অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/04/sohobas.html

রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা জেনে নিন

রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা তা নিয়ে অনেকের মনেই কিছু প্রশ্ন রয়েছে। কেউ মনে করে রমজান মাসে স্ত্রী সহবাস করা পাপ আবার অনেকে মনে করেন রমজান মাসে সহবাস করা যাবে। সঠিক তথ্যটি কি তা আজ আমরা জানাব। রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা সেই সম্পর্কে ইসলাম কি বলে জেনে নেই।

চলুন আর দেরি না করে দেখে নেই রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা।

পেজ সূচিপত্রঃ রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

হ্যাঁ! রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে। মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা বলেছেন- 

ﺃُﺣِﻞَّ ﻟَﻜُﻢْ ﻟَﻴْﻠَﺔَ ﺍﻟﺼِّﻴَﺎﻡِ ﺍﻟﺮَّﻓَﺚُ ﺇِﻟَﻰ ﻧِﺴَﺎﺋِﻜُﻢْ ﻫُﻦَّ ﻟِﺒَﺎﺱٌ ﻟَﻜُﻢْ ﻭَﺃَﻧْﺘُﻢْ ﻟِﺒَﺎﺱٌ ﻟَﻬُﻦَّ ﻋَﻠِﻢَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﺃَﻧَّﻜُﻢْ ﻛُﻨْﺘُﻢْ ﺗَﺨْﺘَﺎﻧُﻮﻥَ ﺃَﻧْﻔُﺴَﻜُﻢْ ﻓَﺘَﺎﺏَ ﻋَﻠَﻴْﻜُﻢْ ﻭَﻋَﻔَﺎ ﻋَﻨْﻜُﻢْ ﻓَﺎﻟْﺂَﻥَ ﺑَﺎﺷِﺮُﻭﻫُﻦَّ ﻭَﺍﺑْﺘَﻐُﻮﺍ ﻣَﺎ ﻛَﺘَﺐَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻟَﻜُﻢْ

“রমজানের রাতে তোমাদের জন্য তোমাদের স্ত্রীদের কাছে যাওয়া হালাল করা হয়েছে। তারা তোমাদের জন্য পরিচ্ছদ এবং তোমরা তাদের জন্য পরিচ্ছদ। আল্লাহ জেনেছেন যে, তোমরা নিজদের সাথে খিয়ানত করছিলে। অতঃপর তিনি তোমাদের তাওবা কবূল করেছেন এবং তোমাদেরকে ক্ষমা করেছেন। অতএব, এখন তোমরা তাদের সাথে মিলিত হও এবং আল্লাহ তোমাদের জন্য যা লিখে দিয়েছেন, তা অনুসন্ধান কর।” (বাকারা : ১৮৭)

আরও পড়ুনঃ সেহরি খাওয়ার পর সহবাস করা যাবে কিনা জেনে নিন

তার মানে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা রমজান মাসে দিনের বেলায় সহবাস করা হারাম ও রাতের বেলা সহবাস করা হালাল করেছেন। কিন্তু আপনি দিনের বেলায় স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে আদর-সোহাগ, চুম্বন, স্তন মর্দন করতে পারবেন অর্থাৎ, বীর্যপাত ও সহবাস ব্যতীত স্বামী-স্ত্রীকে উপভোগ করা জায়েজ।

আয়েশা (রাঃ) বলেছেন যে, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রোযা রেখে স্ত্রীকে চুম্বন করতেন; স্ত্রীর সাথে মুবাশারা (আলিঙ্গন) করতেন। এবং তিনি ছিলেন তাঁর যৌনাচাহিদা নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে সক্ষম ব্যক্তি।

