অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2021/12/jonmo-nibondhon.html

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম ২০২২ - জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি

আপনি কি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চাচ্ছেন? কিন্তু  জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২ কত তা জানেন না? অথবা বুঝতে পারছেন না জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf কোথায় পাবেন। আপনি যদি এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে খুঁজতে এই পোস্টে এসে থাকেন তাহলে আপনি সঠিক জায়াগায় এসেছেন। এই পোস্টে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ছাড়াও আরো জানতে পারবেন জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র কোথায় কিভাবে পাবেন। 

যাদের ভোটার আইডি কার্ড করার বয়স হয়নি তাঁদের জন্য জন্ম নিবন্ধন অনেক গুরত্বপূর্ন। জন্ম নিবন্ধন ছাড়া কোনো বাচ্চা স্কুলে ভর্তি  হতে পারেনা। এই জন্ম নিবন্ধনে অনেক রকম ভুল হয়ে থাকে সেটা পুরাতন হোক আর নতুন হোক। আর জন্ম নিবন্ধনে ভুল হয়ে গেলে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তাই জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করাটাও জরুরী হয়ে পড়ে। 

যারা কিভাবে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা নিয়ে চিন্তায় আছেন তাঁদের জন্য রয়েছে সুখবর। কারণ ২০২২ সালের নতুন নিয়ম এসেছে যার মাধ্যমে আপনি চাইলে আপনার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন  ঘরে বসে অনলাইনে করতে পারবেন। আগের মত আপনাকে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য ঝামেলা পোহাতে হবেনা। তো যারা জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করবেন ভাবছে তাঁরা এই পোস্টটির সাথে থাকুন।

বিস্তারিত শুরু করার আগে এক নজর বুলিয়ে নিন কি কি থাকছে তার উপরঃ

পেজ সূচিপত্রঃ জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ তথ্য - জন্ম নিবন্ধন সংশোধন 

শুরু করার আগে আপনার একটি জিনিস জেনে রাখা উচিৎ সেটা হলো এখন আর জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে আপনি আপনার জন্ম তারিখ পরিবর্তন করতে পারবেন না। যদি করাও যায় তবে সেটা অনেক দীর্ঘ একটি প্রক্রিয়া। আপনি যদি আপনার জন্ম তারিখ পরিবর্তন করতে চান তাহলে আপনাকে আপনার বর্তমান জন্ম নিবন্ধনটি ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে বাতিল করতে হবে। 

এরপর আপনাকে আপনার সঠিক জন্ম তারিখ দিয়ে আবার জন্ম নিবন্ধন এর জন্য আবেদন করতে হবে। তাহলে আপনি আপনার সঠিক জন্ম তারিখের জন্ম নিবন্ধনটি পাবেন। আবার জন্ম নিবন্ধন এ আরো অনেক রকম ভুল থাকতে পারে। জন্ম তারিখ সংশোধন করতে এখানে ক্লিক করুন। 

জন্ম নিবন্ধন কোথায় ব্যবহৃত হয়?

ভোটার আইডি কার্ডের পর দৈনন্দিন জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ডকুমেন্টশন হলো জন্ম সনদ। চলুন জেনে নিই জন্ম সনদ কি কি কাজে লাগেঃ

পাসপোর্ট ইস্যু, বিবাহ নিবন্ধন, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি, জাতীয় পরিচয়পত্র ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ন কাজে জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন হয়।  তাই এই জন্ম নিবন্ধনে ভুল থাকলে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা অতীব জরুরী হয়ে পড়ে। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন কেন জরুরী? 

জন্ম নিবন্ধনে বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে পরিচয়পত্রের সবধরনের তথ্য থাকে। এই তথ্যগুলোতে অনেক সময় অসাবধানতার কারণে ভুল হয়ে যায়। যেমনঃ 

স্থায়ী ঠিকানাতে ,পিতা নামে, মায়ের নামে, জন্মতারিখে ভুল হতে পারে। আপনার জন্মসনদের যেকোন ধরনের ভুল আপনি এখন জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২২ এর নিয়মে আপনি ঘরে বসেই সংশোধন করতে পারবেন। আবার মৃত্যু সনদ কিভাবে বাতিল করতে হয় তা জানতে পারবেন এই জন্ম নিবন্ধন সংশোধন পোস্টটি থেকে। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন এর জন্য তথ্য ফরম কোথায় পাবেন?

