অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/11/potibondhi_0845173584.html

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান - বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস ২০২২ রচনা

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান নিয়ে আজকের এই আর্টিকেল। সমাজে প্রতিবন্ধীদের সাধারণ মানুষের মতো বেঁচে থাকার জন্য এবং তাদের অধিকার তাদের সম্মান দেওয়ার জন্য প্রতিবছর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয় এবং বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান থাকে। এই বছর ও বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান রয়েছে সেটির বিষয়ে আজকে আমরা আলোচনা করব।

আপনি যদি শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকেন তাহলে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

কনটেন্ট সূচিপত্রঃ বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান - বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান - বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনাঃ ভূমিকা

আমরা অনেকেই জানি যে প্রতিবছর ৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়। প্রতিবন্ধী দিবসের একটি শ্লোগান থাকে। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান সম্পর্কে বিস্তারিত জানব। সাধারণত প্রতিবন্ধীদের যথার্থ সম্মান দেওয়ার জন্য এবং তাদের গুরুত্ব আমাদের সমাজে আরো বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়। বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান

সারাবিশ্বে প্রতিবছর ৩ ডিসেম্বর প্রতিবন্ধীদের সম্মান জানানোর জন্য এবং সমাজে তাদের সঠিক অধিকার বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়। গোটা বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ ও বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়ে আসছে প্রতিবছর। বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি বিভিন্ন রকম সংস্থা প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে।

আরো পড়ুনঃ সশস্ত্র বাহিনীর পটভূমি - সশস্ত্র বাহিনী দিবস কত তারিখ বাংলাদেশ

২০২১ সালের বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল "কোভিডোওর টেকসই উন্নয়ন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির নেতৃত্ব ও অংশগ্রহণ"। প্রতিবছর প্রতিবন্ধী দিবস পালন করার সাথে সাথে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান দেওয়া হয়। এখানে প্রতিবন্ধী সমাজের বোঝা নয় তারা জনশক্তিতে রূপান্তর হতে পারে এই বিষয়টি সম্পর্কে বোঝানো হয়।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা

প্রতি বছর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে উপজেলা অথবা ইস্কুলে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা লেখার প্রতিযোগিতা হয়। আপনি যদি বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা লেখার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে চান তাহলে উক্ত এ পোস্টটি পড়ে নিন এখানে আপনি বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা সম্পর্কে জানতে পারবেন। তো চলুন বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ভূমিকাঃ আমাদের সমাজে অথবা আমাদের পরিবারে প্রতিবন্ধী থাকতে পারে তাদের ওপর আমাদের দায়িত্ব এবং কর্তব্য রয়েছে। একইভাবে পরিবার সমাজ এবং রাষ্ট্রেরও তাদের প্রতি কর্তব্য রয়েছে। কিন্তু দেখা যায় সমাজে বেশিরভাগ প্রতিবন্ধী রয়েছে যারা অবহেলার শিকার হয়। তাদের এই অবহেলা দূর করার জন্য সারা বিশ্বে প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়।

প্রতিবন্ধী শব্দের অর্থঃ আমরা প্রতিবন্ধী দেখে থাকে দুই প্রকার কেউ আছে যারা জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধী হয় এবং এক ধরনের প্রতিবন্ধীর সৃষ্টি হয় বিভিন্ন রকম দুর্ঘটনার কারণে। কেউ কেউ কোনো দুরারোগ্য ব্যাধি অথবা দুর্ঘটনাকবলিত হয়ে প্রতিবন্ধকতার শিকার হয়। সাধারণত যেসব ব্যক্তির দৈহিক এবং মানসিক দিক থেকে সাধারন ভাবে জীবন যাপন করতে পারে না।

একজন স্বাভাবিক মানুষের চেয়ে তাদের জীবনযাপন আলাদা তাদের প্রতিবন্ধী বলা হয়। আমাদের সমাজে রয়েছে যারা জন্ম কবে প্রতিবন্ধী আবার কেউ রয়েছে বিভিন্ন দুর্ঘটনায় কবলিত হয়ে প্রতিবন্ধী হয়েছেন।

