অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/07/blog-post_08.html

ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ - ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ

আজ ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সাল এ কেমন হয়েছে তা জানব। এটি আমাদের মাঝে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ নামেই বেশি পরিচিত কেননা আমরা সবাই প্রযুক্তি বিষয়ক কথা বার্তায় ইংরেজি শব্দ ব্যাবহার করে থাকি।ওয়ালটন বাটন মোবাইল দাম ২০২২ সম্পর্কে জানতে ও ওয়ালটন এন্ড্রয়েড মোবাইল দাম ২০২২ সম্পর্কে জানতে পোস্ট টি পড়ুন।

বাটন ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সালে প্রায় আগের মতই আছে। ওয়ালটন এন্ড্রয়েড মোবাইল দাম ২০২২ সালে কিছু পরিবর্তন এসেছে কারণ ওয়ালটন টাচ ফোন এর নতুন নতুন মডেল বের করতেছে। ওয়ালটন টাচ মোবাইল ধীরে ধীরে জনপ্রিয় হয়ে পরেছে। এর কারণ হচ্ছে ওয়ালটন মোবাইল কম দামে বেশ ভালো মানের ওয়ালটন টাচ মোবাইল দেয়।  ওয়ালটন মোবাইল কিস্তি তেও কেনা যায়।

সুচীপত্র( এই পোস্ট এ যা যা থাকছে)ঃ-

ওয়ালটন বাটন মোবাইল দাম ২০২২ঃ-

ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ এর পরিসংখ্যান অনুযায়ী বাটন ফোন এর দাম তেমন কোনো পরিবর্তন হয় নাই।মোবাইল ফোন কোম্পানি গুলো মূলত প্রডাক্ট এর মান এর উপর নজর দেয় কিন্তু আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি যে ওয়ালটন প্রথমে খেয়াল রাখে যে দাম কম রাখতে হবে যাতে দেশের সাধারণ মানুষ মোবাইল গুলি কিনতে পারে। তো যারা বাটন ফোন কিনতে আসে তাদের মধ্যে অধিকাংশের ই বাজেট কম থাকে। কম দামে থাকলে তারা কিনতে পারবে। তাই এসব বিবেচনা করে ওয়ালটন বাটন মোবাইল এর দাম ২০২২ সালেও তেমন পরিবর্তন আসে নাই।এগুলো সম্পর্কে ভালো ভাবে জানতে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ সম্পর্কে খুজা খুজি করে জেনে রাখতে হয়।
ওয়ালটন বাটন মোবাইল এর দাম ৭০০ টাকার কাছাকাছি থেকে শুরু হয়।  এটা দাম বিভিন্ন ঈদ/নববর্ষ/দোকান/চাহিদা  অনুযায়ী কম বেশি হয়। walton olvio ML19 মডেলের মোবাইলটির দাম ৭৫০ টাকা , walton olvio L53 এর দাম ৮০০টাকা। এই দামের মধ্যেই অনেক গুলো মডেল আছে। আবার walton olvio s33 মডেলের দাম ১৪৫০ টাকা । অন্যদিকে walton olvios32 মডেলের দাম ১৯৯০ টাকা । ওয়ালটন প্লাজা বা শো রুমে গেলে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ সম্পর্কে ভালো ধারণ পাওয়া যাবে।এছাড়া আপনি এখানে চাপ দিয়ে ওয়ালটনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ গিয়ে ফিচার্ড ফোন গুলো দেখতে পারেন।

ওয়ালটন এন্ড্রয়েড মোবাইল দাম ২০২২ঃ-

ওয়ালটন মোবাইল কম দামে পেতে চাইলে ওয়ালটন টাচ ফোন এর দাম শুরু হয় ৪৯৯০ টাকা থেকে । মডেলটির নাম walton primo e12 ।এবং এর কাছাকাছি দামের ওয়ালটন টাচ ফোন এর মডেল হলো walton primo f10 এবং এর দাম ৫৭৯৯টাকা। এটি ভিন্ন অফার এবং দিবস ভেদে কিছুটা পরিবর্তন হয়। 