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইনে করতে চাইলে আপনাকে প্রথমে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড করতে হবে।জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে bdris.gov.bd  ওয়েবসাইটে যেতে হবে। ওয়েবসাইটে গিয়ে  জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড অপশনে গেলে ফরম ডাউনলোড করতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড এখানে ক্লিক করুন। আর যারা অফলাইনে আবেদন করতে চান তাদেরকে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধকের কার্যালয়ে গিয়ে ফরমটি সংগ্রহ করতে হবে। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার উপায়ঃ

জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র,  এবং জন্ম নিবন্ধন সংশোধন দুইভাবে করা যায়। জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধন ফরম এবং জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার পদ্ধতি হলো দুইটি। যথাঃ অনলাইন এবং অফলাইন। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চাইলে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম ডাউনলোড করতে হবে। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড এখানে ক্লিক করুন। আর অফ্লাইনে যদি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে যথাযথ কতৃপক্ষের নিকট অফলাইনে আবেদন করতে হবে। চলুন তাহলে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অফলাইন এবং অনলাইনে কিভাবে করা যায় তা নিয়ে বিস্তারিত দেখে নেয়া যাকঃ

অনলাইনে জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধন ফরম এবং জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার উপায়ঃ 

অনলাইনে জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধন ফরম এবং জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে এখানে ক্লিক করুন। ওয়েবসাইটটিতে যাওয়ার পর নীচের স্ক্রিনশট অনুযায়ী একটি পেজ পাবেন। 

১।ওয়েবসাইটে আপনি প্রথমে হোম অপশনটি দেখতে পাবেন। এরপর দেখবেন জন্ম নিবন্ধন অপশনটি। জন্ম নিবন্ধন অপশনে ক্লিক করলে আপনারা আরো অনেকগুলো অপশন দেখতে পাবেন। এই অপশনগুলোর মধ্য থেকে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন  অপশনটি বাছাই করতে হবে। এরপর অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে। 

২। অপশনটিতে ক্লিক করার পর আপনি নিচের স্ক্রীনশটের মত একটি পেজ পাবেন। পেজটি নিচে স্ক্রল করতে থাকবেন। এই পেজটিওতে কিছু নিয়ামবলী দেয়া আছে। এই নিয়মগুলোর মধ্যে আপনি আপনার সমস্যার ধরন অনুযায়ী নিয়মগুলো দেখে নিতে পারেন। 

৩। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন এর জন্য প্রথমে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিতে হবে। এরপর আপনার জন্ম তারিখ প্রবেশ করান। এরপর অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। ডাটা এন্ট্রি করার পর আপনি আপনার সব ডাটা দেখতে পাবেন। 


৪। এরপর নির্বাচন করুন বাটনে ক্লিক করুন।

৫। নির্বাচন বাটনে ক্লিক করার পর আপনি নিচের স্ক্রীনশটের মত একটি পেজ পাবেন যেখানে আপনি আপনার ডাটাগুলো নিয়ে যদি নিশ্চিত হয়ে থাকেন তাহলে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করতে হবে।  আর যদি নিশ্চিত না হয়ে থাকেন তাহলে পুনরায় আপনাকে সঠিক ডাটা এন্ট্রি করতে হবে। 

৬। এরপর নিচের স্ক্রীনশটের মত একটি পেজ পাবেন যেখানে আপনাকে অফিসের ঠিকানা সিলেক্ট করতে হবে। অফিসের সিলেক্ট করার জন্য আপনাকে দেশ ট্যাব দেখতে পাবেন। এখানে বাংলাদেশ সিলেক্ট করে দিবেন। এরপরের ট্যাবে দেখতে পাবেন বিভাগ যেখানে আপনি আপনার বিভাগ সিলেক্ট করে দিবেন। এরপর জেলা ট্যাবটি আসবে । আপনি আপনার জেলা সিলেক্ট  করে দিবেন। এরপর উপজেলা ট্যাবটি ওপেন হবে সেখানে আপনি আপনার উপজেলা লিখবেন। 

এরপর পৌরসভা বা ইউনিয়ন ট্যাব আসবে সেখানে আপনার পৌরসভা বা ইউনিয়নটি সিলেক্ট করে দিবেন। এরপর দেখবেন আপনার যে অফিস নামের ট্যাবটি রয়েছে সেটি অটোমেটিক্যালি পূরণ হয়ে যাবে। এরপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

৭। এরপর আপনি  একটি পেজ পাবেন যেখানে আপনি আপনার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন, জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন।  

অফলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন কিভাবে করবেন?