তাই সকলের উচিত নিজেকে নিয়ন্ত্রন রাখা। যদি কেউ মনে করে সে নিজেকে নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন না তাহলে তার এসব কাজ না করাই শ্রেয়। আর যদি কেউ ইচ্ছাকৃত ভাবে রোজা থেকে দিনের বেলায় সহবাস করে তাহলে তাকে কাফফারা দিতে হবে। তাকে কাফফারা স্বরূপ ২ মাস তথা ৬০টি রোজা রাখতে হবে আর নাহলে স্বামী-স্ত্রী উভয়কেই ৬০ জন করে ১২০ জনকে খাওয়াতে হবে। সে যদি সারাজীবন ধরে রোজাও রাখে তাহলেও এই রোজা পুরন হবে না।

স্বামী-স্ত্রী সহবাসের দোয়াটি কি? | রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

স্বামী-স্ত্রী সহবাসের পূর্বে নিম্নক্তো দোয়াটি পড়ে নেওয়া জরুরি, এতে করে স্বামী-স্ত্রী সহবাসের সময় শয়তানের হাত থেকে বাঁচা যায়।

দোয়াটি হলো :

بِسْمِ اللَّهِ ، اللَّهُمَّ جَنِّبْنَا الشَّيْطَانَ ، وَجَنِّبْ الشَّيْطَانَ مَا رَزَقْتَنَا

উচ্চারণ : বিসমিল্লাহি আল্লাহুম্মা জান্নিবনাশ শায়ত্বানা, ওয়া জান্নিবিশ শায়ত্বানা মা রাজাক্বতানা।

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! তোমার নামে শুরু করছি। তুমি আমাদের কাছ থেকে শয়তানকে দূরে রাখ। আমাদের যে সন্তান দান করবে (এ মিলনের ফলে)— তা থেকেও শয়তানকে দূরে রাখো।’

সহবাসের পর গোসল না করে সেহরি খেলে কি রোজা হবে? | রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

হ্যাঁ হবে! অনেক হাদিসে এসেছে, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) অনেক সময় নাপাক অবস্থায় সেহরি করতেন এবং ফজরের আযানের পর গোসল করে নামাজ আদায় করতেন।

الصائم له أن يُصبح جنبًا ثم يغتسل، لا يضرُّه ذلك، فإذا جامع في الليل ثم أصبح واغتسل بعد الفجر فلا حرج عليه

আরও পড়ুনঃ ফরজ গোসল ছাড়া রোজা হবে কিনা জেনে নিন

“রোজাদার যদি জুনুবি বা গোসল ফরজ অবস্থায় ভোর হলে অত:পর গোসল করে তাহলে তাতে কোন ক্ষতি নেই। যদি রাতে স্ত্রী সহবাস করার সকল হয়ে যায় এবং ফজর উদিত হওয়ার পর গোসল করে তাহলে তাতে কোন অসুবিধা নাই।”

তিনি আরও বলেন:

فلا بأس أن يجامع الإنسانُ في آخر الليل، ثم يتسحر، ثم يغتسل بعد أذان الفجر، لا حرج في ذلك.

“সুতরাং এতে অসুবিধা নেই যে, কেউ যদি শেষ রাতে স্ত্রী সহবাস করে, অত:পর সেহরি খায় অত:পর ফজরের আজানের পর গোসল করে। এতে কোন সমস্যা নেই।”

সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতা | রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

স্বামী-স্ত্রী একে অপরের সাথে সহবাস করা একটি সওয়াবের কাজ এতে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা খুশী হন। কিন্তু সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতা আছে। যা আমাদের মেনে চলতে হবে। চলুন দেখে নেই সহবাসের ক্ষেত্রে কিছু নিষিদ্ধতাগুলো কি?