তবে এই কম দামের মোবাইল গুলা ভালো না । আর একটু বেশি টাকা দিলেই ৮৪৯৯ টাকাতে walton primo H9 Pro ওয়ালটন টাচ ফোন, এর ৩জিবি র‍্যাম এবং ৩২জিবি রম। এবং ৯৪৯৯টাকাতে walton RX7 mini মডেলের মোবাইল পাওয়া যায়।যার ৪জিবি র‍্যাম এবং ৩২জিবি রম পাওয়া যায়।এই মডেলের ফোন গুলো বেশ ভালো রিভিঊ নিয়ে উপরের দিকে রয়েছে। পরবর্তি সময়তে আরো কম দামে ভালো ফোন আসতে পারে অথবা এই মোবাইল গুলোর দামও বেড়ে যেতে পারে । এজন্য আপনি যদি জিতে যেতে চান তবে আপনাকে ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ ও ২০২১ এর উপরে খেয়াল রাখতে হবে। আপনি ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ লিখে গুগোলে সার্চ করলেই এ ব্যাপারে আপডেট জানতে পাবেন।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল ধীর গতির হয়ে গেলে ফাস্ট করার ৭ উপায়

ওয়ালটন এন্ড্রয়েড মোবাইল দাম ২০২২ সালে তেমন পরিবর্তন হয় নাই আসলে। এটির গত বছরের দামও এমনই ছিলো। ওয়ালটন এর ওয়েব সাইট অনুযায়ী সর্বোচ্চ দাম হচ্ছে ২৬,৯৯৯ টাকা , মডেল নাম্বার walton primo ZX4 । এছাড়া আপনি এখানে চাপ দিয়ে ওয়ালটনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ গিয়ে ফিচার্ড ফোন গুলো দেখতে পারেন।

ওয়ালটন টাচ মোবাইল এর জনপ্রিয় মডেলঃ- 

আমরা যদি ওয়ালটন দাম ২০২২ সালে যেই মডেল গুলো বের হয়েছে সেদিকে খেয়াল করি তবে অনেক গুলো মডেল পাই যেগুলার দাম ৮ থেকে ১০ হাজার টাকার মধ্যে। এবং ৩ অথবা ৪ জিবি র‍্যাম রয়েছে। এছাড়া রয়েছে উন্নত মানের ক্যামেরা এবং ব্যাটারি। এগুলো মানুষের মন জয় করে নিয়েছে। বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট এ ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ এর তথ্য অনুযায়ী এবং জনপ্রিয় রিভিউ সংগ্রহকারি সেরা ৩টি বিক্রিত মোবাইল এর কনফিগারেশন নিম্নরুপঃ-

১ঃ  walton primo R9 - ১০,৪৯৯ টাকা - ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম

২ঃ walton Primo RX7 mini - ১২,৯৯৯ টাকা - ৮ জিবি র‍্যাম+৬৪জিবি রম।

৩ঃ walton H9 pro - ৯,৭৯৯ টাকা - ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম। 

আসলে সব মোবাইল কোম্পানি গুলো একের পর এক মডেল বের করতে থাকে। কোন মডেল কিনলে লাভ হবে তা জানতে গেলে আমাদের কে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ জানতে হবে।

ওয়ালটন মোবাইল কিস্তিঃ-

ওয়ালটনের সার্ভিস গুলো আস্তে আস্তে কাস্টমার কে খুশি করার জন্য উন্নত করা হচ্ছে।খুশির খবর হচ্ছে ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সালে এমন ভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে যেনো ক্রেতার ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে। এখন কিস্তি দিয়েও মোবাইল কেনা যায়। এবং ৬ মাসের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে পারলে কোনো সুদ দিতে হয় না। তবে  ওয়ালটন বাটন মোবাইল কিস্তিতে কেনা যায় না।  এবং ওয়ালটন টাচ ফোন কিনতে কিছু শর্ত রয়েছে।

১ম শর্ত হচ্ছে প্রডাক্ট এর দাম ৫হাজার টাকার উপরে হতে হবে।প্রায় সব ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ এ ৫০০০ টাকার  উপরে। সুতরাং এখানে আপনি সব ওয়ালটন টাচ মোবাইল ই "ওয়ালটন মোবাইল কিস্তি" এর আওতায় কিনতে পারবেন।" কিনতে পারবেন।

৫০০০টাকা থেকে ১০,০০০টাকা এর মধ্যে ওয়ালটন মোবাইল কিস্তি তে কেনার জন্য আপনি ৬ মাস সময় পাবেন। প্রথমে মোবাইলের মোট দামের ৪০% পরিশোধ করতে হবে। এরপর বাকি ৬ মাসে আপনি বিনা সুদে টাকা পরিশোধ করতে পারবেন। কিন্তু মেয়াদ বাড়ানোর সুযোগ নেই। দাম সম্পর্কে  ভালো ভাবে জানতে আমরা ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ এর উপরে সবসময় আপডেট জানার চেষ্টা করব।

