অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2021/07/Army-Circular.html

সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার - Army Circular 2021 BD

দেখুন সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার বিজ্ঞপ্তি। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার ও আর্মি সার্কুলার ২০২১ দেখুন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার ও www.army.mil.bd 2021 এর বিস্তারিত পড়ুন।


সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭৮ তম ডিএসএসসি (এএমসি) এবং ৬৫ তম ডিএসএসসি (এডিসি) - পুরুষ/মহিলা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার। আপনি কি আর্মি সার্কুলার ২০২১ বা army job circular 2021 খুঁজছেন? www.army.mil.bd 2021 | Army Civil Job Circular 2021 এর সর্বশেষ তথ্য পেতে আমাদের পোস্ট করতে থাকুন আমাদের সাথেই থাকুন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার সৈনিক পদে | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার

বেশ অনেকদিন ধরেই সবাই প্রত্যাশিত ছিল বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ এর দিকে।। আর সেই প্রত্যাশায় অবসান ঘটে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে শর্ট কোর্স বা কমিশন্ড অফিসার র‍্যাংকে নিয়োগ সার্কুলার ২০২১ প্রকাশিত হয়েছে। আমাদের আজকের পোস্টে আপনি সেনাবাহিনীতে চাকরির জন্য শরট কোর্স বা স্পেশল কোর্স এর যাবতীয় ডিটেলস যেমন- কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন বা কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন এবং আবেদন কিভাবে করতে হবে, পরীক্ষা কিভাবে দিতে হবে তার সম্পর্কে সমস্ত ডিটেলস আপনাদেরকে জানানো হবে।

অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন কমিশন্ড অফিসার র‍্যাংক কি? বা এনারাই কি আর্মির আসল অফিসার? হ্যাঁ আসলে কমিশন্ড অফিসার রেংক এ যে সমস্ত ক্যাডেট জয়েন করেন তারা তিন বছর ট্রেনিং শেষ করে অফিসে যোগদান করেন। এ ট্রেনিং পিরিওড তিন বছর চলে লং কোর্স এর ক্ষেত্রে। ঠিক একইভাবে শরট কোর্সেও গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করার পরে এপ্লাই করা যায়। যেখানে প্রায় ছয় মাস ট্রেনিং করার পরবর্তীতে তারা ব্যাংক হিসেবে সরাসরি ক্যাপ্টেন পদে যোগদান করবেন। এটা মূলত একটি অফিসার পদমর্যাদা।

army job circular 2021 | www.army.mil.bd 2021 | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার


বর্তমানে প্রকাশিত সার্কুলার স্পেশাল কোর্স বা শর্ট কোর্সের জন্য। যেটি সরাসরি ক্যাপ্টেন পদে নিয়োগ দিবে। আর এই নিয়োগের জন্য বেশ কিছু প্রাথমিক উপযুক্ততা যাচাই করা হবে চলুন সে সমস্ত কিছু দেখে নিই-

আবেদনের স্বাভাবিক যোগ্যতাঃ

আপনাকে এখানে আবেদন করার জন্য বেশকিছু প্রাথমিক শর্ত পূরণ করতে হবে। সেসমস্ত শর্ত সমূহ হলো-

ক) বয়সঃ
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭৮ তম ডিএসএসসি (এএমসি) এবং ৬৫ তম ডিএসএসসি (এডিসি) - পুরুষ/মহিলা এর জন্য আপনার বয়স ০১ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে সর্বোচ্চ ২৮ বছর পর্যন্ত আবেদনের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। এক্ষেত্রে কোনো এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

খ) শারীরিক যোগ্যতা সমূহঃ
শারীরিক যোগ্যতার ক্ষেত্রে পুরুষ মহিলার কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে। চলুন দেখে নেই কি কি ভিন্নতা রয়েছে-

১. পুরুষঃ
এ ক্ষেত্রে পুরুষের উচ্চতা সর্বোচ্চ ৫ফুট ৪ ইঞ্চি বা ১.৬৩ মিটার সর্বনিম্ন হতে হবে। এরকম হলে আবেদনের জন্য বাতিল বলে বিবেচিত হবে। ওজন সর্বোচ্চ ৫৭ কেজি বা ১২৬ পাউন্ড গ্রহণযোগ্য। অন্যদিকে বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি বা ০.৭৬ মিটার এবং প্রসারিত অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি বা ০.৮১মিটার কমপক্ষে হতে হবে।

