Ordinary IT https://www.ordinaryit.com/2019/09/human-death.html

পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হলে কি ঘটতে পারে?


শিরনাম পড়ে কি ভাবছেন, হয়তো ভাবছেন তাহলে অনেক মজা হতো, লক্ষ লক্ষ বছর ধরেই পৃথিবীতে বেঁচে থাকতাম আর পৃথিবীর সৌন্দর্য উপভোগ করতাম, পৃথিবীতে আরাম আয়েশ করে শুধু খাওয়া দাওয়া আর ফূর্তি করতাম, মন যা চাই তাই করতাম, কারও কাছে কোন দায়বদ্ধতা থাকত না, মৃত্যুরও কোন ভয় থাকত না, তাই তো?

যতটা সুখকর ভাবছেন বিষয়টা আসলে মোটেই ততটা সুখকর নয়। আজকের পৃথিবীটা যেমনটা দেখছেন পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হলে বরং এর চেয়ে অনেক বেশিই যন্ত্রণাদায়ক হত। আসুন, এবার তাহলে জেনে নিই “পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হলে কি হতে পারে?”

বিষয়টা নিয়ে আলোচনার পূর্বে চলুন প্রথমেই জেনে নিই পৃথিবীর জনসংখ্যা সম্পর্কিত কিছু পরিসংখ্যান। আজ থেকে আরও ১ হাজার বছর পূর্বে অর্থাৎ ১,০০০ সালে পৃথিবীর জনসংখ্যা ছিল মাত্র ৪০ কোটি। এর প্রায় ৮০০ বছর পরে ১৮০৪ সালে পৃথিবীর মোট জনসংখ্যা ১০০ কোটি পূর্ণ হয়। আর বর্তমানে পৃথিবীর জনসংখ্যা প্রায় ৭৫০ কোটি, অর্থাৎ গত ২০০ বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৭ গুণ যা পূর্বের ৮০০ বছরের তুলনায়ও অনেক বেশি।


পরিসংখ্যান অনুযায়ী পৃথিবীতে বর্তমানে প্রতিদিন ৩,৬০,০০০ শিশু জন্মগ্রহণ করে যার মধ্যে আবার ১,৫২,০০০ শিশু মারা যায়। এই হারে চলতে থাকলেও পরিসংখ্যানবিদদের মতে, ২০৫০ সালে বিশ্বের জনসংখ্যা হবে ৯৮০ কোটিতে এবং ২১০০ সালের মধ্যে তা ১১০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। আর যদি মৃত্যুহারটা থেমে যায় অর্থাৎ পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হয় তাহলে আগামী ২০ বছরের মধ্যেই পৃথিবীর জনসংখ্যা ১০০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে।

এবার আসি মূল আলোচনায়, পৃথিবীতে যদি মানুষের মৃত্যু না হয় উপরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী খুব দ্রুত গতিতে পৃথিবীর জনসংখ্যা বাড়তে থাকবে। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই এটি দ্বিগুণ, তিনগুণ, বহুগুণ হতে থাকবে। বাড়তি মানুষের চাহিদা পূরণ করতে গিয়ে পৃথিবীতে বিদ্যমান সম্পদ খুব দ্রুত নিঃশেষ হতে থাকবে, পৃথিবীতে বেকারত্বের সমস্যা প্রবল হয়ে উঠবে।

কোন কিছু করতে না পেরে জীবনের প্রয়োজনে বেকার যুবকরা অপরাধ প্রবণ হয়ে উঠবে। চুরি, ডাকাতি, লুটতরাজ, ছিনতাই, রাহাজানি ইত্যাদি অপরাধ মূলক নানা কর্মকান্ডে মানুষ জড়িয়ে পড়বে। এর ফলে মানুষের জীবন হয়ে উঠবে নিরাপত্তাহীন। যত সম্পদ অর্জন করুক না কেন কেউ সুখে শান্তিতে এবং নিরাপদে বাস করার নিশ্চয়তা পাবে না। এর ফলে প্রতিটি মানুষের জীবন হয়ে উঠবে দুর্বিসহ।

