অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2022/06/lebu.html

লেবুর ৩০টি উপকারিতা ও অপকারিতার বিস্তারিত বিশ্লেষণ

লেবু পছন্দ করে না এমন মানুষ খুব কম আছে। লেবু দিয়ে ভাত খাওয়া সহ আরও বিভিন্ন কাজে লেবু ব্যবহার করা হয়। লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা রয়েছে অনেক। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বেলুর প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। রূপ চর্চা থেকে শুরু করে খাওয়া পর্যন্ত প্রায় সকল কাজেই লেবু ব্যবহার করা হয়।

চলুন লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, ত্বকে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, পাতি লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, লেবুর খোসার ব্যবহার, লেবুর খোসা খাওয়ার নিয়ম, চুলে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, লেবুর উপকারিতা চুলের জন্য, অতিরিক্ত লেবু খাওয়ার উপকারিতা, গরম পানিতে লেবু খাওয়ার উপকারিতা, খালি পেটে লেবু খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেই।

পেজ সূচীপত্রঃ লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা

লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা

উপকারিতাঃ

  • লেবুতে ভিটামিন সি থাকে যা এন্টিসেপটিক হিসেবে কাজ করে এবং ঠান্ডা লাগা প্রতিরোধ করে।
  • লেবু শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে।
  • লেবু শ্বাসনালীর ও গলার প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে।
  • লেবু বুক জ্বালা ও আলসার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।
  • গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে পরিপাক প্রক্রিয়াকে কার্যকর ও লিভার সুস্থ রাখে।
  • ব্রণে লেবুর রস দিলে ব্রণ দূর হয়।
  • লেবুর রস ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

অপকারিতাঃ

  • অতিরিক্ত লেবু গ্যাসের সমস্যা সৃষ্টি করে, তাই অতিরিক্ত লেবু খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকলে অতিরিক্ত লেবু খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে, কারণ অতিরিক্ত লেবু খেলে বুক জ্বালা করে।
  • বেশী পরিমানে লেবু ও লেবুর শরবত পান করলে পেটে ও তলপেটে ব্যাথা হতে পারে।
  • বেশী পরিমানে লেবুর শরবত পান করলে শরীর দূর্বল লাগতে পারে।
  • শরীরের ওজন কমানোর জন্য একটানা লেবু খেলে কার্বোহাইড্রেট ও অন্যান্য পুষ্টিগুনের অভাব দেখা দিতে পারে।

ত্বকে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা

ত্বকে লেবুর উপকারিতাঃ
  • লেবু মুখের কালো দাগ কমাতে সাহায্য করে।
  • লেবু মাথার খুশকি দূর করে।
  • লেবুতে ভিটামিন সি আছে যা অকাল বয়সের ছাপ দূর করে।
  • লেবু হাতের বা পায়ের কনুই এর কালচে ভাব দূর করে।
  • লেবু আর বেকিং সোডা দিয়ে একসাথে মিশিয়ে দাঁত মাজলে দাঁতের হলুদভাব দূর হয় ও দাঁত ঝকঝক করে।
  • লেবু ও লাল চিনি একসাথে মিশিয়ে ঠোঁটে ব্যবহার করলে ঠোঁটের মৃত কোষ দূর হয়।
ত্বকে লেবুর অপকারিতাঃ
ত্বকের জন্য লেবুর উপকারিতা অনেক। কিন্তু কখনও ভুলেও সরাসরি লেবু মুখে মাখবেন না। এতে আপনার ত্বক পুড়ে যেতে পারে কারণ লেবুর রস প্রচণ্ড অ্যাসিডধর্মী। ত্বকের লেবু ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন ধরনের উপাদানের সাথে মিশিয়ে লেবু ব্যবহার করুন।

