Ordinary IT https://www.ordinaryit.com/2020/01/powerpoint.html

১০টি সেরা মাইক্রোসফট পাওয়ার পয়েন্টের বিকল্প সফটওয়্যার

আপনারা প্রেজেন্টেশনের কাজে, প্রেজেন্টেশন তৈরির জন্য প্রথমেই যে অ্যাপ্লিকেশনটির কথা ভাবেন তা হচ্ছে মাইক্রোসফট পাওয়ার পয়েন্ট। অনেক প্রফেশনালি ডিজাইন করা টেম্পলেট, লে-আউট, ফন্ট, আইকন সমৃদ্ধ একটি প্লাটফরম হল MS পাওয়ার পয়েন্ট, যার মাধ্যমে প্রেজেন্টেশন তৈরি, পরিবর্তন, পরিমার্জন করে উপস্থাপন করা যায়।


এম.এস পাওয়ার পয়েন্ট ব্যবহারকারীদের ভিজুয়াল টেম্পলেট সেবা দানে ব্যর্থ। এছাড়াও  এম.এস পাওয়ার পয়েন্ট সেবাটি বেশ ব্যয়বহুল (129.99 $/ year ) । এই পরিমাণ ব্যয় আপনাদের অনেকের কাছেই অনেক অনেক বেশি। এই সকল সমস্যা সমাধানে আপনাদের সহযোগিতায় লাগতে পারে এমন ২০১৯ সালের সেরা ১০ টি এম.এস পাওয়ার পয়েন্ট এর পরিবর্তে ব্যাবহার উপযোগী অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে আজকের আলোচনা।  

কোন প্রেজেন্টেশন অ্যাপ্লিকেশন আপনি ব্যবহার করবেন?

মনে রাখবেন, শুধু মাত্র শব্দ, ভিডিও, ছবি আপনার প্রেজেন্টেশন আকর্ষণীয় করতে পারবেনা। একটি প্রেজেন্টেশন এর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ থাকে:
  • একটি সুন্দরভাবে সাজানো টেম্পলেট যা দর্শকের মনোযোগ আকৃষ্ট করতে পারে
  • গুছানো লে-আউট
  • আইডিয়া বা ধারনার সুন্দর উপস্থাপন    
মোট কথায় প্রেজেন্টেশন তৈরিতে কার্যকারী, ব্যয়বহুল নয় এমনই একটি অ্যাপ্লিকেশন আপনার প্রয়োজন। আপনার প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখেই এখানে ২০১৯ সালের সেরা ১০ টি প্রেজেন্টেশন অ্যাপ্লিকেশন এর পরিচয় তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

1. Prezi (প্রেজি)

Prezi: প্রেজেন্টেশন তৈরির ক্ষেত্রে হতে পারে আপনার সেরা সমাধান। এখানে আপনি পাবেন ভিন্ন ভিন্ন টেম্পলেট যা আপনার ব্যবসা, শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যবহার উপযোগী। ছবি বা ইমেজ কাস্টমাইজড, লে-আউট, চার্ট সমৃদ্ধ এ অ্যাপ্লিকেশনটি চাহিদা মত কাজে আপনার সহযোগী হতে পারে।

সুবিধা:

  • অনলাইন প্রেজেন্টেশন সুবিধা
  • অনেক টেম্পলেট সমৃদ্ধ
  • প্রেজেন্টেশন পুনঃ ব্যবহার করার সুবিধা
  • বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায়

অসুবিধা:

  • ফাইল সংযুক্তিকরণ প্রক্রিয়াটি ধীরগতির হয়ে থাকে।

2. LibreOffice Impress (লিবরি অফিস ইমপ্রেস)

LibreOffice Impress: প্রেজেন্টেশন তৈরিতে কার্যকারী, ব্যয়বহুল নয় এমনই একটি অ্যাপ্লিকেশন। এই অ্যাপ্লিকেশনটি কষ্ট ফ্রি ও ওপেন সোর্স অ্যাপ্লিকেশন। ২ডি ও ৩ডি ছবি  তৈরিতে কার্যকারী । স্লাইড অ্যানিমেশন, আলাদা ভিউ মুড, সহজে স্লাইড তৈরিতে  লিবরি অফিস ইমপ্রেস কার্যকারী। বিভিন্ন ধরনের ড্রইং ও ডায়াগ্রাম টুলস প্রেজেন্টেশনকে আকর্ষণীয় করতে সাহায্য করবে।

সুবিধা:

  • কষ্ট ফ্রি ও ওপেন সোর্স
  • অনেক আলাদা আলাদা ভিউ মুড
  • বিভিন্ন ধরনের ড্রইং ও ডায়াগ্রাম টুলস
  • ২ডি ও ৩ডি ছবি  তৈরির অপশন

অসুবিধা:

  • ইউজার ইন্টারফেস ততটা আকর্ষণীয় নয়
  • এম.এস পাওয়ার পয়েন্ট থেকে টুলস কম

3. Zoho Show (যোহো শো)

Zoho Show:  এম.এস পাওয়ার পয়েন্টের মতই। যদি আপনি একজন শিক্ষক বা ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন এবং আপনাকে একটি আকর্ষণীয় প্রেজেন্টেশন তৈরি করতে হয় তাহলে যোহো সো আপনার জন্য একটি সময়োপযোগী অ্যাপ্লিকেশন। এটির একটি লক্ষণীয় বিষয় অ্যাপ্লিকেশনটি নির্ভুল ভাবে প্রেজেন্টেশন তৈরিতে আপনাকে সাহায্য করবে। এটির একটি ফ্রি ভার্সন রয়েছে যা ছাত্ররা এবং যারা এম.এস পাওয়ার পয়েন্টের মত ব্যয়বহুল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন না তারা ব্যবহার করতে পারেন।

সুবিধা:

  •  ফ্রি ভার্সন রয়েছে
  •  অনেক টেম্পলেট সমৃদ্ধ
  •  নির্ভুল ভাবে প্রেজেন্টেশন তৈরি

অসুবিধা:

  • ফাইল সাইজে সীমাবদ্ধতা থাকার কারণে মাঝে মাঝে এটি ব্যবহারে বিরক্তি আসে।

4. Haiku Deck (আইকু ডেক)

Haiku Deck: সেই সকল ব্যবহারকারীদের জন্য যারা এম.এস পাওয়ার পয়েন্টের সকল ফিচার সহজভাবে একটি ইন্টারফেসে পেতে চাই। এখানে রয়েছে ৪০ মিলিয়নের বেশি ছবি যা আপনার প্রেজেন্টেশনকে অন্যদের থেকে আলাদা করতে সাহায্য করবে। আপনি অনেক অনেক সুন্দর সুন্দর ফন্ট, লে-আউট, ইমেজ, ফিল্টার থেকে নিজের পছন্দ অনুসারে প্রেজেন্টেশন সাজাতে পারবেন।অন্য যেকোনো অ্যাপ্লিকেশনের থেকে বেশি ফিচার সমৃদ্ধ আইকু ডেক।

সুবিধা:

  • বেশি ফিচার সমৃদ্ধ
  • সহজেই ব্যবহার করা যায়
  • অনেক টেম্পলেট সমৃদ্ধ
  • এখানে রয়েছে ৪০ মিলিয়নের বেশি ছবি

অসুবিধা:

  •  ব্যয়বহুল $9.99/month ($119.88 billed annually)

5. Google Slides (গুগল স্লাইড)

Google Slides: গুগল স্লাইডে থাকছে বহু সজ্জিত টেম্পলেট যাতে করে আপনি জটিলতা এড়িয়ে তৈরি করতে পারেন উচ্চ মানসম্পন্ন প্রেজেন্টেশন।আপনি প্রেজেন্টেশনের মান  বৃদ্ধির জন্য ইমেজ বা ছবি, ভিডিও, ড্রইং  ব্যবহার করতে পারেন। এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে একই প্রেজেন্টেশনে টিম গঠনের মাধ্যমে কাজ করতে পারবেন। পুনঃ যাচাই টুল ব্যবহার করে পুনঃ যাচাই করে প্রেজেন্টেশনকে সুন্দর করতে আপনাকে সাহায্য করবে।

সুবিধা:

  • থাকছে বহু সজ্জিত টেম্পলেট
  • ভাল মানের ট্রানজিশান করা যায়
  • কার্যকারী কলাবরেশন 

অসুবিধা:

  • কিছু ট্রানজিশান সঠিকভাবে কাজ করেনা

6. Visme (ভীষ্মই)

Visme: টেম্পলেটের অন্যতম বৃহৎ কালেকশন সমৃদ্ধ,সুন্দর সুন্দর ছবি, আইকন, ফন্ট সমৃদ্ধ একটি প্রেজেন্টেশন অ্যাপ্লিকেশন ভীষ্মই। এর Pro টুল আপনার প্রেজেন্টেশনকে অনন্য সুন্দর করে তুলতে পারে। প্রফেশনাল ব্যবহারকারীদের জন্য আদর্শ একটি অ্যাপ্লিকেশন।আপনার চাহিদা অনুযায়ী অডিও, ভিডিও, লিংক, চার্ট, ম্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।

সুবিধা:

  • Pro টুলের সমৃদ্ধ কালেকশন
  • অডিও, ভিডিও, লিংক, চার্ট, ম্যাপ ব্যবহার
  • অন্যতম বৃহৎ কালেকশন সমৃদ্ধ,সুন্দর সুন্দর ছবি, আইকন, ফন্ট সমৃদ্ধ

অসুবিধা:

  • মাল্টিমিডিয়া ব্যবহারে কিছু অসুবিধা দেখা যায়

7. OnlyOffice (অনলি অফিস)

OnlyOffice: সহজ একটি প্রেজেন্টেশন অ্যাপ্লিকেশন হিসাবে অনলি অফিস সুপরিচিত। এটি একটি ওপেন সোর্স অ্যাপলিকেশন। এই অ্যাপ্লিকেশনে পরিষ্কার ইন্টারফেসের উপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। দ্রুত স্লাইড শো প্রেজেন্টেশন তৈরি, পূর্বের প্রেজেন্টেশন পরিবর্তন, পরিমার্জন, কর্তন ও বর্ধন খুব সহজ। ফাইল PDF, PPT, PPTX, and ODP ফরম্যাটে শেভ করে রাখা যায়। ভিউ মুড ব্যবহার করে প্রেজেন্টেশনের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হাইলাইট করার মাধ্যমে প্রেজেন্টেশন সহজ ও কার্যকারী ভাবে উপস্থাপন করা যায়।

সুবিধা:

  • ওপেন সোর্স অ্যাপলিকেশন
  • ব্যবহার করা খুব সহজ

অসুবিধা:

  • ব্যয়বহুল $1200/per one server (lifetime license)

8. Keynote (কিনোট)

Keynote: এটি একটি অ্যাপল অ্যাপ্লিকেশন। এখানে রয়েছে অনেক কাস্টমাইজেশন বিকল্প, পরিষ্কার ইন্টারফেস, উন্নতমানের প্রেজেন্টেশন টুল। পাওয়ার পয়েন্টের মতই এখানে রয়েছে চার্ট, ডায়াগ্রাম, লে-আউট, ফন্ট, স্টাইল অপশন। এর মাধ্যমে আপনি Mail, WebDAV service or iTunes File Sharing এর মত সেবা ব্যবহার করে আপনার প্রেজেন্টেশন আরও সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবেন।

সুবিধা:

  • আকর্ষণীয় অ্যানিমেশন
  • শুধুমাত্র অ্যাপল ডিজাইন থিম

অসুবিধা:

  • অ্যাপ্লিকেশনটি Windows and Android এ ব্যবহার করা যায় না

9. Canva (ক্যানভা)

Canva: আপনার প্রেজেন্টেশনকে হাস্যরসাত্মক করে উপস্থাপন করতে চাইলে এই অ্যাপ্লিকেশনটির বিকল্প নেই। অনেক ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ, আকর্ষণীয় টেম্পলেট ও ফিল্টার  আপনার প্রেজেন্টেশনকে করে তুলতে পারে মহনীয় ও রসাত্মক। এছাড়াও এখানে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের গ্রিড, চার্ট, ফ্রেম যা আপনাকে গুনগত প্রেজেন্টেশন প্রস্তুত করতে সাহায্য করবে। ক্যানভা সুন্দর ও মহনীয় প্রেজেন্টেশন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গ্রাফিক্স তৈরিতে এক অনন্য অ্যাপ্লিকেশন ।

সুবিধা:

  • অনেক ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ, আকর্ষণীয় টেম্পলেট ও ফিল্টার
  • মিলিয়ন মিলিয়ন ইমেজ

অসুবিধা:

  • অ্যাপ্লিকেশনটি সম্পূর্ণ কার্যক্ষম হতে একটু সময় নেয়

10. SlideDog (স্লাইড ডগ)

SlideDog: স্লাইড ডগ সকল উপাদানকে অরিজিনাল ফরম্যাটে সংরক্ষণ করে। লাইভ ফিচারটি ব্যবহার করে আপনি আপনার প্রেজেন্টেশন সরাসরি সম্প্রচার করতে পারেন।লাইভ প্রেজেন্টেশনে সকল অংশগ্রহণকারী একটি লিংক পাবে এবং লিংকটিতে ক্লিক করার মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার দেখতে পারবে। খুব সহজেই আপনি প্রেজেন্টেশন নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন, যেমন একাধিক ফাইলের মধ্যে একটি পছন্দ করা, স্লাইড পরিবর্তন ইত্যাদি।

সুবিধা:

  • শক্তিশালী মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন তৈরি করা যায়
  • কার্যকারী ভাবে Prezis, PDFs, PowerPoints মধ্যে সমন্বয় করা যায়
  • সকল উপাদানকে অরিজিনাল ফরম্যাটে সংরক্ষণ

অসুবিধা:

  • সময়ে সময়ে বিরক্তি উৎপন্ন করে
উপরের আলোচনায় সেরা ১০ টি এম.এস পাওয়ার পয়েন্টের বিকল্প অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে কার্যকারী তথ্য যুক্ত করার মাধ্যমে আপনাদের উপকারে আসে এমন কিছু দেয়ার চেষ্টা করেছি। আশা করছি আপনদের ভাল লেগেছে। ভাল লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। আজ এই পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?