২. মহিলাঃ
এ ক্ষেত্রে মহিলাদের উচ্চতা সর্বোচ্চ ৫ফুট ২ ইঞ্চি বা ১.৫৭ মিটার সর্বনিম্ন হতে হবে। এরকম হলে আবেদনের জন্য বাতিল বলে বিবেচিত হবে। ওজন সর্বোচ্চ ৪৯ কেজি বা ১০৯ পাউন্ড গ্রহণযোগ্য। অন্যদিকে বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ২৮ ইঞ্চি বা ০.৭১ মিটার এবং প্রসারিত অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি বা ০.৭৬ মিটার কমপক্ষে হতে হবে।

তবে উল্লেখ্য যে, বয়স এবং উচ্চতা অনুসারে ওজন কে বিবেচনা করা হবে। এ ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ওজন হলে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

গ) বৈবাহিক অবস্থাঃ
এক্ষেত্রে নারী পুরুষের ক্ষেত্রে কিছু নির্দিষ্ট বিধি বিধান রয়েছে। যেমন-

১. পুরুষঃ 
কোন পুরুষের বয়স যদি ০১লা (পহেলা) জানুয়ারি ২০২২ তারিখে ২৬ বছরের উপরে হয় তবে বিবাহিত ব্যক্তিগণ উক্ত পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কিন্তু ২৬ বছরের কম হলে সে ক্ষেত্রে অবশ্য প্রার্থীকে অবিবাহিত হতে হবে।

২.নারীঃ 
এক্ষেত্রে নারীর প্রার্থীগণের কোন বিধান নেই। বিবাহিতা এবং অবিবাহিতা উভয় প্রার্থীগণ উক্ত পদের জন্য উপযোগী বলে বিবেচিত।

ঘ) জাতীয়তাঃ
আবেদনকারীকে অবশ্যই জন্মসূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

এই ছিল মোটামুটি ভাবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ এর জন্য কিছু সাধারণ যোগ্যতা। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক আরো অন্যান্য কিছু প্রয়োজনীয় শর্ত সমূহ।


বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বেসামরিক নিয়োগ ২০২১ | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | আর্মি সার্কুলার ২০২১

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর স্পেশাল কোর্স এ শর্ট কোর্সে এপ্লাই করার জন্য শিক্ষাগত ন্যূনতম যোগ্যতার প্রয়োজন রয়েছে। যার উপর ভিত্তি করে প্রার্থীকে নিয়োগ প্রদান করা হবে। আর্মি মেডিকেল কোর এবং আর্মি ডেন্টাল কোর এর প্রার্থীদের জন্য এবার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

ক) আর্মি মেডিকেল কোর (পুরুষ এবং মহিলা) নিয়োগঃ
আর্মি মেডিকেল কোর এর জন্য এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় প্রার্থীকে অবশ্যই জিপিএ-৫ পেতে হবে। এবং পরবর্তীতে সরকার কর্তৃক স্বীকৃত এবং অনুমোদিত মেডিকেল কলেজ হতে এমবিবিএস ডিগ্রিধারী হতে হবে। তবে অবশ্যই এক্ষেত্রে ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করতে হবে।

খ) আর্মি ডেন্টাল কোর (পুরুষ এবং মহিলা) নিয়োগঃ
আর্মি মেডিকেল কোর এর জন্য এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় প্রার্থীকে অবশ্যই জিপিএ-৫ পেতে হবে। এবং পরবর্তীতে সরকার কর্তৃক স্বীকৃত এবং অনুমোদিত মেডিকেল কলেজ হতে বিডিএস ডিগ্রিধারী হতে হবে। তবে অবশ্যই এক্ষেত্রে ইন্টার্নশিপ সম্পন্ন করতে হবে।

www.army.mil.bd 2021 | Army Civil Job Circular 2021 | আর্মি সার্কুলার ২০২১ | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | আবেদনের সময়সীমা

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে স্পেশল কোর্স এর জন্য অফিসার র‍্যাংকে আবেদনের সময়সীমা এবং লিঙ্কসমূহ নিম্নে দেওয়া হলঃ

আবেদন শুরুঃ ০২ জুলাই, ২০২১ ইং।
আবেদন শেষঃ ২৪ জুলাই, ২০২১ ইং।
আবেদনের সার্কুলারঃ Army Job Circular 2021 PDF Download

আর্মি সার্কুলার ২০২১ | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | আবেদনের ক্ষেত্রে অযোগ্যতা সমূহ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদানের জন্য বেশকিছু নিয়ম রয়েছে। আবার আপনি যদি বেশ কিছু শর্ত পূরণ করে থাকেন তবে আপনার জন্য আবেদন যোগ্যতা অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে। চলুন দেখে নেওয়া যাক প্রার্থীর জন্য যোগ্যতা কি কি?

১. সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী অথবা যেকোনো সরকারি চাকরি হতে যদি আপনি কখনো অপসারিত অথবা সরাসরি বরখাস্ত হয়ে থাকেন তবে আপনি অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

২. আইএসএসবি (ISSB) বা ইন্টার সার্ভিস সিলেকশন বোর্ড আপনি যদি দুইবার স্ক্রীন্ড আউট বা দুইবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে থাকেন তাহলে আপনি পরীক্ষা দিতে পারবেন না। তবে শুধুমাত্র আইএসএসবি অংশগ্রহণের জন্য দুইটি আইএসএসবি মধ্যবর্তী সময়ের ব্যবধান অবশ্যই কমপক্ষে ছয় মাস হতে হবে। অন্যথায় আপনি আইএসএসবি দিতে পারবেন না। 

তবে 5 বছর পূর্বে দুইবার স্ক্রিনশট বা দুইবার প্রত্যাখ্যাত প্রার্থীগণ উক্ত পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন। উল্লেখ্য যে, আপনি যদি একবার স্ক্রীনড আউট এবং একবার রেড কার্ড প্রাপ্ত হন তবে আপনি তৃতীয়বার এপ্লাই করতে পারবেন।

৩. চোখের দৃষ্টি ক্ষমতার ক্ষেত্রে ক্ষীণদৃষ্টি এবং দূরদৃষ্টি পরিমাপ করা হয়। সেক্ষেত্রে আপনার চোখের ক্ষমতা দৃষ্টিক্ষিণতা ও দূরদৃষ্টি ২.৫ এর বেশি এবং বিষমদৃষ্টি ১.০ ডায়াপ্টার এর বেশি হলে আপনি অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

৪. নৌ, সেনা অথবা বিমান বাহিনীর মেডিকেল বোর্ড কর্তৃক আপনি যদি অযোগ্য বলে বিবেচিত হন।

৫. মেডিকেল কলেজের মধ্যবর্তী পরীক্ষা সমূহের মধ্যে দুই বা ততোধিক বিষয়ে আপনি যদি রেফার্ড প্রাপ্ত হয়ে থাকেন তবে আপনি সেনাবাহিনীতে আবেদনের জন্য অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

এই ছিল মোটামুটি ভাবে সেনাবাহিনীতে অযোগ্য হওয়ার প্রাথমিক কিছু শর্ত সমূহ।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বেসামরিক নিয়োগ ২০২১ | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ পুরুষ | সেনাবাহিনীর মনোনয়ন পদ্ধতি

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার অনুযায়ী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭৮ তম ডিএসএসসি (এএমসি) এবং ৬৫ তম ডিএসএসসি (এডিসি) - পুরুষ/মহিলা এর জন্য বেশ কয়েকটি ধাপে আপনার পরীক্ষা সম্পন্ন হবে চলুন জেনে নিই কিভাবে কিভাবে পরীক্ষাগুলোয় সম্পন্ন হবে

১. লিখিত পরীক্ষাঃ
লিখিত পরীক্ষার ক্ষেত্রে নিজস্ব পেশাগত বিষয়ে 100 নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা আগামী ০৬ আগস্ট,২০২১ তারিখে সকাল ৯.০০ ঘটিকার সময় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা সেনানিবাসে অনুষ্ঠিত হবে। আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হলে প্রার্থীকে সাথে সাথে একটি কল-আপ লেটার প্রিন্ট করে দেওয়া হবে। সেই কল-আপ লেটারটি হবে মূলত লিখিত পরীক্ষার এডমিট কার্ড স্বরূপ। 

লিখিত পরীক্ষার ফলাফল  আগামী ২৫ আগস্ট, ২০২১ তারিখে join bangladesh army এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। পাশাপাশি নিজস্ব কোন নাম্বারে এসএমএস বা ফোন করার মাধ্যমে জানানো হবে।
 
২. প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও মৌখিক পরীক্ষাঃ
লিখিত পরীক্ষায় যেসব প্রার্থী উত্তীর্ণ হবেন তাদেরকে প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও মৌখিক পরীক্ষার জন্য আহব্বান করা হবে। এই পরীক্ষা ১২ সেপ্টেম্বর হতে ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখ পর্যন্ত ডিজিএমএস অফিস ঢাকা সেনানিবাসে অনুষ্ঠিত হবে। 