পাতি লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা

পাতি লেবুর উপকারিতাঃ
  • পাতি লেবুতে আছে ফাইবার, ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ফোলেট, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম।
  • পাতি লেবু খেলে দেহের চর্বি কাটে ও ওজন কমাতে সাহায্য করে।
  • পাতি লেবু পেটের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে উপযোগী।
  • পাতি লেবুতে সাইট্রেট থাকে যা কিডনিতে পাথর হতে বাঁধা দেয়। 
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে পাতি লেবুর পানি খেলে হজম শক্তি বাড়ে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।
  • পাতি লেবুতে থাকা ভিটামিন সি শাক-সব্জিতে থাকা আয়রন শোষণ করে যার ফলে রক্তস্বল্পতা কমে।
পাতি লেবুর অপকারিতাঃ
পাতি লেবু খেলে যেমন উপকারিতা আছে তেমনভাবে অপকারিতাও আছে। পাতি লেবুও বেশী পরিমানে খেলে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যেতে পারে। অ্যাসিডিটির সমস্যাও হতে পারে। তাই যদি আপনি নিয়মত পাতি লেবু খান তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের সাথে পরামর্শ নিবেন।

লেবুর খোসার ব্যবহার

  • লেবুর খোসা ফেস স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এক মুঠো লেবুর খোসার পেস্টের মধ্যে ১ থেকে ২ কাপ চিনি ও ত্বকের ধরণ বুঝে ওলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। এবার এই পেস্টটি ভেজা ত্বকে আলতোভাবে ঘষে লাগিয়ে নিন ও পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই স্ক্রাবটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন। এই স্ক্রাব ব্যবহারে আপনার ত্বক উজ্জ্বল হবে।
  • এক চিমটি লেবুর খোসার গুড়ার সাথে ২ টেবিল চামচ চালের গুড়া ও ঠান্ডা দুধ দিয়ে একটি পেস্ট তৈরী করে আপনার ত্বকে ব্যবহার করুন। এতে আপনার মৃত কোষ গুলোকে জীবিত করে তুলবে।
  • ঘরের আসবাবপত্র ও অন্যান্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র জীবানুমুক্ত রাখতে লেবুর খোসা ব্যবহার করুন। লেবুর খোসা পানি দিয়ে সিদ্ধ করে ছেঁকে নিন এবং এই পানির মধ্যে ভিনেগার বা বেকিং সোডা মিশিয়ে ব্যবহার করুন।
  • পা ফাটা রোধ করতে লেবুর খোসার গুঁড়োতে পেট্রোলিয়াম জেলি মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরী করুন এবং এটি ফাটা স্থানে লাগিয়ে পায়ে মোজা পড়ুন এবং কয়েকঘন্টা রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে পা ধুয়ে নিন, এটি ব্যবহারে পা নরম ও স্বাস্থ্যকর দেখাবে।
  • পোকা মাকড়ের উপদ্রব কমাতে লেবুর খোসা ব্যবহার করতে পারেন। 
  • রুম ফ্রেশনার হিসেবে লেবুর খোসা ব্যবহার করুন। তার জন্য শুকনো ফুল এবগ যেকোন ধরনের তেলের সাথে লেবুর খোসা মেশান, তারপর সাইট্রাস-সুগন্ধযুক্ত মিশ্রণটি একটি পরিষ্কার স্প্রে বোতলে নিয়ে ঘরে স্প্রে করুন।

লেবুর খোসা খাওয়ার নিয়ম

লেবুর পাশাপাশি লেবুর খোসাও খুব উপকারী। লেবুর খোসা খেলে বিভিন্ন ধরনের রোগ ভালো হয়। লেবুর খোসায় ভিটামিন সি ও সাইট্রিক এসিড থাকে যা আমাদের দাঁতের মাড়ি থেকে রক্ত পড়া ও জিঞ্জিতাইটিসসহ একাধিক রোগ প্রতিরোধ করে। এছাড়াও লেবুর খোসায় আছে সাইট্রাস বায়ো ফ্লেভোনয়েড যা শরীরের স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে।

চুলে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা | লেবুর উপকারিতা চুলের জন্য

চুলে লেবুর উপকারিতাঃ
  • লেবুতে আছে সাইট্রিক এসিড, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও ভিটামিন সি যা চুল দ্রুত বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।
  • চুল ঝলমলে ও তাড়াতাড়ি লম্বা করতে নারকেল তেল, জলপাই তেল ও লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে চুলে নিয়মিত ব্যবহার করুন।
  • চুল পড়া কমাতে চুলে লেবুর রস, ভিনেগার ও লবনের মিশ্রণ লাগান।
  • ৩ সপ্তাহে একবার করে চুলে লেবুর রস ও জলপাই তেল একসাথে মিশিয়ে চুলের আগায় লাগান এতে চুলের আগা ফাটা কমবে।
  • প্রাকৃতিকভাবে চুল ঝলমলে করতে লেবুর সাথে নারকেলের পানি মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করুন, এটি কন্ডিশনারের কাজ করবে।

