২০২৩ সালের বাংলা নববর্ষ কবে - বাংলা নতুন বছর নববর্ষ 2023

বাংলা নববর্ষ কবে? এ বিষয়ে অনেকেই জানতে চায়। তাই আজকের এই আর্টিকেলে বাংলা নববর্ষ কবে? সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। নববর্ষ হল বাঙ্গালীদের একটি অন্যতম উৎসব। প্রতিবছর একটি নির্দিষ্ট দিনে নববর্ষ পালন করা হয়। শুরু হতে চলেছে বাংলা নববর্ষ 2023 তাই এখন আমরা বাংলা নববর্ষ কবে? এই বিষয়টি জানব।

আপনি যদি শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকেন তাহলে বাংলা নববর্ষ কবে? জানতে পারবেন। তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বাংলা নববর্ষ কবে? তা জেনে নেওয়া যাক।

কনটেন্ট সূচিপত্রঃ বাংলা নববর্ষ কবে - বাংলা নববর্ষ 2023

বাংলা নববর্ষ কবে - বাংলা নববর্ষ 2023ঃ ভূমিকা

আমরা জানি যে বাঙ্গালীদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি আচার-অনুষ্ঠান হল বাংলা নববর্ষ। প্রতিবছর বাঙালিরা অনেক আনন্দের সাথে পালন করে থাকে। তাই অনেকেই প্রশ্ন করে থাকে বাংলা নববর্ষ কবে? তাদের প্রশ্নের উত্তরগুলো আজকের এই আর্টিকেলে জানাবো। এছাড়া এখানে আরো থাকবে পহেলা বৈশাখ কত তারিখ ২০২৩ বাংলাদেশ, বাংলা নববর্ষ 2023, বাংলা নববর্ষ ১৪৩০, বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস, বাংলা নববর্ষ কিভাবে পালন করা হয়, বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদন। তো চলুন আমাদের মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

বাংলা নববর্ষ কবে - পহেলা বৈশাখ কত তারিখ ২০২৩ বাংলাদেশ

প্রিয় বন্ধুরা আপনি আমাদের এই আর্টিকেল পড়ছেন তার কারণ আপনি বাংলা নববর্ষ কবে? এই বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আপনাকে স্বাগতম আপনি সঠিক জায়গাতে এসেছেন। আমরা আজকের এই আর্টিকেলে পহেলা বৈশাখ কত তারিখ ২০২৩ বাংলাদেশ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। যেখান থেকে আপনি পহেলা বৈশাখ কত তারিখ ২০২৩ বাংলাদেশ? এই বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন।

আরো পড়ুনঃ পহেলা বৈশাখ রোমান্টিক কবিতা, ছন্দ আবৃতি ছড়া বাংলা নববর্ষ

পহেলা বৈশাখ হলো বাঙ্গালীদের অন্যতম প্রধান উৎসব গুলোর মধ্যে একটি। যে উৎসবের মধ্যে কোন ধর্ম ভেদাভেদ মানুষের ভেদাভেদ থাকে না। সকল ধর্মের সকল বর্ণের মানুষ পহেলা বৈশাখ পালন করে থাকে। কারণ এটি কোন ধর্মীয় উৎসব নয় এটি হলো বাঙ্গালীদের উৎসব। সাধারণত তাই বাংলা নববর্ষ নিয়ে মানুষের একটু বেশি আগ্রহ থাকে।

আমরা জানি যে প্রতিবছর ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ পালন করা হয়। আর পহেলা বৈশাখের দিন বাংলা নববর্ষ পালন করা হয়। ইংরেজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২০২৩ সালের ১৪ এপ্রিল দিন থাকবে শুক্রবার। শুক্রবারের দিন পহেলা বৈশাখ পালন করা হবে। পহেলা বৈশাখ মানে হল বাংলা নববর্ষ। আশাকরি বাংলা নববর্ষ কবে বিষয়টি সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা পেয়েছেন।

বাংলা নববর্ষ 2023 - বাংলা নববর্ষ ১৪৩০

প্রিয় বন্ধুরা আশা করি আপনি জানতে পেরেছেন বাংলা নববর্ষ 2023 কত তারিখে পালন করা হবে? পহেলা বৈশাখ অথবা বাংলা নববর্ষ হলো বাঙালি মানুষদের কাছে বাংলা বছরের প্রথম দিন। পহেলা বৈশাখ এর মধ্য দিয়ে শুরু হয় বাংলার নতুন বছর। সাধারণত তাই নববর্ষের আগমনী দিনে বাঙালি মানুষেরা খুবই আনন্দের সাথে দিনটি পালন করে থাকে।

