অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/04/seheri-sohobas.html

সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা জেনে নিন

অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা। আজ আমরা সেই সম্পর্কেই আপনাদের তথ্য জানাব। আশাকরি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি আপনারা ধৈর্য সহকারে পড়বেন।

চলুন দেখে নেই সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা সেই সম্পর্কে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা কি বলেছেন।

পেজ সূচিপত্রঃ সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

সহবাস কি?

সহবাস হল নারী-পুরুষের স্বাভাবিক দৈহিক মিলন।

সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা তার বান্দাদের জন্য রমজান মাসের ইফতারের পর থেকে সুবহে সাদিকের আগ পর্যন্ত সহবাস জায়েজ করেছেন। কিন্তু আপনি যদি সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে সুবহে সাদিকের পূর্বে তা শেষ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ রোজা থাকা অবস্থায় সহবাস

এবং গোসলের ক্ষেত্রে আপনি যদি পারেন সুবহে সাদিকের পূর্বে গোসল সম্পূর্ন করবেন আর নাহলে সকালেও গোসল করতে পারেন এতে রোজার কোন ক্ষতি হবেনা। কিন্তু এই কারণে ফজরের নামাজ কাযা করা যাবেনা।

রোজা থাকা অবস্থায় সহবাস করা যাবে কিনা

রোজা থাকা অবস্থায় সহবাস করা যাবেনা। এতে রোজা ভেঙ্গে যাবে এবং এটি অনেক বড় গুনাহ। রোজা থেকে দিনের বেলায় স্ত্রীকে চুম্বন করা, আলিঙ্গন করা যাবে যদি নিজেকে নিয়ন্ত্রন করতে পারেন তবেই এটি করা জায়েজ নতুবা নয়। কিন্তু রমজানের রাতে স্বামী-স্ত্রী সহবাস করা হালাল করেছেন, কিন্তু সেটা ইফতারের পর থেকে সুবহে সাদিকের আগ পর্যন্ত।

সহবাস করার ইসলামিক নিয়ম কি? | সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

সহবাস বা যৌন মিলন এর মাধ্যমে মহান আল্লাহ্‌ পাক বংশবৃদ্ধি করার নিয়ামত দান করেছেন। সহবাসের আগে কিছু নিয়ম ও দোয়া রয়েছে যা সুস্থ যৌন মিলন ও বংশবৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। এছাড়াও ইসলামিক নিয়ম অনুযায়ী স্বামী-স্ত্রী সহবাসের আগে নিম্নক্তো দোয়াটি পড়লে ব্যভিচার থেকে দূরে ও স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই সওয়াব হবে এবং নেক আশা পূরণ হবে। এই দোয়াটি পাঠ করে স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে আলিঙ্গন করবে, চুম্বন করবে এভাবে স্বামী স্ত্রীকে যৌন সঙ্গমের জন্য উত্তেজিত করবে। যখন দুইজনেরই সহবাসের আকাঙ্খা হবে তখনই বিসমিল্লাহ বলে শুরু করবেন।

স্বামী-স্ত্রী সহবাসের আগে এই দোয়াটি পড়তে হয়-

আরবিঃ بِسْمِ اللّهِ اللّهُمَّ جَنِّبْنَا الشَّيْطَانَ وَ جَنِّبِ الشَّيْطَانَ مَا رَزَقْتَنَا

উচ্চারণঃ ‘বিসমিল্লাহি আল্লাহুম্মা জান্নিবনাশ শায়ত্বানা ওয়া জান্নিবিশ শায়ত্বানা মা রাযাক্বতানা।’

অর্থঃ ‘হে আল্লাহ! তোমার নামে (যৌন মিলন বা সহবাস) আরম্ভ করছি, তুমি আমাদের (স্বামী-স্ত্রী উভয়ের) কাছ থেকে শয়তানকে দূরে রাখ। আমাদের এ মিলনের ফলে যে সন্তান দান করবেন, সে সন্তানকেও শয়তান (যাবতীয় আক্রমণ) থেকে দূরে রাখ।’

সহবাসের শেষে কিছু করণীয় | সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

স্বামী-স্ত্রী সহবাস শেষ করে অতি দ্রুত গোসল করে নিবেন। যদি গোসল না করেন তাহলে স্বামী-স্ত্রী সহবাসের পরে অবশ্যই দুইজনের যৌনাঙ্গ হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। ঠান্ডা পানি দিয়ে ধোয়া উচিত না। তারপর অযু করে দুইজনে মধু খাবেন, তারপর ঘুমাবেন। স্বামী যদি মিলনের পর বেশী ঘুমায় তাহলে স্ত্রী স্বামীকে ফজরের ওয়াক্তে ডেকে দেওয়া দায়িত্ব কিন্তু স্বামী যদি অবহেলা করে ঘুমিয়ে থাকে নামাজ না আদায় করে তাহলে স্বামীর গুনাহ হবে।

আরও পড়ুনঃ রোজা থাকা অবস্থায় মাসিক হলে করণীয় কি জেনে নিন

আর যদি কেউ প্রথম বার সহবাস বা মিলন করে দ্বিতীয়বার সহবাস করতে চাই তাহলে তাকে ওযু করে নিতে হবে, কারণ ওযু করা মুস্তাহাব। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) বলেছেন-

"তোমাদের মধ্যে কেউ যদি সহবাস করার পর দ্বিতীয়বার সহবাস করতে চায় তাহলে সে যেন ওযু করে নেয়, কারণ এটা দ্বিতীয় সহবাসকে স্বাদময় করবে"

সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতা | সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

স্বামী-স্ত্রী একে অপরের সাথে সহবাস করা একটি সওয়াবের কাজ এতে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা খুশী হন। কিন্তু সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতা আছে। যা আমাদের মেনে চলতে হবে। চলুন দেখে নেই সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতাগুলো কি?