১। মেয়েদের মাসিক বা পিরিয়ড কালীন সহবাস করা হারাম। মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা বলেছেন-

"তোমরা মাসিক বা পিরিয়ড চলা কালিন স্ত্রী সঙ্গম বর্জন কর, ততদিন তাদের কাছে সহবাসের জন্য যেও না যতদিন না তারা পবিত্র হয়। এবং তারা যখন পবিত্র হয় তখন তাদের কাছে ঠিক সেইভাবে গমন কর, আল্লাহ্‌ তায়াল যেভাবে তোমাদের নির্দেশ দিয়েছেন। নিশ্চয় আল্লাহ্‌ তায়ালা ক্ষমাপ্রার্থীদের এবং যারা পবিত্র থাকে তাদের পছন্দ করেন"

২। দিনের বেলায় রোজা রেখে সহবাস করা যাবে না। যদি ভুলবশত হয়ে যায় তাহলে তার কাফফারা দিতে হবে।

৩। অসুস্থ অবস্থায় সহবাস করা যাবেনা, এতে অসুখ বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা আছে।

৪। হজ্জ, ওমরার ইহরাম অবস্থায় সহবাস করা যাবেনা। এই সম্পর্কে মহান আল্লাহ্‌ তায়ালা বলেছেন-

"শাওয়াল, যিলক্কদ ও যিলহজ্জ মাসে হজ্জ হয়। যদি কেউ এই মাস গুলোতে হজ্জ করার পরিকল্পনা করে তাহলে সে যেন হজ্জ এর সময় সহবাস, পাপ কাজ ও ঝগড়া বিবাদ থেকে দূরে থাকে"

৫। এছাড়া, পায়ু পথ দিয়ে স্ত্রীর সাথে যৌন মিলন করা হারাম। মহানবী (সাঃ) এই সম্পর্কে বলেছেন-

"যে ব্যাক্তি তার স্ত্রীর সাথে পায়ুপথ দিয়ে যৌন সঙ্গম করে , আল্লাহ্‌ রাব্বুল আলামিন তার দিকে রহমতের দৃষ্টিতে তাকান না"

সহবাস সম্পর্কে কিছু কুসংস্কার | রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

আগেকার যুগে সহবাস সম্পর্কে কিছু ভুল ধারণা বা কুসংস্কার ছিল যা অনেকে মানত আর এখনও কিছু লোক আছে যারা এসব ভ্রান্ত ধারনা মেনে চলে। কুসংস্কারগুলো হলঃ

  • গভীর রাতের আগে সহবাস করা যাবে না,
  • যে গাছে ফল হয় সেই গাছের নিচে সহবাস করা যাবে না,
  • চন্দ্র মাসের ১ তারিখ ও ১৫ তারিখ সহবাস করা যাবে না,
  • বিদেশে যাওয়ার আগের রাতে সহবাস করা যাবে না,
  • রবিবার ও বুধবার রাতে সহবাস করা যাবে না,
  • জোহরের নামাজের পর সহবাস করা যাবে না,
  • খেয়ে উঠে সহবাস করা যাবে না,
  • উলঙ্গ হয়ে ও উল্টাভাবে সহবাস করা যাবে না।
  • পূর্ব-পশ্চিম হয়ে সহবাস করা যাবে না,
  • স্বপ্নদোষ হলে গোসল না করে সহবাস করা যাবে না,
  • স্ত্রীর জরায়ুর দিকে তাকিয়ে সহবাস করলে চোখের জ্যোতি নষ্ট হয়ে যায়, তাই সেদিকে তাকিয়ে সহবাস করা যাবে না।

এসব একটি কুসংস্কার যা কোরআনের আলোকে কোন ভিত্তি নাই। তাই এসব ভ্রান্ত ধারনা আমাদের মুছে ফেলতে হবে।

শেষ কথাঃ রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা 

বন্ধুরা, আজ আমরা রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা তা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের এই রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা পোস্টটিতে রমজান মাসে সহবাস কখন কখন করতে পারবেন তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ নাপাক অবস্থায় সেহরি খাওয়া ও অপবিত্র অবস্থায় রোজা রাখার বিধান

আশাকরি, আমাদের আজাকের এই রমজান মাসে রাতে সহবাস করা যাবে কিনা পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে, এবং এখান থেকে আপনারা অনেক কিছু জানতে পারবেন ও উপকৃত হবেন। ধন্যবাদ।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?