অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2020/03/twitter.html

টুইটারের ১৫ টি সেরা টিপস এবং ট্রিক্স ২০২০ সালের

বিশ্বের সেরা কিছু সোশ্যাল সাইটের মধ্য টুইটার হচ্ছে অন্যতম খুব জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল সাইট। টুইটারে এমন অনেক ফিচার রয়েছে যা সত্যি অসাধারণ। যা তাদের ব্যবহারকারীদের আনন্দ দিয়ে থাকে এবং সহজে ব্যবহার করতে সাহায্য করে। তাছাড়াও টুইটার ব্যবহার করা একদম সহজ, ইউজার ফ্রেন্ডলি এবং সহজ ইন্টারফেস।

টুইটার এতটা জনপ্রিয় হওয়ার অনেক কারণ রয়েছে তার মধ্য অন্যতম কারণ হচ্ছে, টুইটার তাদের ব্যবহারকারীদের সহজে তাদের পছন্দনীয় সেলিব্রিটিদের বা যে কেউ কে ফলো করার সুযোগ দেয়, সাথে কনভারসেশন এবং টুইট করার সুযোগ করে দেয়।

২০১৯ এ নভেম্বর এর হিসেব অনুযায়ী টুইটার এর মাসিক এক্টিভ ভিজিটর এর সংখ্যা হচ্ছে ৩৩০ মিলিয়ন। ১৪৫ মিলিয়ন প্রত্যেকদিন এক্টিভ ভিজিটর। এতে বুঝা যায় টুইটার কতটা জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল প্লাটফর্ম।

১. টপিক অনুযায়ী লিস্ট আকারে সাজানো

আপনি যদি টুইটারে কোন ব্র্যান্ড কিংবা কোন ব্যক্তিকে বা গুরুত্বপূর্ণ কিছু ফলো করে থাকেন। কিন্তু আপনার নিউজফিডে বিশৃঙ্খল ভাবে ব্র্যান্ড বা গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট এবং সাথে অন্যান্য পোস্ট এক সাথে ঘুরতে থাকে, তাহলে আপনি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস গুলো মিস করে যেতে পারেন।  যেটি আপনি কখনো চাইবেন না।

তাই টুইটার আপনার জন্য একটি সেরা একটি ফিচার নিয়ে এসেছে, তা হলো টপিক অনুযায়ী লিস্ট করা। এতে করে আপনি নির্দিষ্ট ভাবে আপনার পছন্দনীয় কিংবা গুরুত্বপূর্ণ টপিক গুলোকে টপিক তৈরি করে লিস্ট আকারে রাখতে পারেন। যেটি আপনাকে আরো সহজ করে দিবে টুইটার ব্যবহারকে।

লিস্ট তৈরি করতে হলে আপনাকে যেসকল কিছু ফলো করতে হবে তা হলঃ

প্রথমে Home এ আসুন, বামপাশে সাইডবারে List অপশন এ ক্লিক করুন, 



এরপর Create a List এ ক্লিক করুন। 



এরপর আপনার লিস্টের একটি নাম দিন, এবং ছোট একটি Description দিন এরপর Next এ ক্লিক করুন। 


এরপর আপনি যে যে ব্র্যান্ড কে Add করতে চান তার নাম সার্চ দিয়ে Add করুন। 



এভাবে আপনার লিস্ট তৈরির কাজটি সম্পন্ন হবে। পরবর্তিতে যদি অন্য কোন ব্র্যান্ড বা যেকাউকে Add করতে চাইলে, তাদের প্রোফাইলে গিয়ে সবার উপরে ৩টি বিন্দু দেখতে পারবেন সেই বিন্দুতে ক্লিক করুন।




এরপর সেখান থেকে  Add / remove from list ক্লিক করে Add করতে পারবেন।



এরপর আপনি বামপাশে সাইডবারে নিচের দিকে List অপশন এ ক্লিক করে আপনার তৈরিকৃত লিস্ট গুলো দেখতে পারবেন।

২. আপনার ভিজিটরদের পর্যবেক্ষণ করুন

আপনার ভিজিটরদের প্রতিটি দিক পর্যবেক্ষণ করার কথা মাথায় রেখে, টুইটার তাদের Analytics অপশনটি এনেছে। Analytic অপশন এর মাধ্যমে আপনি আপনার প্রোফাইলে ভিজিটরদের Impression, Engagements, Engagements Rate, Link Click অপশন গুলোর সাথে,  আপনি আপনার ভিজিটরদের বয়স, লিঙ্গ, লোকেশন দেখতে পারবেন। এতে করে আপনার টুইটার একাউন্টের ভিজিটরদের সকল কিছুর পর্যবেক্ষণ সহজে করতে পারবেন।

