটি ব্যবসা দাঁড় করাতে পারেন তাহলে খুব সহজেই মাসে ৩০০০০ টাকা ইনকাম করা সম্ভব।
ইন্টেরিয়র ডিজাইন। বর্তমান সময়ের জন্য স্মার্ট একটি পেশা হলো ইন্টেরিয়র ডিজাইনিং। অফিস বা বাসাবাড়ি কিভাবে সাজালে সুন্দর দেখা যায় সে সম্পর্কে আপনার ধারণা থেকে থাকে তাহলে আপনি ইন্টেরিয়র ডিজাইনের কাজ করে মাসে কমপক্ষে ৩০০০০ টাকা আয় করতে পারবেন। 

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট। অনলাইন ভিত্তিক সে ডান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্টের প্রচুর কাজ রয়েছে। আপনি সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্টের কাজ যদি জেনে থাকেন তাহলে সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্টের কাজ করে খুব সহজেই ৩০০০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: ৬-১০

ফাস্ট ফুডের দোকান। আপনি যদি ফাস্টফুডের দোকান দিতে পারেনা তাহলে সেই এ যখন খেতেও কিন্তু মাসে ৩০ হাজার টাকা খুব সহজে ইনকাম করতে পারবেন। ফাস্টফুডের দোকান দেয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই জনসমাগম হয় এমন স্থান বেছে নিতে হবে।

কন্টেন্ট রাইটিং। কনটেন্ট রাইটিং করেন প্রতি মাসে ৩০০০০ টাকা ইনকাম করার দুর্দান্ত সুযোগ রয়েছে। তাই আপনি যদি একজন কনটেন্ট রাইটার হয়ে থাকেন তাহলে খুব সহজেই শুধুমাত্র কনটেন্ট রাইটিং করে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

কোচিং সেন্টার। কোচিং সেন্টারের মাধ্যমে মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করা খুবই সহজ একটি বিষয় আপনি যদি কোচিং সেন্টার পরিচালনা করতে পারে না ৩০ হাজার টাকার চেয়ে বেশি টাকা প্রতি মাসে ইনকাম করতে পারবেন। 

ট্রান্সলেশন সার্ভিস। ট্রানসলেশন করার যথেষ্ট যোগ্যতা যদি আপনার থাকে তাহলে ট্রান্সলেশন সার্ভিস দিয়ে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকার বেশি ইনকাম করতে পারবেন। ট্রান্সলেশন এর কাজ হওয়ার জন্য আপনাকে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটগুলোতে একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে। 

হাঁসের খামার। বর্তমানে হাঁসের খামার করে অনেকেই স্বাবলম্বী হচ্ছেন। তাই আপনি যদি হাঁসের খামার দিতে পারেন তাহলে হাঁসের খাবারের মাধ্যমে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। প্রথমত আপনাকে হাঁসের বাচ্চাকে নিয়ে এরপরে সবগুলো বড় করে বিক্রি করতে হবে।

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: ১১-১৫

ব্রয়লার মুরগি। ব্রয়লার মুরগির চাহিদা সারা বছর সমান থাকে তাই আপনি যদি ব্রয়লার মুরগি উৎপাদন করতে পারেন তাহলে ব্রয়লার মুরগির উৎপাদন করে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন। 

মাছ চাষ। আপনার যদি নিজস্ব কুকুর থাকে তাহলে সেই পুকুরে মাছ চাষ করে আপনি প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারেন যদি পুরানা থাকে তাহলে পুকুর লিজ নিয়েও মাছ চাষ করা যায়।এবং পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে অপনি ৩০ হাজার বা তার চেয়ে বেশি ইনকাম করতে পারবেন। 
ডিম উৎপাদন। হাঁস মুরগির ডিম উৎপাদন করে প্রতিমাসে ভালো টাকা ইনকাম করা সম্ভব আপনি যদি মুরগি কিংবা হাস বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করেন তাহলে সেখান থেকে মুরগি এবং হাঁসের ডিম বিক্রি করে প্রতি মাসে 30 হাজার টাকার বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

ছাগল পালন। প্রতি মাসে  ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করার অন্যতম একটি উপায় হলো ছাগল পালন করা। আপনি যদি ছাগল বাণিজ্যিক ভাবে পালন করতে পারেন তাহলে সেখান থেকে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

রিসেলিং। রিসেলিং এ ব্যবসা করে আপনি প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন রিসেলিং ব্যবসা করার জন্য আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির সাথে যোগাযোগ রাখতে হবে এবং তাদের পণ্যগুলো হরি ছেলে করতে হবে। 

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: ১৬-২০

পাখি পালন। অনেকেই শখের বশে পাখি পালন করে। কিন্তু আপনি চাইলে বাণিজ্যিকভাবে পাখি পালন না করে প্রতিমাসে বহুৎ টাকা ইনকাম করতে পারেন। কেননা বাজারে পাখির চাহিদা রয়েছে। বিশেষ করে সৌখিন পাখি অনেক মানুষই বাসায় পালন করে থাকে।

কবুতর পালন। আপনি যদি বাণিজ্যিকভাবে কবুতর পালন করতে পারেন তাহলে কবুতর পালন করে মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করা অসম্ভব নয়। কবুতর পালন করতে হলে আপনাকে ভালো মানের কবুতর ক্রয় করতে হবে এবং সুরক্ষিত স্থানে রেখে পালন করতে হবে। 

রেস্টুরেন্টের ব্যবসা। রেস্টুরেন্টের বাবুর্চি খুবই লাভজনক একটি ব্যবসা। রেস্টুরেন্টের ব্যবসায় সাধারণত লোকসান হয় না তাই আপনি চাইলে রেস্টুরেন্টের ব্যবসা করতে পারেন যদি ভালো কোন জায়গায় রেস্টুরেন্ট করতে পারেন তাহলে সেখান থেকে মাসে ৩০ হাজার টাকার বেশি উপার্জন করতে পারবেন। 
কাপড়ের ব্যবসা। কাপড়ের ব্যবসা অধিক লাভজনক ব্যবসা তাই আপনি যদি কাপড়ের ব্যবসা করতে পারেন তাহলে প্রতি মাসে  টাকা ৩০ হাজার ইনকাম করা অপরাধ কাছে তেমন কোনো বিষয় নয়। তাই আপনি চাইলে কাপড়ের ব্যবসা করে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারেন।  

কসমেটিকস এর ব্যবসা। কসমেটিকস এর ব্যবসা করে অনায়াসেই আপনি প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন কসমেটিকস এর ব্যবসা খুবই লাভজনক ব্যবসা। চাইলে আপনি অনলাইনের মাধ্যমেও কসমেটিকস এর ব্যবহার করতে পারেন। 

মাসে ৩০ হাজার টাকা আয় করার উপায়: শেষ কথা

প্রতি মাসে কিভাবে ৩০ হাজার টাকা আয় করা যায় সেই সম্পর্কে উপরে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। উপরে বর্ণিত টাকা আয় করার উপায় গুলো আশাকরি আপনার ভালো লেগেছে। প্রতি মাসে 30 হাজার টাকা আয় করার যে সকল উপায়ে উপরে তুলে ধরা হয়েছে তার মধ্য থেকে যেটি আপনার কাছে ভালো লাগবে সেই উপায় অবলম্বন করে খুব সহজেই আপনি প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ১৬৪১৩

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?