অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2020/01/intel-cpu-letters.html

ইন্টেলের CPU কোডগুলো দিয়ে কি বুঝায় জেনে নিন

কম্পিউটারের দোকানে ল্যাপটপ বা কম্পিটারের মডেল ডিটেইলস দেখার সময় নিশ্চয় লক্ষ করে থাকবেন CORE i3, CORE i5, CORE i7 ইত্যাদি মডেল ট্যাগ। খুব সম্ভবত নম্বর দেখে বুঝায় যায়, বড় নম্বর মানে আরো উন্নত।


কিন্তু সমস্যা তখনই বাজে যখন আপনি খেয়াল করবেন একই মডেলের কোড নম্বরের পরে কখনো H, কখনও T, কখনো X এই টাইপের কিছু বর্ণ লেখা থাকে। এ গুলো দিয়ে আসলে কি বুঝায়? ইন্টেলের মতো প্রতিষ্ঠান নিশ্চয় হাবিজাবি কিছু বর্ণ ইউস করে না, এসকল বর্ণের নিশ্চয় কিছু অর্থ আছে। আসুন আজ জেনে নিই, এই বর্ণগুলোর আসল মানে কি?

K ট্যাগ

K দিয়ে বুঝায় চিপস মাল্টিপ্লাইয়ার খোলা আছে। এর অর্থ একই টাইপের অন্য কোন মাদারবোর্ডে আপনি এইটি প্রতিস্থাপন করতে পারবেন!

Non-K চিপস এর ক্ষেত্রে খুব সীমিত পরিসরেই এইরূপ প্রতিস্থাপন করা যায়। তাই কিনার আগে অবশ্যই ভেবে নিন, আপনি যদি আপনার মাদারবোর্ডে পরিবর্তন আনতে চান তবে K দেখে কিনুন!

যদিও ইন্টেল তাদের এই K নিয়ে অধিক বিস্তারিত কিছু বলে নি,তবে অনেক ল্যাপটপে আপনি দেখে থাকবেন HK ট্যাগ,যার মাধ্যমেও একই জিনিসই বুঝায়!

H ট্যাগ

H বর্ন দিয়ে বুঝায় High Performance Graphics। এই H দিয়ে বুঝায় এইরূপ সিপিউ High Quality সম্পন্ন। অনেক ক্ষেত্রেই H এর পরিবর্তে HQ ট্যাগও থাকতে পারে,যেখানে Q দিয়ে বুঝায় Quard Core। HQ ট্যাগ এর ক্ষেত্রে ল্যাপটপ আরো উন্নত পারফরমেন্স দেয় এবং এর দামও তাই বেশি হয়।

তাই HQ ট্যাগের ইন্টেল নোটবুকগুলো অনেক উচ্চ পারফরমেন্স দেখায়।

U এবং Y ট্যাগ

U ট্যাগ দিয়ে বুঝায় Ultra low power এবং Y দিয়ে বুঝায় Extremely Low Power। আপনার চাহিদা যখন ল্যাপটপের পারফর্মেন্স এর চেয়ে ল্যাপটপের ব্যাটারী খরচের দিকে থাকবে, তখন আপনি এই মডেলগুলো দেখতে পারেন।

কিছু Y সিরিজের সিপিউর ক্ষেত্রে ৫ ওয়াটের নিচে T DPS থাকে। বর্তমানে মোবাইলে এগুলোর Xeon chips ব্যবহৃত হয়, যেগুলোকে আলাদা করে M নামেও ডাকা হয়।

T ট্যাগ

T কোড কেবল মাত্র standard LGA Desktop এর ক্ষেত্রেই দেখা যায়। সাধারণত ছোটখাটো ডেক্সটপ কম্পিউটারে এটি ব্যবহৃত হয়। এটি লো পাওয়ার সাপ্লাইয়ে চমৎকারভাবে কাজ করে।
এর কুলিং সিস্টেমও মোটামুটি ভালোই।

P ট্যাগ

P ট্যাগ দিয়ে বুঝায় এমন ডেক্সটপ প্রসেসরকে যাতে Integrated graphics সুবিধা থাকে না। যেহেতু একবারে ভিডিও কার্ড লাগালেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যায়, তাই ইন্টিগ্রিটেট গ্রাফিক্সের জন্য আলাদা টাকা খরচের থেকে বাঁচা যায়।

G ট্যাগ

G CPUs এর ক্ষেত্রে Radeon rx Vega Graphics বিল্ড-ইন হিসেবে থাকে ।
G ট্যাগ প্রসেসর ইন্টেলের অধিভুক্ত একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান তৈরি করে থাকে!

R ও C ট্যাগ

R ট্যাগ সাধারণত ব্যবহৃত হয় মোবাইল প্রসেসরে,যার কাজ উপরে বর্ণিত H ট্যাগের মতো।
একইভাবে C ট্যাগ এর কাজ উপরে বর্ণিত K ট্যাগের মতো,এখানে মডেল ভেদে কেবল ট্যাগে নামে পরিবর্তন এসেছে, কাজ কিন্তু একই!

X ট্যাগ

পরিশেষে যে ট্যাগের নাম না করলেই নয়, সেটি হলো X ট্যাগ। এটি খুবই উচ্চমানের unlocked feature consumer CPU। অত্যন্ত উন্নতমানের এই CPU এর দাম খুবই উচ্চ। এটি CORE-i9-7980XE মডেলে দেখা যায় যা দিয়ে বুঝায় এটি এ যাবৎকালের মধ্যে  Extreme Edition!

আজ এ পর্যন্ত। এরকমই নিত্যনতুন আপডেট পেতে Ordinary IT এর সাথেই থাকুন। অসংখ্য ধন্যবাদ।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?