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনকে সাধারনত দুইভাগে ভাগ করা যায়। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার অথবা জন্ম তারিখে ভুল হয় তাহলে আপনাকে কিছু সময় হাতে নিয়েই কাজটি শুরু করতে হবে। 

এটা ছাড়া অন্য যেকোনো ভুল সংশোধন করতে চাইলে আপনাকে তিন থেকে চারদিন অপেক্ষা করতে হবে। এটার জন্য আপনাকে একশ টাকা প্রদান করতে হবে ইউনিয়ন পরিষদে। কোথায় জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা হয় তার সঠিক ঠিকানা জানার জন্য আপনাকে আপনার এলাকার মেম্বারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। আপনার এলাকার মেম্বার আপনাকে সঠিক ঠিকানা জানাতে পারবেন জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধনের আবেদনপত্র জমা দেয়ার জন্য। 

অফলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য কি কি ডকুমেন্টস লাগবে  তা নিম্নে দেয়া হলোঃ

১। সবচেয়ে বেশি যেটা গুরুত্ব দেয়া হয় সেটি হলো এসএসসি / সমমানের একটি সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি। এখন প্রশ্ন হলো যারা এসএসসি পাশ করেনি অথবা যারা ছোট তাঁদের ক্ষেত্রে কি করতে হবে? তাদেরকে তাঁদের বাবা মায়ের আইডি কার্ড নিয়ে যেতে হবে । আর যারা পঞ্চম শ্রেণির নিচে পড়াশুনা করে তাঁদের কাছে যদি টিকার কার্ড থাকে তাহলে সেটা নিয়ে গেলেও হবে। 

২। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনে যেকোনো ধরনের নামে ভুল থাকে তাহলে আপনার জন্ম নিবন্ধন তিন থেকে চার দিনের মধ্যেই সংশোধিত হয়ে যাবে। এবং এটা আপনি আপনার ইউনিয়ন পরিষদেই ঠিক করতে পারবেন। 

৩। যদি আপনার জন্ম তারিখ অথবা জন্ম নিবন্ধন নাম্বারে ভুল হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি ফরম পূরণ করতে হবে। এই ফরমটার মূল্য একশ থেকে একশ বিশ টাকা হবে। এখান থেকে আপনাকে দুইটা ফরম দিবে । 

একটি আপনি কি তথ্য সংশোধন করতে চান তা এবং আরেকটি হলো সংশোধিত তথ্য। এই দুইটা ফরমের সাথে আপনার বর্তমান জন্ম নিবন্ধনটি জমা নিবেন তাঁরা। এরপর আপনাকে তিনটি ফরম একসাথ করে একটি ফাইল বানিয়ে দিবে যা আপনাকে  উপজেলা পরিষদে নিয়ে যেতে হবে। উপজেলা পরিষদ থেকে আপনাকে একটি তারিখ দেয়া হবে। যে তারিখ দেয়া হবে সেই তারিখে আপনাকে ডিসি অফিসে যেতে হবে। 

ডিসি অফিসে যাওয়ার সময় আপনাকে বর্তমানে যে জন্ম নিবন্ধনটি রয়েছে সেটি অথবা প্রাথমিক পাসের যেকোনো একটি সার্টিফিকেট এবং আবেদনকারীর পিতা মাতার আইডি কার্ড অবশ্যই নিয়ে যেতে হবে। এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে সশরীরে উপস্থিত থাকতে হবে। ডিসি অফিসে ডিসি আপনাকে কিছু প্রশ করবে আপনাকে সেগুলোর উত্তর দিতে হবে। প্রশ্নের উত্তর দেয়ার পর আপনাকে এপ্রুভ করে দেয়া হবে। 

৪। এপ্রুভ করার ১৫ দিন পর আপনি আপনার ইউনিয়ন পরিষদে গেলে আপনার কাঙ্খিত জন্ম নিবন্ধনটি পেয়ে যাবেন। 

বর্তমানে করোনার কারনে অফলাইনে জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধন আবেদন করাটা একটু ঝামেলা হয়ে যায় কিন্তু তারপরেও আপনি যদি অফলাইনে জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্র, জন্ম তারিখ সংশোধন আবেদন করতে চান তাহলে আপনাকে আপনার নিকতবর্তী ইউনিয়ন পরিষদে যেতে হবে। এবং আপনার এই ধরনের ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২ কত? 

রসিদ ছাড়া নির্ধারিত কোন জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২ আদায় করা যাবেন। jonmo nibondhon sangshodhon form করতে এই পোস্টটি পড়ুন। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন ফরম ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। এছাড়াও জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোদনের আবেদনপত্র সম্পর্কিত তথ্য জানতে এই পোস্টটি পড়ুন এবং আমাদের সাথে থাকুন।

 


জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল কিভাবে করবেন?