Analytic অপশনে যেতে আপনাকে যা যা করতে হবে তা হলোঃ

প্রথমে, টুইটারে নিউজফিডে থাকা অবস্থায় বাম পাশে Profile এর নিচে More অপশনে ক্লিক করুন, 


এরপর Analytics এ ক্লিক করুন, এরপর নতুন একটি ট্যাব এ আপনাকে টুইটারের Analytics অপশনে নিয়ে যাবে। এরপর Turn Analytics On এ ক্লিক করুন।

এখান থেকে আপনি প্রত্যেকটি এক্টিভিটি লক্ষ করতে পারবেন।


৩. বুকমার্কে টুইট গুলো Save করুন

টুইটার তাদের এই ফিচারটির মাধ্যমে সকলকে খুব সহজ করে দিয়েছে, টুইট গুলোকে বুকমার্ক করার জন্য। 

এটি করার জন্য আপনার বিশেষ কিছুই করা লাগবে না। প্রথমে যেই টুইটকে আপনি বুকমার্ক করতে চাচ্ছেন সেটির নিচে শেয়ার অপশন এ ক্লিক করুন। 



এরপর Add Tweet to Bookmarks এ ক্লিক করুন। এর পর বামপাশের সাইডবারে Bookmarks ক্লিক করলে, আপনার করা বুকমার্ক গুলো দেখতে পারবেন।


৪. সর্বোশেষ আপডেট টুইট গুলো দেখুন

যে কোন সোশ্যাল মিডিয়ার এলগরিদম গুলো এমন ভাবে কাজ করে, আপনি যেটিকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন, এলগরিদম সেটিকে অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ মনে করে না, যার কারণে আপনি অনেক আপডেট গুলো মিস করে যান। যেটি সত্যি বিরক্তিকর।

কিন্তু টুইটার এমন একটি অপশন চালু করেছে যেটি সত্যি প্রশংসনীয়। এটি আপনাকে সহজে সর্বোশেষ সকল আপডেট টুইট গুলো দেখতে সাহায্য করবে। এতে করে কোন কিছুই মিস হবে না।

অপশনটিতে যেতে হলে আপনাকে যা যা করতে হবে তা হলোঃ

উপরে ডানদিকে তারার মতো একটি বাটন রয়েছে সেটিতে ক্লিক করুন, 



এরপর See latest Tweets instead এ ক্লিক করুন।



এরপর টুইটার সময়ে সময়ে আপনাকে সর্বোশেষ অপডেট টুইট গুলো দেখাবে।

৫. শিডিউল টুইট

টুইটারের আরেকটি অসাধারণ ফিচার হচ্ছে শিডিউল টুইট অপশন। এতে করে নিখুঁত সময়ে টুইট করার জন্য আপনাকে রাত অবধি জেগে থাকা কিংবা একটি নিদিষ্ট সময় ধরে বসে থাকতে হবে না। একটি নির্দিষ্ট সময় সেট করে দিলেই টুইটার নিজেই আপনার দেয়া সেই নির্দিষ্ট সময়ে টুইট করে দিবে।

এটি করার জন্য আপনাকে TweetDeck এ যেতে হবে। টুইটার তাদের এই অপশনটি অফিসিয়াল কোন অ্যাপস এ দেয় নি। আর TweetDeck এর কোন অফিসিয়াল অ্যাপস নেই। আপনি TweetDeck ওয়েব সাইটে গিয়ে করতে হবে। TweetDeck টুইটারের সাব ডোমেইন সাইট।

আপনি এখানে ক্লিক করে যেতে পারেন।

এরপর আপনি লগইন করে Tweet এ ক্লিক করুন, এরপর Schedule Tweet অপশন এ ক্লিক করুন।



এরপর আপনার টুইট লিখা শুরু করুন এবং তারপর তারিখ সময় নির্ধারণ করুন এবং tweet করুন।