এবারের বাংলা নববর্ষ ১৪৩০ অনেক আনন্দের সাথে পালন করা হবে। এখন বর্তমানে বাংলা সাল ১৪২৯ অতিবাহিত হচ্ছে 2023 সালের ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের মধ্য দিয়ে বাংলা নববর্ষ ১৪৩০ শুরু হবে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্যের মানুষ অনেক আনন্দ করে থাকে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এইদিন বাংলা নববর্ষ নামে বেশি পরিচিত। বাংলাদেশ বাংলা নববর্ষের দিন সরকারি ছুটি ঘোষণা করা হয়। এই দিনটি উপলক্ষে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গাতে মেলা আয়োজন করা হয় বিভিন্ন রকম শোভাযাত্রা এবং আচার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বেশির ভাগ হয়ে থাকে। এ বছরও তা পালন করা হবে।

বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস

প্রিয় বন্ধুরা বাংলা নববর্ষ সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি কিন্তু বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস সম্পর্কে আমাদের তেমন কোন ধারণা নেই। আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা এখন বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস সম্পর্কে আলোচনা করব। তো বন্ধুরা চলুন বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

সৌর পঞ্জিকা অনুসারে বাংলা বারো মাস অনেককাল আগে থেকেই পালিত হতো। এখন যেমন নববর্ষ নতুন বছরের সূচনা হিসেবে পালন করা হয় একটি সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে এই নববর্ষ। একসময় এরকম অবস্থা ছিল না তখন নববর্ষ পহেলা বৈশাখ ঋতুকালীন হিসেবে পালিত হতো। ভারতবর্ষের মুঘল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর সম্রাটরা হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে কৃষি পণ্যের খাজনা আদায় করত।

কিন্তু হিজরী সন চাঁদের উপর নির্ভরশীল হওয়ার কারণে কৃষি ফোনের সাথে মিলত না। যার ফলে অসময়ে কৃষকদের খাজনা পরিশোধ করতে বাধ্য করতে হতো। খাজনা আদায়ের ব্যাপারে সুষ্ঠুতা করার লক্ষে মুঘল সম্রাট আকবর বাংলা সনের প্রবর্তন করেন। তিনি মূলত প্রাচীন বর্ষপঞ্জিতে সংস্কার আনার আদেশ দিয়েছিলেন।

আরো পড়ুনঃ পহেলা বৈশাখ মেসেজ - পহেলা বৈশাখ শুভেচ্ছা বাণী

সম্রাটের আদেশ অনুযায়ী রাজকীয় জ্যোতির্বিজ্ঞানী ফতেহউদ্দিন সিরাজী সৌর সন এবং আরবি হিজরী সনের উপর ভিত্তি করে নতুন বাংলা সনের নিয়ম প্রবর্তন করেন। ১৫৫৬ খ্রিস্টাব্দের ১০ মার্চ বা ৯৯২ হিজরীতে বাংলা সন গণনা শুরু করা হয়। তবে এই গণনা পদ্ধতি কার্যকর করা হয় আকবরের সিংহাসন আরোহণের সময় অর্থাৎ ১৫৫৬ সালের ৫ নভেম্বর থেকে প্রথমেই সনের নাম ছিল বাংলা বর্ষ। আকবরের সময়কাল থেকেই পহেলা বৈশাখ উদযাপন শুরু হয়।

বাংলা নববর্ষ কিভাবে পালন করা হয়

আমরা সকলেই বাঙালি হিসেবে পহেলা বৈশাখ অর্থাৎ বাংলা নববর্ষ সম্পর্কে জানি কিন্তু বাংলা নববর্ষ কিভাবে পালন করা হয় এ বিষয় সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই কোন ধারণা নেই। আজকের এই আর্টিকেলে বাংলা নববর্ষ কবে? এ বিষয়টি সম্পর্কে আলোচনা করছে সেহেতু বাংলা নববর্ষ কিভাবে পালন করা হয় তা জেনে নেওয়া যাক।