জন্ম সনদ বাতিল করতে চাইলে আপনাকে জন্ম সনদ বাতিলের জন্য আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। জন্ম সনদ বাতিলের আবেদন ফরমটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন। 

মৃত্যু সনদ বাতিল করার জন্য এই লিংকে গিয়ে মৃত্যু সনদ বাতিলের ফরমটি ডাউনলোড করতে হবে। এই ফরম পূরণ করে মৃত্যু সনদ বাতিল করতে হবে। 

জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোদনের আবেদনপত্র কিভাবে করবেন তা জানতে এই পোস্টটির সাথে থাকুন। 

জন্ম বা মৃত সনদ সংশোধন কিভাবে করবেন?

যদি কোনো ব্যক্তি জন্ম বা মৃত সনদ সংশোধন করতে চায় তাহলে সংশোধনের জন্য তাকে আইনের নিয়ম অনুযায়ী একটি ফরম পূরণ করতে হবে। ফরমটির জন্য এই পোস্টটি পড়তে হবে। 

জন্ম/মৃত্যু সনদ বাতিল/সংশোধনের আবেদনপত্রঃ

জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করতে হলে আপনাকে একটি ফরম পূরণ করতে হবে। চলুন তাহলে দেখে নিই ফরমে কি কি পূরণ করতে হবে