প্রতিবন্ধীদের সমস্যাঃ আমাদের জীবনে চলার পথে বিভিন্ন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু একজন প্রতিবন্ধীর জীবন একজন সাধারন মানুষের জীবনের চাইতে অনেক আলাদা হয়। সমাজে এমন অনেক মানুষ রয়েছে যারা তাদের ঘৃনার চোখে দেখে। প্রতিবন্ধীরা একজন সুস্থ মানুষের মতো কেউ কথা বলতে পারে না আবার কেউ আছে একজন সুস্থ মানুষের মতো হাঁটাচলা করতে পারে না।

কেউবা চোখে দেখতে পারেনা। আবার অনেকে আছে যারা শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী এবং আর্থিকভাবে ও প্রতিবন্ধী বলা হয়। এরকম মানুষেরা বাধ্য হয়ে ভিক্ষাবৃত্তির পথ বেছে নেই। অনেক পরিবার আছে যারা তাদের নিজেদের সন্তান অথবা পরিবারের মানুষ বলতে ঘৃণা প্রকাশ করেন। সাধারণত তাদের এই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্যই প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়।

প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণঃ পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার অনেক অংশজুড়েই প্রতিবন্ধী রয়েছে। তাদের প্রতিবন্ধী হওয়ার অনেকগুলো কারণ রয়েছে যেমন কেউ জন্মগতভাবে প্রতিবন্ধী হতে পারে আবার কেউ বিভিন্ন রকম দুর্ঘটনার কারণে প্রতিবন্ধী হয়েছে। অথবা অনেকেই আছে যারা অপুষ্টিজনিত কারণে অথবা অজ্ঞাত কারণে প্রতিবন্ধী হয়ে থাকে।

প্রতিবন্ধীকতা দূরীকরণের উপায়ঃ বর্তমানে দেখা যায় অনেক মানুষ রয়েছে যারা প্রতিবন্ধীদের ঘৃনার চোখে দেখে। তাদের কাছে মনে হয় প্রতিবন্ধীরা কোন মানুষের মধ্যে পড়ে না। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে যে প্রতিবন্ধী মানুষেরা আমাদের মত সাধারন মানুষ। তারা আমাদের এই সমাজে বসবাস করে। আমাদের যে অধিকার গুলো রয়েছে তাদের ঠিক সে অধিকার রয়েছে। সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব এবং কর্তব্য রয়েছে প্রতিবন্ধীদের ওপর।

প্রতিবন্ধকতা দূর করার অন্যতম একটি উপায় হল আমাদের প্রথমে মন পরিষ্কার করতে হবে। আমাদের সব সময় ভালো চিন্তা করতে হবে। একজন প্রতিবন্ধী মানুষ যে একজন স্বাভাবিক মানুষের মতোই এই কথা চিন্তা করতে হবে। তারা হয়ত একজন স্বাভাবিক মানুষের মতো চলাফেরা করতে পারে না কিন্তু তাদের সেই অধিকারটুকু রয়েছে।

যদি প্রতিটি মানুষ প্রতিবন্ধীদের সাহায্য করতে এগিয়ে আসে তাহলে আমাদের সমাজে এই প্রতিবন্ধকতা আর থাকবে না। যেহেতু প্রতিবন্ধী বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে অপুষ্টিজনিত কারণে মায়ের পেট থেকে এবং বিভিন্ন রকম দুর্ঘটনাজনিত কারণে। তার জন্য অনেক সচেতন থেকে আমাদের এই পদক্ষেপগুলো গ্রহণ করতে হবে।

উপসংহারঃ প্রতিবন্ধীদের পরিবার সমাজ এবং রাষ্ট্রের যদি তাদের পাশে থাকে তাহলে অবশ্যই প্রতিবন্ধকতা দূর করা খুবই সহজ একটি কাজ। তার জন্য আমাদের সবাইকে একসাথে হয়ে কাজ করতে হবে তাহলেই অতি সহজে প্রতিবন্ধকতা দূর করতে পারব।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা

প্রিয় বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেলে আমরা বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান সম্পর্কে আলোচনা করছি। ইতিমধ্যে আমরা উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে জেনেছি এবং এর সাথে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা সম্পর্কে জেনেছি। এখন আমরা বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা জানব।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা - ১ঃ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে আন্তরিক শুভেচ্ছা। আসুন আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রতি আরো দায়িত্বশীল এবং যত্নবান হয়।

আরো পড়ুনঃ নূর হোসেন দিবস ২০২২ - নূর হোসেন দিবস কবে

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা - ২ঃ আমরা সবাই সমান এবং আমরা আমাদের সকলের সমান আচরণ করতে হবে। আসুন আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সাথে বাকি জনসংখ্যার সমান আচরণ করি। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবসের শুভেচ্ছা।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা - ৩ঃ প্রতিবন্ধী আমার ভাই এবং বোনের আমার পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে জানাই শুভেচ্ছা এবং ভালোবাসা।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা - ৪ঃ একজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে দুর্বল করার ক্ষমতা কারও নাই। তারা সম্মান ও ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবসের শুভেচ্ছা।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের শুভেচ্ছা - ৫ঃ আমার প্রতিটি প্রতিবন্ধী ভাই এবং বোন কে জানাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আমরা সবাই এক আমরা সবাই মানুষ আমাদের সবার রক্তের রং লাল আমাদের মধ্যে কোন ভেদাভেদ নাই।

সংগৃহীত

বাংলাদেশের বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস

প্রতিবন্ধী দিবস কেন পালন করা হয় এ বিষয়ে আমরা সকলেই কম বেশি জানি। বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান রয়েছে। যেটির মধ্যে দিয়ে মানুষকে প্রতিবন্ধীদের সাহসিকতা এবং তাদের ক্ষমতা সম্পর্কে জানানো হয়। প্রতিবছর সারাবিশ্বে ৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়। গোটা বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও একই দিনে প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়ে আসছে।

এ দিনটিতে বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থা তাদের নিজেদের উদ্যোগে বিভিন্ন রকম কর্মসূচি পালন করে থাকে। সাধারণত এই কর্মসূচী পালিত হয় বাংলাদেশের প্রতিবন্ধীদের নিয়ে। সমাজে তাদের অধিকার এবং তাদের গুরুত্ব কতটা রয়েছে সে সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়।

বাংলাদেশের অনেক বড় অংশ জুড়ে রয়েছে প্রতিবন্ধী। বাংলাদেশ প্রতিবন্ধী গুলোকে তাদের জনশক্তিতে রূপান্তরিত করতে পারেনি। এখনও বাংলাদেশের বেশিরভাগ প্রতিবন্ধী রয়েছে যারা ভিক্ষাবৃত্তি করে তাদের জীবন যাপন করছে। কিন্তু ধীরে ধীরে সময় বদলানোর সাথে সাথে বাংলাদেশের প্রতিবন্ধীদের প্রতি দায়িত্বশীল হওয়ার বিষয়টি দেখা যাচ্ছে।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস ছবি

প্রিয় বন্ধুরা আজকে আমরা বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান এছাড়া বিশ্ব প্রতিবন্ধী বিষয়ে আরো অনেকগুলো জেনেছি। আমরা জানি যে প্রতিবছর বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়ে আসছে। বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস ছবি তাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপলোড করে থাকে। তাদের জন্য নিচে বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস ছবি দেওয়া হল।

আরো পড়ুনঃ সশস্ত্র বাহিনী দিবসের গুরুত্ব - সশস্ত্র বাহিনী দিবসের উপর আলোকপাত


বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান - বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনাঃ উপসংহার

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস স্লোগান, বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস রচনা, বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস শুভেচ্ছা এছাড়া আরো অনেকগুলো বিষয় সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি আপনি উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা হয়েছেন। আপনাকে তথ্যগুলো জানাতে পেরে আমরা সত্যিই অনেক আনন্দিত। আপনার এবং আপনার পরিবারের সুস্থতা কামনা করে আজকের মত এখানেই শেষ করছি ধন্যবাদ।২০৮৭৬

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?