পহেলা বৈশাখ অর্থাৎ বাংলা নববর্ষ হলো বৈশাখ মাসের প্রথম দিন। পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ অনেক আনন্দের সাথে পালন করা হয়। এই দিনটি বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের অনেকগুলো রাজ্যে নববর্ষ হিসেবে বিশেষ গুরুত্বের সাথে পালন করা হয়। এই উৎসবের দিনটিতে বাঙালি খাবারের মেনুতে বিভিন্ন রকম খাবার দেখা যায় তবে বিশেষ করে বাঙালিদের খাবার পান্তা ভাত এবং ইলিশ বেশি পাওয়া যায়।

যেহেতু বাঙালি সংস্কৃতির সাথে এটা খুবই জড়িত তাই বাঙালির খাবার পান্তা ভাত এবং ইলিশ খাওয়া হয় পহেলা বৈশাখের দিন। এছাড়া বিভিন্ন রকম পিঠা পুলি এবং বাঙ্গালীদের পোশাক পাঞ্জাবি পায়জামা অথবা লুঙ্গি এবং মহিলারা শাড়ি পড়ে থাকে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিভিন্ন রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাংলা নববর্ষ অনুষ্ঠান গুলো গুরুত্বের সাথে শহরে ও গ্রামে পালিত হয়ে থাকে। বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে অনেক জায়গাতে মেলা বসে থাকে। এছাড়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান গান নাচ এর আয়োজন করা হয়। বাংলা নববর্ষের গান পরিবেশন করা হয় এই দিনটিতে মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। সাধারণত এভাবেই বাংলা নববর্ষ উদযাপন করা হয়।

বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদন

প্রিয় বন্ধুরা উপরের আলোচনায় বাংলা নববর্ষ কবে? এই বিষয় সর্ম্পকে বিস্তারিত জেনেছি। এখন বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করব। আমাদের অনেক সময় বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদন লেখার প্রয়োজন হয়। বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হলো।

১৭ই এপ্রিল ২০২৩

বরাবর

প্রধান শিক্ষক

রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ

কাজিহাটা, রাজশাহী

বিষয়ঃ বাংলা নববর্ষ উদযাপন সম্পর্কে প্রতিবেদন

জনাব,

সবিনয় নিবেদন এই যে, রাজশাহী সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজে বাংলা নববর্ষ উদযাপন সম্পর্কে নিম্নলিখিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করছি। আমরা জানি যে পহেলা বৈশাখ বাঙালির কাছে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এবং গুরুত্বপূর্ণ দিন। প্রতি বছর এই দিনে অনেক আনন্দের সাথে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই একসাথে আমরা বাংলা নববর্ষ পালন করে থাকি। পুরাতন বছরকে বিদায় দিয়ে আমরা নতুন বছরকে সাদরে গ্রহণ করি বাংলা নববর্ষ উদযাপনের মাধ্যমে।

আরো পড়ুনঃ পহেলা বৈশাখ অনুচ্ছেদ রচনা ০৯টি - পহেলা বৈশাখ নিয়ে কিছু কথা

প্রতিবছর আমাদের রাজশাহী কলেজ বিভিন্ন রকম কর্মসূচি পালন করে থাকে নববর্ষ উপলক্ষে এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। নববর্ষের দিন সকালে বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের উদ্দেশ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের নববর্ষের র‍্যালি বের করে। এরপরে নববর্ষের ঐতিহ্যবাহী খাবার পান্তা-ইলিশ খাওয়া হয়। বিভিন্ন রকম সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্ব শুরু করা হয়।

নিবেদক

তিথি তাবাসসুম

বাংলা নববর্ষ কবে - বাংলা নববর্ষ 2023ঃ উপসংহার

বাংলা নববর্ষ 2023, বাংলা নববর্ষ কিভাবে পালন করা হয়? বাংলা নববর্ষ প্রতিবেদন, বাংলা নববর্ষ উদযাপনের ইতিহাস, পহেলা বৈশাখ কত তারিখ ২০২৩ বাংলাদেশ, বাংলা নববর্ষ কবে? এই বিষয়গুলো সম্পর্কে আজকের এয়ারটেল এ আলোচনা করা হয়েছে। প্রিয় বন্ধুরা আশাকরি আপনারাও উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা পেয়েছেন। আপনাকে বিষয়গুলো জানাতে পেরে আমরা সত্যিই অনেক আনন্দিত। আপনার এবং আপনার পরিবারের সুস্থতা কামনা করে আজকের মত এখানেই শেষ করছি ধন্যবাদ।২০৮৭৬

Next Post Previous Post