  • আপনাকে প্রথমে আপনার সমস্যার ধরন অনুযায়ী বিষয় নির্বাচন করতে হবে। আপনি যদি পিতার নাম পরিবর্তন করতে চান তাহলে পিতার নাম পরিবর্তন অপশনে ক্লিক করবেন। অর্থ্যাৎ আপনি যেরকম জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চাচ্ছেন সেরকম অপশন পছন্দ করবেন।
  • এরপরের অপশনটিতে বলেছে “চাহিত সংশোধিত তথ্য” । অর্থ্যাৎ আপনি এখানে যে তথ্যটি সংশোধন করতে চাচ্ছেন তার সঠিক রূপ। 
  • সংশোধিত তথ্য দেয়ার পরের ট্যাবে দেখতে পাবেন “ পরিবর্তনের কারণ” । এই ট্যাবে আপনি ‘ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছিল” এই অপশনটি সিলেক্ট করে দিবেন। 
  • এরপর যদি আপনি আরো তথ্য সংশোধন করতে চান তাহলে  “  আরো তথ্য সংযোজন করুন “ বাটনে ক্লিক করুন।
  • নতুন আরো একটি ট্যাব পাবেন যেখানে আপনাকে আবার বিষয় সিলেক্ট করতে হবে এবং আগের মত অন্য তথ্যগুলো পূরণ করতে হবে। এভাবে আপনি আপনার যেকয়টি সমস্যা রয়েছে তা এনট্রি করতে পারবেন। 
  • জন্মস্থান ঠিকানা তথ্য পূরনঃ এখন জন্মস্থানের  ঠিকানা ট্যাবের তথ্য পূরণ করতে হবে। প্রথমে দেশের নাম বাংলাদেশ সিলেক্ট করতে হবে। এরপর আপনার বিভাগ সিলেক্ট করতে হবে। তারপর আপনার জেলার নাম সিলেক্ট করতে হবে। এবং তারপর আপনি আপনার উপজেলা সিলেক্ট করবেন। এরপর এর নিচের ট্যাবে দেখতে পাবেন পৌরসভা বা ইউনিয়ন যেখানে আপনাকে আপনার পৌরসভা বা ইউনিয়নের নাম সিলেক্ট করতে হবে। 
  • এখন আপনাকে ওয়ার্ড ট্যাবে গিয়ে ওয়ার্ড নাম্বার সিলেক্ট করতে হবে। এরপর ডাকঘরের নাম বাংলায় লিখতে হবে। আপনাকে পাশের ট্যাবে ডাকঘরের নাম আবার ইংরেজীতেলিখতে হবে।এখন নিচের ট্যাবে দেখবেন গ্রাম/পাড়া/ মহল্লা  রয়েছে যেখানে আপনি আপনার গ্রামের নাম লিখবেন বাংলায়। এরপর আপনাকে গ্রাম/পাড়া/ মহল্লার নাম ইংরেজীতে লিখতে হবে। এরপর যদি আপনার বাসা/ সড়ক নাম্বার থাকে তাহলে তা বাংলা এবং ইংরেজীতে লিখবেন। 
  • স্থায়ী ঠিকানা তথ্য পূরনঃ জন্মস্থানের ঠিকানা পূরনের মত করে আপনি স্থায়ী ঠিকানাও পূরণ করে নিবেন। 
  • বর্তমান ঠিকানা তথ্য পূরনঃ একইভাবে বর্তমান ঠিকানা তথ্য পূরণ করে দিবেন। 
  • সব ঠিকানা পূরণ করে দেয়ার পর দেখতে পাবেন নিচের ট্যাবে আবেদনকারীর তথ্য। এখানে আবেদনকারীকে তার তথ্য দিতে হবে। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য আবেদনকারী যদি আঠারো বছরের বেশি হয়ে থাকেন তাহলে তিনি নিজেই ফরমটি পূরণ করতে পারবেন। আর জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য আবেদনকারী যদি আঠারো বছরের কম হয় তাহলে আবেদনকারীর ফরমটি পিতা মাতা বা বড় ভাইবোন থাকলে পূরণ করে দিবে। 
  • আবেদনকারী যদি আঠারো বছরের কম হয়ে থাকে তাহলে তার ফরম যে পূরণ করবে তাকে একটি ফরম পূরণ করতে হবে। আবেদনকারী যদি সম্পর্কে পিতা হয় তাহলে আবেদনকারীর তথ্যে পিতা ক্লিক করলে  নিচে একটি ট্যাব ওপেন হবে যেখানে পিতার নাম লিখতে হবে। এরপর পিতার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। 
  • এরপর সংযুক্তি অপশনে আপনার প্রয়োজনী ডকুমেন্টস সংযুক্ত করতে হবে। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য সংযোজন অপশনে ক্লিক করতে হবে । ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার সামনে ডকুমেন্টস সিলেক্ট করার অপশন আসবে এবং আপনাকে সেখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী সংযুক্ত করতে হবে। ফাইলটি সিলেক্ট করার সাথে সাথে নিচের স্ক্রীনশটের মত একটি পেজ আসবে যেখানে আপনাকে ফাইল টাইপ সিলেক্ট করতে হবে। অপশন সিলেক্ট করার পর “Start” বাটন এ ক্লিক করলে আপনার ফাইলগুলো আপলোড হয়ে যাবে। 
  • এরপর আপনি ক্যাশ অপশন দেখতে পাবেন। যদি আপনি ক্যাশ দিতে চান তাহলে “Pay in cash” সিলেক্ট করবেন। আর যদি আপনি অনলাইনে চালানের মাধ্যমে দিতে চান তাহলে “pay in Chalan” সিলেক্ট করবেন। এরপর আপনি সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন। সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর নিচের স্ক্রীনশটের মত একটি পেজ পাবেন। এই পেজের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আপনি সাকসেস হয়েছেন। চিহ্নিতকৃত কোডটি মনে রাখবেন কেননা পরবর্তী  জন্ম নিবন্ধন স্ংশোধন অনুসন্ধানের জন্য আপনার কোডটি প্রয়োজন হতে পারে। এরপর এই আবেদনপত্রটি প্রিন্ট করে নিবেন। এরপর ১৫ কার্য দিবসের মধ্যে সেই কার্যালয়ে জমা দিবেন। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf ডাউনলোড করতে এবং জন্ম নিবন্ধন সংশোধন কিভাবে করা যায় তা জানতে এই পোস্টটির সাথে থাকুন। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২ জানতে এই পোস্টটির সাথে থাকুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন - জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২ - জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম 2022 pdf

কোনো শিশুর জন্মের পর তার জন্ম নিবন্ধন করা হয়। জন্ম নিবন্ধন করার সময় অসতর্কতাবশত অনেক রকম ভুল হয়ে যায়। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা নিয়ে অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়। যারা জন্ম নিবন্ধন সংশোধন নিয়ে ভাবছেন তাঁরা এই পোস্টটি পড়বেন। আশা করি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে আপনাদের কোনো অসুবিধা হবেনা। তবে এরপরেও যদি কোনো অসুবিধা হয় তাহলে কমেন্ট সেকশনে জানাবেন। সবাই ভালো থাকবেন এবং সুস্থ থাকবেন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

2 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

  1. আমার মেয়ের জন্ম নিবন্ধনে জন্ম তারিখটি ভুল হয়েছে আমি বুঝতে পারছিনা এখন কি করব?

    উত্তরমুছুন
    উত্তরগুলি
    1. এব্যাপারে বিস্তারিত জানতে আমাদেরকে ম্যাসেজ দিন এই লিংকে চাপ দিয়ে

      মুছুন

অর্ডিনারি আইটি কী?