Ordinary IT https://www.ordinaryit.com/2019/11/how-google-map-works.html

গুগল ম্যাপ কিভাবে কাজ করে?

কখনও কি ভেবে দেখেছেন এত তথ্য গুগল ম্যাপে (Google Map) কিভাবে আসে? অথবা গুগল ম্যাপ কিভাবে কাজ করে? চলুন জেনে নেওয়া যাক।

ইন্টারনেট দুনিয়ার বিস্ময়কর একটি সংযোজন হলো গুগল ম্যাপ (Google map), যেটা আপনার পথ চলায় একটি গাইড বা পথ প্রদর্শক হিসেবে কাজ করে। অচেনা কোন জায়গায় যাওয়ার জন্য সেখানকার পথঘাট কেমন,দূরত্ব কতটুকু, কতসময় লাগবে যেতে, রাস্তায় জ্যাম আছে কিনা এছাড়াও আপনার নির্দিষ্ট গন্তব্যের একটি  সম্পুর্ণ  ধারনা আপনি পেয়ে যাবেন গুগল ম্যাপের সাহায্যে।


বিভিন্ন জায়গার সঠিক লোকেশন, ছবি সংযোজন,দূরত্ব ইত্যাদি এই কাজগুলো মূলত গুগলের একটি সমষ্টিগত প্রক্রিয়া। সবকিছুর সমন্বয় করতে গুগল সহায়তা নেয় কয়েকটি সংস্থা থেকে। সেগুলো হলো-

স্যাটেলাইট

স্যাটেলাইট (Satellite) এ তোলা বিভিন্ন জিওগ্রাফিক ছবি সংগ্রহ করে গুগল সেটা বিশ্লেষণ করে এবং গুগল ম্যাপে সংযোজন করে। এছাড়াও বিভিন্ন এরিয়ার থ্রিডি ছবি পেতে স্যাটেলাইট হেল্প করে গুগল ম্যাপকে।

ম্যাপ পার্টনার

গুগল ম্যাপে ডাটা সংযোজনের জন্য গুগলের রয়েছে কিছু ম্যাপ পার্টনার (Map partner) । গুগল এসব বেজ ম্যাপ পার্টনার প্রোগ্রাম (Base Map partner program) থেকে ডাটা সংগ্রহ করে এবং গুগল ম্যাপে জুড়ে দেয়।

স্ট্রিট ভিউ 

তথ্য সংযোজনের  পাশাপাশি  যেকোনো এরিয়ার ৩৬০ডিগ্রী ছবি সংযোজনের জন্য গুগলের রয়েছে জিপিএস কোঅর্ডিনেট কার সিস্টেম  (GPS coordinate)। এছাড়াও রয়েছে অপটিকাল ক্যারেক্টার রিকগনিশন (OCR)  ক্যাপাবিলিটি। এর সাহায্যে গুগল যেকোনো এরিয়ার ট্রাফিক সিগন্যাল, রাস্তার চিহ্ন, বাণিজ্যিক নাম সংযোজন করে গুগল ম্যাপে। এভাবেই একটি টোটাল স্ট্রিট ভিউ (Street View) গুগল ম্যাপে তৈরী হয়।

লোকেশন সার্ভিস

গুগল ম্যাপ কিভাবে কাজ করে এর উত্তর আপনার স্মার্ট ফোনেই রয়েছে! কারণ স্মার্ট ফোন (Smart phone) আপনার কাছে যতটা না কাজের তার চেয়ে বেশি কাজে লাগে গুগলের।  গুগল আপনার স্মার্ট ফোন থেকে লোকেশন (Location service) ট্রাক করে এবং সেটা বিশ্লেষণ করে গুগল ম্যাপে যুক্ত করে।

গুগল ম্যাপ মেকার

এই কাজটা করতে পারেন আপনিও! গুগল ম্যাপ মেকার মূলত গুগল ম্যাপ ব্যবহারকারীদের জন্য।  এখানে আপনি যেকোন এরিয়া,ছবি সংযুক্ত করতে পারেন এমনকি সম্পাদনও করতে পারেন! এজন্য আপনাকে গুগল ম্যাপে যেয়ে My Contribution থেকে আপনার মতামত, প্রশ্নোত্তর এবং সম্পাদন সংযুক্ত করলেই আপনিও  গুগল ম্যাপ মেকারের ( Google Map maker) অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবেন।

গুগল ম্যাপ এভাবেই কাজ করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। ২০০৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে এর কাজ শুরু হয় যেটা বর্তমানে ৫৪% এরও বেশি ব্যবহারকারী অন্তত একবার হলেও ব্যবহার  করেন। গুগল ম্যাপ প্রতিনিয়ত এর উৎকর্ষ সাধনের চেষ্টা করে যাচ্ছে। আপনি জেনে অবাক হবেন যে গুগল ম্যাপ সমুদ্রপথেও প্রায় ২,৩০০কিলোমিটার জুড়ে আন্ডারওয়াটার স্ট্রিট ভিউ চালু করেছে অস্ট্রেলিয়ার গ্রেট ব্যারিয়ার রিফে ( Great Barrier Reef)! অদূর ভবিষ্যৎ এ হয়ত আরো অনেক বিস্ময় নিয়ে হাজির হবে গুগল ম্যাপ।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?