অতিরিক্ত লেবু খাওয়ার উপকারিতা

অতিরিক্ত লেবু খেলে রক্তে আয়রনের পরিমান বাড়ায়। কারণ অতরিক্ত পরিমানে লেবু খেলে শরীরে ভিটামিন সি এর পরিমান বেড়ে যায় যেটা রক্তে অধিক পরিমানে আয়রন সংরক্ষণ করে।

গরম পানিতে লেবু খাওয়ার উপকারিতা

  • লেবুতে আছে ভিটামিন 'সি', পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, যা শরীরের পুষ্টির ঘাটতি পূরন করে এবং লিভার থেকে ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান বের করে দেয়।
  • সকালে খালি পেটে গরম পানির সাথে লেবুর রস খেলে শরীরের পিএইচ এর ভারসাম্য ঠিক রাখে যা শরীরের কর্মক্ষমতা বাড়ায়।
  • লেবু ত্বকে ব্যবহার করলে চেহারার বয়সের ছাপ কমায়।
  • প্রতিদিন সকালে হালকা গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে সারাদিনের হজমশক্তি বাড়ে।
  • লেবুতে থাকা ভিটামিন সি দেহের হরমোন সক্রিয় রাখে এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন করে।
  • লেবুর ভিটামিন সি স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে, তাই লেবুর শরবতে চিনি না খাওয়া ভালো।
  • লেবু শরীরের অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের চাহিদা পূরণ করে এবং কিডনিকে পাথর হওয়া থেকে প্রতিরোধ করে।

খালি পেটে লেবু খাওয়ার উপকারিতা

খালি পেটে লেবু খেলে অনেক রকমের উপকার হয়। চলুন খালি পেটে লেবু খাওয়ার উপকারিতা কি তা দেখে নেই।
  • খালি পেটে লেবু খেলে শরীরের মেদের পরিমান কমে।
  • খালি পেটে লেবু খেলে হজমে সাহায্য করে ও পেটের সমস্যা স্বাভাবিক ভাবে সমাধান করে।
  • লেবুতে সাইট্রিক এসিড থাকে যা মূত্রের পরিমান বাড়ায় ও কিডনির কার্যক্ষমতা সক্রিয় করে।
  • লেবু ইমিউনিটি বাড়ায়। লেবুতে থাকা অ্যাসকর্বিক অ্যাসিড ও ভিটামিন সি শরীরের অনাক্রম্যতা বাড়ায়  ও জ্বর, সর্দি, ঠান্ডা লাগা থেকে দূরে রাখে।
  • লেবু ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। মেজাজ চাঙ্গা করে।
  • লেবুতে পটাসিয়াম, ভিটামিন বি থাকে যা রক্তস্বল্পতা দূর করে।
পরিশেষে আমরা বলতে পারি, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা অনেক। আজ আমরা আমাদের এই লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা পোস্টে ত্বকে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, পাতি লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, লেবুর খোসার ব্যবহার, লেবুর খোসা খাওয়ার নিয়ম, চুলে লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা, লেবুর উপকারিতা চুলের জন্য, অতিরিক্ত লেবু খাওয়ার উপকারিতা, গরম পানিতে লেবু খাওয়ার উপকারিতা, খালি পেটে লেবু খাওয়ার উপকারিতা নিয়ে আলোচনা করেছি।

আশাকরি, আমাদের এই লেবুর উপকারিতা ও অপকারিতা পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে এবং আপানারা উপকৃত হবেন, ধন্যবাদ।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

1 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

  1. আমি এক বছর ধরে খালি পেটে লেবুর জল খাচ্ছি কিন্তু ওজন কমার বদলে বেরে যাচ্ছে
    তাহলে কি করব বুঝতে পারছি না

    উত্তরমুছুন

অর্ডিনারি আইটি কী?