উল্লেখ্য যে মৌখিক পরীক্ষার সময় জগতের সমস্ত পরীক্ষার সার্টিফিকেট ও মার্কশিট এর মূলকপি (এসএসসি, এইচএসসি, এমবিবিএস/বিডিএস, ইন্টার্নশিপ, বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন কার্ড) সাথে করে নিয়ে আসতে হবে। উক্ত কাগজপত্র সমূহ দেখাতে ব্যর্থ হলে প্রার্থীকে অযোগ্য বলে বিবেচনা করা হবে।

৩. আইএসএসবি পরীক্ষাঃ
যে সমস্ত প্রার্থী দেখি তো পরীক্ষা এবং মৌখিক সাক্ষাৎকার ও প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবেন তাদের কে নির্দিষ্ট দিনে আইসিটি পরীক্ষার জন্য ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত আইএসএসবিতে উপস্থিত হতে হবে। সেখানে চারদিনব্যাপী বিভিন্ন ধরনের রিটেন, ফিজিকাল এবং সাইকোলজিকাল টেস্ট নেওয়া হবে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি পরীক্ষা এবং অধিকাংশ শিক্ষার্থী এই পরীক্ষাতে ব্যর্থ হন। তাই যথেষ্ট প্রিপারেশন নিয়ে এবং সতর্কতার সাথে এই পরীক্ষাটি দেওয়া উচিত যাতে গ্রীন কার্ড পাওয়া যায়।

৪. চূড়ান্ত এবং যোগদানের নির্দেশ প্রদানঃ
উপরোক্ত সমস্ত পরীক্ষায় যে সকল শিক্ষার্থীগণ সফলভাবে উত্তীর্ণ হবেন তাদের কে শূন্য আসন এর অনুকূলে মেধাক্রম অনুযায়ী একের পর এক সেনাবাহিনীর সদর দপ্তর, অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল শাখা, পার্সোনেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পরিদপ্তর চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত ঘোষণা এবং পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের 6 মাস ব্যাপী ট্রেনিংয়ের জন্য আহব্বান করা হবে। 

উল্লেখ্য যে, এই গ্রীন কার্ডের মেয়াদ এক বছর বা ৩৬৫ দিন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ পুরুষ | অনলাইন আবেদনের নিয়মাবলী

প্রার্থীগণ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে এপ্লাই এর জন্য joinbangladesharmy.army.mil.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে হোমপেজ থেকে উক্ত সার্কুলারে যেতে হবে। এবং সেখানে যে "এ্যাপলাই নাও" বাটনে ক্লিক করে আবেদন করতে হবে। অথবা নিম্নোক্ত লিংকের মাধ্যমে আপনার সরাসরি এপ্লাই করতে পারেন


এখানে আপনার কিছু পার্সোনাল বিবরণ চাইবে সেগুলো সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে এবং এরপর আপনাকে পেমেন্ট অপশনে যেতে হবে। প্রার্থীগণ ট্রাস্ট ব্যাংক টি ক্যাশ, VISA/Master Card, bKash, Rocket ইত্যাদি মাধ্যমে 1000 (এক হাজার) টাকা আবেদন ফি বাবদ পে করতে পারবেন। আপনার আবেদন ফি জমা হওয়ার পর পরই তাৎক্ষণিকভাবে আপনাকে কল অফ লেটার দিয়ে দেওয়া হবে। অবশ্যই কল-আপ লেটার টি কে যত্নসহকারে সংরক্ষণ করবেন। এটি দিয়ে আপনাকে মূলত
সেনানিবাসে পরীক্ষা দিতে যেতে হবে।

এছাড়া আপনি যদি অনলাইনে আবেদন করতে কোন প্রকার সমস্যায় পড়েন তবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কাস্টমার সাপোর্ট নম্বরে কল দিয়ে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন।

যোগাযোগের নাম্বারঃ +880-1713-161979

Army Civil Job Circular 2021 | আর্মি সার্কুলার ২০২১ | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সিভিল নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | আর্মি প্রশিক্ষণ এবং কমিশন

আমরা সবাই জেনে গেছি যে আইএসএসবিতে যারা উত্তীর্ণ হবে তাদেরকে মূলত বলা যায় বিএমএ ট্রেনিং এর জন্য বিবেচিত। এখানে বলে রাখা ভালো স্পেশাল কোর্সগুলোতে 6 মাস ট্রেনিং করতে হয়। চিটাগাংয়ের ভাটিয়ারিতে অবস্থিত বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে। অত্যন্ত সুন্দর ও সবুজ শ্যামল প্রকৃতিতে অবস্থিত বিএমএ।

বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি প্রশিক্ষণঃ
চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হওয়ার পর ট্রেইনি অফিসার হিসেবে প্রায় ছয় মাস বা ২০ (বিশ) সপ্তাহব্যাপী এই প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। এবং সফলভাবে প্রশিক্ষণ শেষ করার পরে আপনি কমিশন লাভ করবেন।

কমিশন ও যোগদানঃ
সফলভাবে প্রশিক্ষণ শেষ করার পরে আপনাকে সরাসরি ক্যাপ্টেন পদে কমিশন দেওয়া হবে। নির্দিষ্ট তারিখে আপনি আপনার কর্মক্ষেত্রে যোগদান করবেন। এক্ষেত্রে আর্মি মেডিকেল কোর বা এএমসি এর জন্য ০৩ (তিন) বছর প্রবীণতা বা অ্যান্টিডোট সিনিয়রিটি প্রদান করা হবে। এবং আর্মি ডেন্টাল কোর্স এর প্রার্থীদের জন্য ২ বছর ০৬ মাস এর জন্য অ্যান্টিডোট সিনিয়রিটি দেওয়া হবে।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ পুরুষ |

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ সার্কুলার | বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে নিয়োগ ২০২১ পুরুষ | www.army.mil.bd 2021 | প্রাপ্ত সুযোগ-সুবিধা এবং বিভিন্ন বেতন ভাতা

চূড়ান্তভাবে ট্রেনিং শেষ করার পর সফল প্রার্থীগণ তাদের কর্মকর্তা যোগদান করবেন এবং তখন থেকে তারা সরকারি নিয়ম মত এবং গ্রেড সশস্ত্র বাহিনীর নিয়ম অনুসারে তাদের বেতন ভাতাদি সহ যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এছাড়া তাদের জন্য নির্দিষ্ট আরো বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।

ক) উচ্চতর শিক্ষা ও বিদেশে প্রশিক্ষণঃ
নিজস্ব যোগ্যতা অনুসারে উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে গমনের জন্য এবং সশস্ত্র বাহিনীর বিভিন্ন প্রশিক্ষণের জন্য তারা সমস্ত সুযোগ সুবিধা সরকারি ভাবে পাবেন।

খ) বাসস্থানঃ
মনোরম এবং সুন্দর সুসজ্জিত পরিবেশে নিরাপদ বাসস্থান বা কোয়ার্টার প্রাপ্তির সুবিধা।

গ) চিকিৎসাঃ
সামরিক হাসপাতাল সমূহ নিজের এবং নিজস্ব পরিবারের ব্যক্তিবর্গের জন্য সুচিকিৎসা এবং দুরারোগ্য ব্যধিতে উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন হলে সেক্ষেত্রে বিদেশ ভ্রমণের জন্য সমস্ত অর্থ সরকার কর্তৃক বহন করা হবে।

ঘ) সন্তানদের অধ্যায়ন সুবিধাসমূহঃ
নিজের সন্তানদের জন্য ক্যাডেট কলেজ, আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ বা এফএমসি, মিলিটারি মেডিকেল কলেজ বা এএমসি, অথবা মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (MIST), বিইউপি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস অথবা সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত যে কোন স্কুল প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নের সুযোগ।

এই ছিল মোটামুটি ভাবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সদ্য হওয়া নিয়োগ সার্কুলার। এটি মূলত গ্রাজুয়েট প্রার্থীদের জন্য অবর্ণনীয় সুযোগ।



আপনি যদি নিজের ক্যারিয়ার সশস্ত্র বাহিনীতে করতে চান ইচ্ছুক থাকেন তবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী আপনার জন্য সর্বোত্তম পছন্দ। " সমরে আমরা, শান্তিতে আমরা, সর্বত্র মোরা দেশের তরে" " In war, in peace, we are everywhere for our country." এই মুল মন্ত্র নিয়ে এগিয়ে চলা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কৃতিত্বের সাথে তাদের অবদান রেখে চলেছেন। এমনকি অনেক বাংলাদেশি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাগণ তাদের মূল্যবান জীবন দিয়েছেন।

আর আপনি যদি এই বাহিনীর একজন সদস্য হয়ে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে দেশের সম্মান বৃদ্ধি করতে চান তবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭৮ তম ডিএসএসসি (এএমসি) এবং ৬৫ তম ডিএসএসসি (এডিসি) - পুরুষ/মহিলা সার্কুলার হতে পারে আপনার জন্য এক অবর্ণনীয় সুযোগ।

দেশকে ভালোবেসে দেশের জন্য যারা কাজ করতে চায় তারাই একমাত্র দেশের প্রকৃত সন্তান। আর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্যই দেশের গর্বিত সন্তান।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?