অতিরিক্ত মানুষের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে গিয়ে নতুন নতুন কল কারখানা স্থাপন করতে হবে। আর কল কারখানার বিষাক্ত ধোঁয়া ও বর্জ্যের কারণে ব্যাপক হারে পরিবেশ দূষণ বৃদ্ধি পাবে, এর ফলে একদিকে যেমন বৈশ্বিক উষ্ণতা ‍বৃদ্ধি পাবে অন্যদিকে মানুষের রোগ ব্যধিও ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পাবে। বিভিন্ন রোগ ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে মানুষ যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকবে, তা সত্ত্বেও মরবে না।

বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির ফলে পৃথিবীর একাংশ তলিয়ে যাবে পানির নিচে, মানুষের বসবাসযোগ্য জায়গার পরিমাণ আরও কমে আসবে। এদিকে অতিরিক্ত মানুষের চাহিদা পূরণ করতে যানবাহনের সংখ্যাও ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে। ফলে রাস্তাঘাটে ঘন্টার পর ঘন্টা জ্যাম লেগে থাকবে।


পৃথিবী এক প্রকার নরকের যন্ত্রণায় দগ্ধ হতে থাকবে। তখন মানুষ এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চাইবে, পৃথিবীতে বেঁচে থাকার ইচ্ছা হারিয়ে যাবে, আত্মহত্যা প্রবণ হয়ে উঠতে পারে অনেক মানুষ, কিন্তু তখন মৃত্যু চাইলেও মরতে পারবেন না। কারণ আগেই ধরে নিয়েছি পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু হবে না...
আবার পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হলে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ সমূহের মধ্যে স্বার্থের দ্বন্দও বেড়ে যাবে। প্রত্যেকটা দেশ অপর দেশ থেকে শক্তিশালী হওয়ার চেষ্টা করবে। আবার প্রভাবশালী দেশ সমূহ বছরের পর বছর তাদের প্রভাব ধরে রাখতে যেকোন উপায়েই হোক তাদের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে।

এর ফলে পৃথিবীতে সৃষ্টি হবে আরও ভয়ংকর মরণাস্ত্র, পূর্বের চেয়েও কয়েকগুণ বেশি শক্তিশালী হাইড্রোজেন বোমা, পারমাণবি বোমা যেগুলো এক একটার বিস্ফোরণ পুরো পৃথিবীকে কাঁপিয়ে তুলতে পারে।

পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু না হলেও একদিন হয়তো মানুষের তৈরি এই প্রযুক্তির ধ্বংসাত্মক আঘাতে পুরো পৃথিবীটাই ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। এর পূর্বে যতদিন মানুষ পৃথিবীতে থাকবে ততদিন পরকালের ভয় না করলেও পৃথিবীতেই এক প্রকার নরকের যন্ত্রণা ভোগ করতে থাকবে।

এক কথায় বলতে গেলে, পৃথিবীতে যদি মানুষের মৃত্যু না হয় একদিন পৃথিবীটাই মানুষের কাছে এক জীবন্ত নরক হয়ে ‍উঠবে যেখান থেকে মানুষ মুক্তি চাইলেও মুক্তি পাবে না। সুতরাং মৃত্যু না হলে তাতে খুশি হওয়ার কোন কারণ নেই। বরং, মহান স্রষ্টা পৃথিবীতে মানুষের আসা যাওয়ার যে বিধান ঠিক করে দিয়েছেন সেটাকেই সর্বোৎকৃষ্ট বিধান মেনে তার উপর সন্তুষ্টি আদায় করা দরকার।

ধন্যবাদ সবাইকে পোষ্টটি মনযোগ সহকারে পড়ার জন্য। আজকে এ পর্যন্তই, সবাই ভালো থাকবেন, আমার জন্যও দোয়া করবেন।


অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?