সবশেষ করার পর আপনার টুইটটি সময় মতো পোস্ট হয়ে যাবে।

৬. এডভান্স সার্চ অপশন

আপনি ইচ্ছা করলে যে কোন কিছু সহজে লিখে সার্চ করতে পারেন টুইটারে, এতে করে আপনি আপনার সার্চকৃত তথ্য পেয়ে যাবেন। কিন্তু টুইটার আপনার জন্য একটি এডভান্স সার্চ অপশন দিয়েছে যেটির মাধ্যমে আপনি সুনির্দিষ্ট সকল তথ্য সহজে একসাথে পেয়ে যাবে।

যেমন ধরুন আপনি জানতে চাচ্ছেন আজকে বা এই কয়েকদিনের মধ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে টুইটারে কি লিখা লিখি হয়েছে তা সব।

তাহলে আপনি প্রথমে টুইটারে সার্চ বারে ক্লিক করুন, এরপর "Shekh Hasina" যেভাবে ইনভাইটেড কমার মাঝখানে লিখা হয়েছে। তেমনি ভাবে ইনভাইটেড কমা সহ লিখে সার্চ করুন। তাহলে আপনি সুনির্দিষ্ট সব টুইট গুলো দেখতে পারবেন। Latest এ ক্লিক করে Latest আপডেট গুলো দেখতে পারবেন।



যদি চান আপনার আশেপাশে লোকেশনের মধ্য যারা টুইট করেছে তাদের টুইট দেখতে, তাহলে উপরে ডান পাশে Search Filter আইকনে ক্লিক করুন এবং লোকেশন ঠিক করে Apply তে ক্লিক করুন।


তাহলে আপনার লোকেশনের মধ্য টুইট গুলো দেখতে পারবেন।


৭. টুইটারের কিবোর্ডের শর্টকাট

টুইটারের আরেকটি মজার অপশন হচ্ছে টুইটারের কিবোর্ড শর্টকাট। যা আরো সহজ করে দিয়েছে টুইটার ব্যবহারকে। আপনারা অনেকে হয়তো এতদিন খেয়াল করেননি। 

চলুন দেখে আসি কিভাবে ব্যবহার করবেন কিবোর্ড শর্টকাট গুলোঃ

প্রথমে আপনাকে কিবোর্ডের Shift + / তে ক্লিক করতে হবে, টুইটারের ট্যাবে থাকা অবস্থায়। এরপর নিচের মতো একটি পপ-আপ ওপেন হবে। এবং শর্টকাট গুলো দেখাবে। 



যেমন Space বার ক্লিক করলে স্ক্রোল ডাউন হবে অথাৎ নিচে যেতে থাকবে, G + N কমান্ড ক্লিক করলে টুইটারের নোটিফিকেশন দেখাবে।

এইভাবে আপনি শর্টকাট গুলো ব্যবহার করতে পারেন। যেভাবে দেয়া আছে টুইটার থেকে।

৮. আপনার ছবিতে স্টিকার যুক্ত করুন

টুইটার সুধু আপনার ছবি টুইট করার Filter বা Edit অপশন প্রদান করে নি, সাথে স্টিকার যুক্ত করার অপশন ও প্রদান করেছে। এতে করে আপনার ছবিটি আরো সুন্দর্য বৃদ্ধি করে।

চলুন কিভাবে স্টিকার এড করবেন তা দেখে আসিঃ

প্রথমে নতুন টুইটে ক্লিক করুন, এরপর আপনি যে ছবিটি টুইট করতে চান তা বের করুন। 



এরপর আপনার ছবির নিচে ডানদিকে খেয়াল করলে একটি এডিট আইকন দেখতে পারবেন সেখানে ক্লিক করুন, 



তারপর আবার নিচে ডানদিকে খেয়াল করলে দেখতে পারবেন স্মাইলি ইমুজি একটি আইকন রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন। এরপর আপনার পছন্দ অনুযায়ী স্টিকার সিলেক্ট করে টুইট করুন।

৯. সোশ্যাল মিডিয়া হাইলাইটস

যারা টুইটার ব্যবহার করেন না, তাদের জন্য টুইটার একটি অসাধারণ ফিচার এনেছে। অর্থাৎ আপনি যদি টুইটারে Sign Up বা Sign In না করেন ও, তাহলে ও আপনি টুইটারের আপডেট গুলো দেখতে পারবেন। যেমন নিচের ছবিটি খেয়াল করলে দেখতে পারবেন আমরা লগ ইন করা নেই। তবুও টুইট গুলো দেখতে পাচ্ছি।

এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলো, আপনি এখানে ক্লিক করুন। তারপর টুুুুইটারে সার্চবারে পৌছাবেন এবং সেখান থেকে আপনার পছন্দের টপিক লিখে সার্চ দিন। এবং সাইন ইন ছাড়াই টুইটারের হাইলাইটস উপভোগ করুন


১০. আপনার অ্যাকাউন্টে টিমের সদস্যদের এক্সেস দিন

আপনার যদি কোন ব্যান্ড থাকে, কিংবা বড় ধরনের কোন একটি টুইটার একাউন্ট থাকে এক্ষেএে টুইটার একাউন্ট ম্যানেজ করার জন্য আপনার যদি টিমের সদস্যদের এক্সেস দিতে পারেন কিংবা আপনি সোশ্যাল ম্যানেজার নিয়োগ করলে তাহলে তাদের ও এক্সেস দেয়ার প্রয়োজন হতে পারে। এক্ষেএে সহজে আপনি তাদের এক্সেস দিতে পারেন। আপনার টুইটারের পাসওয়ার্ড শেয়ার করা ছাড়াই।

যেভাবে আপনি আপনার টুইটার একাউন্ট এক্সেস দিবেন কোন প্রকার পাসওয়ার্ড শেয়ার করা ছাড়াইঃ

প্রথমে TweetDeck এ প্রবেশ করুন। যদি আপনার অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যে লগ ইন থাকে তাহলে ইমেইল পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করার প্রয়োজন পরবে না। লগ ইন না থাকলে লগ ইন করুন।

এরপর বামদিকে সাইডবারে Account এ ক্লিক করুন, এরপর Manage Team এ ক্লিক করুন।



এর পর আপনি যাকে আপনার অ্যাকাউন্টের এক্সেস দিতে চান তার আইডির নাম লিখুন এবং সিলেক্ট করুন। 



এরপর Authorize সিলেক্ট করুন। তাহলে সে এখন এক্সেস করতে পারবে আপনার টুইটার অ্যাকাউন্টি, আপনি চাইলে যে কোন সময় তার Role পরিবর্তন করে দিতে পারবেন।

১১. অ্যাকাউন্ট, কীওয়ার্ড এবং হ্যাশ ট্যাগ গুলোকে Mute করুন

অনেক সময় আমাদের প্রয়োজন পড়ে যে কোন কারণবশত, কোন অপ্রয়োজনীয় একাউন্টকে বা কীওয়ার্ড কে অথবা কোন হ্যাশ ট্যাগ কে Mute করার।

এক্ষেএে আপনি যে যে প্রসেস গুলো ফলো করতে পারেন তা হলোঃ

প্রথমে আপনার টুইটার অ্যাকাউন্টে লগ ইন অবস্থায় more অপশন থেকে Setting and Privacy তে ক্লিক করুন,



 এরপর Notification থেকে Muted এ ক্লিক করুন, 



এরপর Word থেকে Add এ ক্লিক করে যে যে কীওয়ার্ড বা হ্যাশ ট্যাগ কে Mute করতে চান সেগুলো Add করুন।



যদি কোন টুইটার অ্যাকাউন্ট কে Add করতে চান সেক্ষেত্রে আপনি যা করবেন তা হলোঃ

প্রথমে সেই অ্যাকাউন্টের প্রোফাইলে যান এবং এরপর Follow বাটনের পাশে তিনটি বিন্দুতে ক্লিক করুন। এরপর Mute @username  অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন।



যদি আপনি দেখতে চান আপনি কোন কোন অ্যাকাউন্ট গুলোকে Mute করেছেন সেগুলো। সেক্ষেত্রে আপনি Setting and Privacy তে ক্লিক করুন, এরপর Notification থেকে Muted এ ক্লিক করুন। Mute করা সকল অ্যাকাউন্ট গুলোকে আপনি এখানে দেখতে পারবেন।

১২. দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য ছবিতে ডেসক্রিপশন এডড করুন

টুইটার তাদের সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য যেমন সকল ধরনের সুভিধা এডড করেছে টুইটারে তেমনি যারা দৃষ্টি প্রতিবন্ধী তাদের জন্য ছবিতে ডেসক্রিপশন এর অসাধারণ ফিচারটি এডড করেছে। 

ছবিতে ডেসক্রিপশন এডড করার জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে তা হলোঃ

