Ordinary IT https://www.ordinaryit.com/2020/01/Registry-Editor.html

উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর কি? এটি কিভাবে কাজ করে?

উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর (Registry Editor) কি, রেজিস্ট্রি এডিটর কিভাবে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে কাজ করে? রেজিস্ট্রি এডিটর দ্বারা কিভাবে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস কাস্টমাইজেশন করা যায় এবং কিভাবে কম্পিউটারকে দ্রুত করা যায় চলুন জেনে নেই।

উইন্ডোজ Registry Editor কি

উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর হচ্ছে একটি হায়ারারকিক্যাল ডাটাবেজ, যেখানে উইন্ডোজের সকল কনফিগারেশন, সেটিংস এবং আপনার কম্পিউটারের সিস্টেমে যতগুলো এপ্লিকেশন সফটওয়্যার ইন্সটল করেছেন তার ইনফরমেশন স্টোর করা হয়।চাইলেই অপারেটিং সিস্টেমের দরকারি সেটিংসকে সক্রিয় ও নিষ্ক্রিয় করে রাখা যায়। সহজ ভাষায় আমরা বলতে পারি আপনার কম্পিউটারের পুরো সেটিংসের একটি ডাটাবেজ উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর।

উদাহরণ হিসেবে রেজিস্ট্রি এডিটরকে একটি ফটোশপ সফটওয়্যার এর সাথে তুলনা করতে পারেন। যেমন একটি ফটোশপ সফটওয়্যার আপনি আপনার মত সেটিংস কে কাস্টমাইজড করতে পারবেন, ঠিক তেমনি রেজিস্ট্রি এডিটর দ্বারা আপনার উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম কে খুব সহজে কাস্টমাইজড করতে পারেন।

অনেক আগে উইন্ডোজের পুরনো ভার্সনে একটি ছোট্ট টেক্সট ফাইল (আই এন আই) এ পুরো উইন্ডোজের সেটিংস স্টোর করা হতো। ইউজারের সুবিধার্থে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন কর্তৃক তৈরি রেজিস্ট্রি এডিটর একটি বড় সমাধান। এই কনসেপ্টটি শুরু হয় ইউন্ডোজ 3.1 থেকে, বর্তমানের সকল উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে এটি বিদ্যমান রয়েছে।

কিভাবে ওপেন করব

উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর ওপেন করতে প্রথমে আমাদের স্টার্ট মেনু থেকে সার্চ বারে রেজিস্ট্রি এডিটর (Registry Editor) লিখে সার্চ করে প্রথম রেজাল্টে ক্লিক করলেই রেজিস্ট্রি এডিটর ওপেন হবে এবং উইন্ডোজ বাটন প্লাস আর প্রেস করে (regedit) কমান্ড লিখে রান করলেই একটি পপ-আপ মেনু আসবে, সেখানে (Yes) প্রেস করলেই রেজিস্ট্রি এডিটর ওপেন হবে।

Registry Editor- এডিটিং কিভাবে করতে হয়

আপনার কম্পিউটার কে কাস্টমাইজেশন করার জন্য যদি কোন সেটিং এডিট করার প্রয়োজন হয়  তাহলে আপনি সেটা না জেনে অন্য কোন সেটিং এডিট করবেন না, তা না হলে আপনার অপারেটিং সিস্টেম ডেমেজ হতে পারে। তাই আপনার প্রথমে উচিত কিভাবে Registry Editor এডিটিং করে সে বিষয়ে জানা। 

আপনি গুগলে রেজিস্ট্রি পাওয়ার-ফুল ট্রিক্স লিখে সার্চ করলে অনেক ধরনের ওয়েবসাইট এর লিংক পাবেন, এবং সেখান থেকে রেজিস্ট্রি ট্রিক্স সম্পর্কে জেনে আপনার অপারেটিং সিস্টেম কে নিজের মত করে কাস্টমাইজড করতে পারেন।

কি কি সেটিংস কাস্টমাইজেশন করা যায়

উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর একটি পপুলার টুলস বা একটি শক্তিশালী পথ, যা দিয়ে আপনি আপনার উইন্ডোজের গুরুত্বপূর্ণ সেটিং ও অন্যান্য প্রোগ্রাম সেটিং (যা আপনি ইন্সটল করেছেন) তা খুব সহজেই কাস্টমাইজড করতে পারেন।

কম্পিউটারের পারফরম্যান্স বৃদ্ধি করার জন্য রেজিস্ট্রি এডিটর কাউন্টার গুলিকে অ্যাক্সেস করার অনুমোদন দেয়। Registry Editor দ্বারা আপনি আপনার টাস্ক বার, সিস্টেম উইন্ডোজ, কন্ট্রোল প্যানেল, স্টার্ট মেনু, উইন্ডোজ আপডেট হ্যান্ডল করতে পারেন।

এগুলো একটি ছোট উদাহরণ, এরকম অনেক ধরনের কাজ আপনি রেজিস্ট্রি এডিট এর মাধ্যমে আপনার কম্পিউটারকে নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করতে পারেন এবং কি আপনি আপনার উইন্ডোজ এর প্রবলেম সলভ করার জন্য রেজিস্ট্রি এডিটর ব্যবহার করতে পারেন।

কিছু নিষেধাজ্ঞা

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের সকল সেটিংসকে আমরা Registry Editor দ্বারা নিজের মতো করে কাস্টমাইজড করতে পারি। কিন্তু মাইক্রোসফট এর কথা অনুযায়ী আপনি যদি খুব বেশি Registry Editor এডিটিং করেন, তাহলে আপনার কম্পিউটারের অপারেটিং সিস্টেম ড্যামেজ হতে পারে। এবং না জেনে ভুল কোন কিছুই এডিটিং করলেও আপনার কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেম ডেমেজ হতে পারে।
তবে রেজিস্ট্রি এডিটর কোন রুলস নয় যে এখানেই সকল সফটওয়্যার সেটিংরেজিস্ট্রি এডিটরে স্টোর করে রাখা হয় কিছু কিছু সফটওয়্যার আছে যারা নিজেই এক্স এম এল ফাইল ক্রিয়েট করে নিজেদের সেটিং স্টোর করে রাখে।

আশা করি উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি এডিটর সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন রেজিস্ট্রি এডিটর সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্য জানতে হলে অবশ্যই কমেন্টে জানিয়ে দিন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?