১। মেয়েদের মাসিক বা পিরিয়ড কালীন সহবাস করা হারাম। মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা বলেছেন-

"তোমরা মাসিক বা পিরিয়ড চলা কালিন স্ত্রী সঙ্গম বর্জন কর, ততদিন তাদের কাছে সহবাসের জন্য যেও না যতদিন না তারা পবিত্র হয়। এবং তারা যখন পবিত্র হয় তখন তাদের কাছে ঠিক সেইভাবে গমন কর, আল্লাহ্‌ তায়াল যেভাবে তোমাদের নির্দেশ দিয়েছেন। নিশ্চয় আল্লাহ্‌ তায়ালা ক্ষমাপ্রার্থীদের এবং যারা পবিত্র থাকে তাদের পছন্দ করেন"

২। দিনের বেলায় রোজা রেখে সহবাস করা যাবে না। যদি ভুলবশত হয়ে যায় তাহলে তার কাফফারা দিতে হবে।

৩। অসুস্থ অবস্থায় সহবাস করা যাবেনা, এতে অসুখ বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা আছে।

৪। হজ্জ, ওমরার ইহরাম অবস্থায় সহবাস করা যাবেনা। এই সম্পর্কে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা বলেছেন-

"শাওয়াল, যিলক্কদ ও যিলহজ্জ মাসে হজ্জ হয়। যদি কেউ এই মাস গুলোতে হজ্জ করার পরিকল্পনা করে তাহলে সে যেন হজ্জ এর সময় সহবাস, পাপ কাজ ও ঝগড়া বিবাদ থেকে দূরে থাকে"

৫। এছাড়া, পায়ু পথ দিয়ে স্ত্রীর সাথে যৌন মিলন করা হারাম। মহানবী (সাঃ) এই সম্পর্কে বলেছেন-

"যে ব্যাক্তি তার স্ত্রীর সাথে পায়ুপথ দিয়ে যৌন সঙ্গম করে , আল্লাহ্‌ রাব্বুল আলামিন তার দিকে রহমতের দৃষ্টিতে তাকান না"

সহবাসের পর ফরজ গোসল করার নিয়ম | সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

আমরা জানি ফরজ গোসলের ৩ টি ফরজ নিয়ম রয়েছে। যার একটিও বাদ দিলে ফরজ গোসল আদায় করা হবে না। নিয়ম ৩টি হলঃ

১। গড়গড়াসহ কুলি করা,

২। নাকে পানি দেওয়া (নাকের নরম স্থান পর্যন্ত পানি পৌছানো),

৩। সমস্ত শরীরে পানি ঢালা।

ফরজ গোসলের নিয়ম

ফরজ গোসলের জন্য মনে মনে নিয়্যাত করে নিতে হবে (মুখে কোন আরবি শব্দ উচ্চারণ করে নিয়্যাত করা বিদ’আত)। দুই হাতের কব্জি পর্যন্ত ৩ বার ধৌত করতে হবে। তারপর ডানহাতে পানি নিয়ে বামহাত দিয়ে লজ্জাস্থান এবং তার আশপাশ ভালো করে ধৌত করতে হবে। শরীরের অন্য কোন জায়গায় নাপাকি লেগে থাকলে সেটাও ধুয়ে নিতে হবে।

এবার বামহাতকে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এবার সঠিকভাবে ওজু করে নিতে হবে, তবে দুই পা ধৌত করা যাবে না। ওজু শেষ হলে মাথায় তিনবার পানি ঢালতে হবে।

এবার সমস্ত শরীর ধোয়ার জন্য প্রথমে ডানে ৩ বার তারপরে বামে ৩ বার পানি ঢেলে ভালোভাবে শরীর ধুতে হবে, যেন শরীরের কোন অংশ বা লোম পর্যন্ত শুকনো না থাকে। (নাভি, বগল ও লজ্জাস্থান পানি দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে নিতে হবে)। সবার শেষে একটু সরে গিয়ে দুই পা ৩ বার ভালোভাবে ওজুর মতো করে ধুতে হবে।

বিঃ দ্রঃ পুরুষের দাড়ি ও মাথার চুল এবং মহিলাদের চুল ভালোভাবে ভিজাতে হবে। এবং এই নিয়মে গোসল করলে যদি ওজু না ভাঙ্গে তাহলে আর নতুন করে আর ওজু করার দরকার নাই।

শেষ কথাঃ সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা

বন্ধুরা, আজ আমরা সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের এই সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা পোস্টে সহবাসের সকল নিয়ম, দোয়াসহ সকল তথ্য বিস্তারিত বিশদভাবে আলোচনা করেছি।

আরও পড়ুনঃ রোজা থাকা অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে করণীয় কি জেনে নিন

আশাকরি, আমাদের আজকের এই সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা পোস্টটি দ্বারা আপনারা উপকৃত হবেন। ধন্যবাদ।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?