প্রথমে Setting and Privacy তে ক্লিক করুন এরপর Accessibility ক্লিক করুন এবং সর্বোশেষ Compose Image Description চেকমার্ক দিন।



এরপর নতুন টুইট ওপেন করুন, একটি ছবি সিলেক্ট করুন এবং তারপর লক্ষ করলে দেখতে পারবেন Add Description নামের একটি অপশন এসেছে ছবির নিচে সেখানে আপনার ছবির ডেসক্রিপশন এডড করুন।



এতে করে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীরা Talkbalk মোডে আপনার ডেসক্রিপশনটি সহজে শুনতে পারবে।

১৩. মোবাইলে টুইটারের নোটিফিকেশন গুলোকে অফ মোড করুন

টুইটার কখনো চায় না টুইটারের নোটিফিকেশন গুলো আপনার ডিস্টার্ব এর কারণ হোক। তাই তারা এই অপশনটি নিয়ে এসেছে। নোটিফিকেশান অফ করে দিলে আপনাকে আর পাঠাবে না কোন নোটিফিকেশন।

এটির জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে তা হলোঃ

প্রথমে Setting and Privacy অপশনে ক্লিক করুন, এরপর Notification এ ক্লিক করুন। যদি আপনার ফোন নাম্বারটি এডড না থাকে সেটিকে এড করে Verify করুন। এর পর নোটিফিকেশন থেকে PHONE এ ক্লিক করুন। এর পর আপনার মতো করে অফ করে দিন নোটিফিকেশন।



এতে টুইটার আপনাকে আর কোন প্রকার নোটিফিকেশন প্রেরন করবে না।

১৪. অ্যাকাউন্ট এক্সেসের হিস্টোরি

আমরা অনেক সময় কোথাও সহজে Sign Up করার সময় টুইটার অ্যাকাউন্টের এক্সেস দিয়ে Sign Up করে ফেলি। যার কারণে Third Party আমাদের টুইটার অ্যাকাউন্টের এক্সেস পেয়ে যায়। 

আমাদের সব সময় এসবের দিকে নজর রাখা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে আপনি যা যা করতে পারেন তা হলোঃ

প্রথমে Setting and Privecy তে যান এরপর Account থেকে Your Twitter Data তে ক্লিক করুন, এরপর  Account History। এখানে আপনার টুইটার অ্যাকাউন্টের যাবতীয় ইতিহাস দেখতে পারবেন। এবং সকল এক্সেস গুলো দেখতে পারবেন সহজে।

১৫. টুইটার অ্যাকাউন্ট দ্বারা লগইন করা অ্যাপস গুলো ট্র্যাক করুন

যেহেতু টুইটার আপনাকে Third Party অ্যাপস গুলোতে Sign Up করার ক্ষেএে আপনার টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে দেয়। সেহেতু টুইটার আবার সকল কিছুর তথ্য আপনাকে সরবারহ করে থাকে। আপনি কখন কোন অ্যাপস এ লগইন করেছেন টুইটার অ্যাকাউন্ট দ্বারা সে সকল তথ্য।

তাই আপনার একাউন্টে অ্যাপস এক্সেস দেখার ক্ষেএে যা যা করতে হবে তা হলোঃ

প্রথমে Setting and Privecy তে যান এরপর Account থেকে Your Twitter Data তে ক্লিক করুন, এরপর  Apps, Devices & Information ক্লিক করুন। এখানে সব অ্যাপস এর নাম গুলো আপনি দেখতে পারবেন যেগুলোকে এক্সেস দিয়ে আপনি সাইন আপ করেছিলেন।


যদি কোন অ্যাপস কে রিমুভ করতে চান এক্সেস থেকে, সেক্ষেএে সে অ্যাপসটির নামের ডান পাশে Revoke Access এ ক্লিক করুন। আর এক্সেস থেকে রিমুভ করে দিন।

আশা করি ১৫ টি টিপস এবং ট্রিক্স গুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। এগুলো সুধু টিপস এবং ট্রিক্স নয় বরং এগুলো আপনাকে টুইটার ব্যবহারে অনেক সাহায্য করবে। কিভাবে Third Party অ্যাপস গুলো রিমুভ করবেন। বা চাইলে যাকে তাকে এক্সেস দিতে পারবেন কিভাবে আপনার একাউন্ট সুরক্ষিত রাখবেন এসকল কিছু.

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?