আবার ১০,০০০ টাকার উপরের দামের ফোন এ প্রথম ৬ মাসে পরিশোধ করার চেষ্টা করতে হবে। যদি না পারেন তবে আরো ৬ মাস মেয়াদ বাড়াতে পারবেন। তবে প্রথম ৬ মাসে শোধ করতে পারলে কোনো সুদ নেই। কিন্তু পরবর্তি ৬ মাসে ১৬% সুদ দিতে হবে। এটা শুধু ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়, বরং যে কোনো প্রডাক্ট ই আপনি এই নিয়মে কিনতে পারবেন। আর আপনি যদি ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সালে কেমন হয়েছে তা জানেন, তবে এই হিসাব গুলো আগে থেকেই জানতে পারবেন

ওয়ালটন মোবাইল কম দামেঃ- 

বাংলাদেশে এখনো কম দামে মোবাইল কেনায় আগ্রহী ক্রেতা পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে ওয়ালটন মোবাইল কম দামে পাওয়া যায়। আপনি যদি বহুল পরিচিত কোনো কোম্পানির মোবাইল কেনেন এবং ওয়ালটন এর সাথে তুলনা করেন অর্থাৎ একই র‍্যাম/মেমরি এর ওয়ালটন মোবাইল কেনেন তবে। দেখতে পাবেন যে ওয়ালটন মোবাইল প্রায় ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা কম দামে পেয়েছেন।  এক্ষেত্রে অন্য কোম্পানির মোবাইল এর সাথে ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ এর সাথে তুলনা করলেই বুঝতে পারবেন। আপনি এজন্য ওয়ালটন এর শো-রুম গুলোতে ঘুরে আসতে পারেন অথবা ভিজিট করতে পারেন ওয়ালটন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট  এখানে ক্লিক করে

মোবাইল এর দাম জানার সহজ বুদ্ধিঃ-

প্রযুক্তির কল্যানে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ জানা এখন আরো সহজ হয়ে গেছে।আপনি কাস্টমার কেয়ার নাম্বার +৮৮০৯৬১২৩১৬২৬৭ তে বা ১৬২৬৭ তে কল দিয়ে কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সাথে কথা বলে জেনে নিতে পারেন মোবাইলের দাম। পাশা পাশি যে কোনো তথ্য জানতে পারেন । তাহলে আপনাকে আর রোদে পুরে বৃষ্টিতে ভিজে শো-রুমে গিয়ে দাম শোনা লাগবে না।আপনি সেখানে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ না বলে যদি বাংলাতে জানতে চান অর্থাৎ ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সালে কোন মডেলের জন্য কেমন হয়েছে তা জানতে চান তবে আপনি সহজে তথ্যগুলি পাবেন।

আরো পড়ুনঃ-ওয়ালটন ফ্রিজ এর দাম কেমন

নিজে থেকে সব সময় ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সাল ও ২০২১ সালের দাম তুলনা করলে বুঝা যায় যে ওয়ালটন মোবাইল মার্কেট প্রাইস ইন বাংলাদেশ ২০২৩ সালে বাড়বে না। সম্ভাবনা অনেক বেশি। তবে কিছু নতুন মডেল আসতে পারে যেগুলোর দাম চাহিদা অনুযায়ী ঠিক করবে কোম্পানি।আর এই ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ সাল হোক বা ২০২১ কিনবা ২০১৯ হোক, এগুলা জেনে মোবাইল কিনে না ঠকতে চাইলে ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকা জরুরী। 

কয়েকটি ওয়ালটন মোবাইল দাম ২০২২ঃ

walton primo s8 mini - 4GB RAM - 13,999tk(6GB RAM 15,699tk) - 64GB ROM
walton primo  h10 - 4GB RAM - 12,999tk - 64GB ROM
walton primo s8 6GB RAM 20,999tk - 64GB ROM
Walton promo RX9 4GB RAM - 16,999tk - 64GB ROM
Walton primo RX7 mini - 3GB RAM - 9499tk - 32GB ROM
walton primo R8 - 4GB RAM - 11,499tk - 64GB ROM
walton primo GM8 - 2GB RAM - 7499tk 16GB ROM
আমাদের আজকের মত ওয়ালটন মোবাইল প্রাইস ইন বাংলাদেশ সম্পর্কে আলোচনা শেষ।আরো অনেক কিছু বিস্তারিত জানতে হলে উপরের লিংক থেকে ওয়ালটনের অফিসিয়াল পেইজ থেকে ঘুরে আসতে পারেন।  
 

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?