অর্ডিনারি আইটি https://www.ordinaryit.com/2021/04/wordpress-theme.html

সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম থ্রাইভ নাকি জেনেসিস?

আজকের পোষ্টটি সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কিত। আমারা সবাই কখনো না কখনো ব্লগ পড়েছি বা ওয়েবসাইট ভিজিট করেছি।  ওয়ার্ডপ্রেসে তৈরী নজরকাড়া ডিজাইনের দৃষ্টিনন্দন ব্লগও দেখেছি আর আকাঙখা করেছি আমার যদি এমন একটা থাকতো।  কিন্তু এত থিমের ভিড়ে কোন সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম আমার জন্য উপযুক্ত হবে? আমি কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব?

প্রিয় পাঠক।  আর দুশ্চিন্তা নয়।  আজ আমি আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে সেরা ২টি সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম থিম সম্পর্কে রিভিউ দেবো।

থিমদুটোর মধ্যে তুলনামূলক বিস্তারিত এই পোস্টটির মূল উদ্দেশ্য হল: এদের ভাল ভাল ফিচার (এবং দুর্বলতা) সমন্ধে আপনাকে জানানো। কোনটি আপনার ক্ষেত্রে উপযোগী হবে সেই সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করা।

এই রিভিউ পোস্টে, কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিমটি থেকে আপনার ব্লগ বেশী সুবিধা পাবে তা খুঁজে পেতে আমি পরামর্শ দেব। ট্রাফিক বৃদ্ধি বা অ্যাফলিয়েট বিক্রি বাড়ানো, দু'টো ক্ষেত্রেই  এসব পরামর্শ আপনার কাজে লাগবে। 

কোন কোডিং দক্ষতা ছাড়াই কাষ্টমাইজ করে একদম নিজের মনমত ওয়েবসাইট বানাতে চাইলে কোনটি চুজ করা উচিৎ তাও জানতে পারবেন। 

তো চলুন, দেখে নেয়া যাক সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম থ্রাইভ নাকি জেনেসিস?!

এক নজরে পুরো পোস্টের সূচীপত্রঃ সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম থ্রাইভ নাকি জেনেসিস?

এই ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ এর শুরুতেই, সংক্ষেপে আমরা এদের পরিচয় জেনে নেই।  প্রিমিয়াম মানের প্রফেশনাল ডিজাইনের থিমের কথা আলোচনায় প্রথমেই যে থিম ডেভলপার কোম্পানীর কথা মাথায় আসবে তা হল 'স্টুডীওপ্রেস'। বাজারে প্রায় শুরু থেকেই আছে, বহু থিম বিক্রিত হয়েছে এমন একটি কোম্পানী এটি।

প্রফেশনাল ভাবগাম্ভীর্যসমৃদ্ধ থিমের চাহিদা পূরণ করার উদ্দেশ্যে ২০১০ সালে তারা জেনেসিস থিম  ছাড়ে, যা সেসময় বাজারে খুব কমই ছিল। জেনেসিস থিমকে বাজারে ছাড়ার মাধ্যমে, তারা একটি নিরব বিপ্লব ঘটিয়ে দিয়েছিল। ব্যবহারকারীদের জন্য থিমে সম্পূর্ণ SEO সুবিধা এর আগে কেউ নিয়ে আসেনি। এতেকরে, ব্যবহারকারীদের ইয়োস্ট বা অল ইন ওয়ান এসইও প্লাগীনের মত আরকোনো SEO প্লাগীনের প্রয়োজন পড়লোনা। এছাড়াও থিমটিতে অনেকগুলো লেআউট এবং সহজে কাষ্টমাইজ উপযোগী জেনেসিস চাইল্ড থিম দেয়া ছিল। 

তারপর থেকেই জেনেসিস থিম বাজারের সবচেয়ে জনপ্রিয় থিমে পরিণত হল। কারণ তাদের থিমগুলো ছিল সবচেয়ে ফাস্ট, সুন্দরভাবে ক্লিন-কোড করা, সম্পূর্ণ SEO সমর্থিত ও দৃষ্টিনন্দন প্রিমিয়াম মানের ওয়ার্ডপ্রেস থিম। 

তখন পর্যন্ত, দেখতে প্রফেশনাল মানের একটি ওয়েবসাইট থাকাকেই যথেষ্ট বলে মনে করা হত। কিন্ত সময় এখন বদলে গেছে।

প্রতিটা ব্লগকে এখন প্রতিযোগীতা করতে হয় একই বিষয়ের আরও বহুসংখ্যক ব্লগের সাথে। শুধুই দৃষ্টিনন্দন আর দ্রুতগতীর ওয়েবসাইট দিয়ে এখন আপনার কাজ হয়না। এখন আপনার এমন ওয়েবসাইট দরকার যার আছে অনেক ফিচার।  যা  আপনার সাইটের প্রতিটি ক্লিক, প্রতিটি ব্যক্তি ভিজিটকে ক্রেতা, ফলোয়ার বা ক্লায়েন্টে রুপান্তর করে দেবে, আপনারই চাহিদা অনুসারে। 

আর এই জায়গাটাতেই স্টুডীওপ্রেস মার খেয়ে গেছে। কারণ তারা সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তীত হতে পারেনি।

অন্যদিকে, থ্রাইভ থিমস কিন্ত এই বিষয়ে সফল। আপনার ওয়েবসাইট থেকে যেন সবটুকু সুবিধা বের করে নিতে পারেন, তাদের নিবেদিত মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ দল সেটা সম্পূর্ণ নিশ্চিত করেছে। কোন প্লাগীন ব্যবহার ছাড়াই তাদের থিমে আপনার দরকারী সব ফিচার পাবেন। 

তাদের থিমগুলোও চমৎকার ও দৃষ্টিনন্দন। কিন্তু তারা শুধু দেখতে সুন্দর থিমই বানায় না। 

থ্রাইভ থিমস ওয়ার্ডপ্রেস থিম ও প্লাগীন | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


প্রতিটা থ্রাইভ থিমই আসলে ভিজিটরদেরকে কাষ্টমারে রুপান্তর করার একটা মেশিন। কিভাবে কনভার্সন করা যায় তা মাথায় রেখেই এটি তৈরী করা হয়েছে। সাইটে আরও বেশী ভিজিটর নিয়ে এসে তাদেরকে ক্রেতা, ক্লায়েন্ট বা ফলোয়ারে রুপান্তর করার কাজটা করে এটি। 

থ্রাইভ থিমস কিন্ত জাষ্ট আরেকটা ওয়ার্ডপ্রেস থিম নয়। তাদের মেম্বারশিপ প্যাকেজ আপনাকে এমন একসেট মার্কেটিং টুলে অ্যাক্সেস দেবে যা প্রতিযোগীদের তুলনায় আপনাকে কয়েকধাপ এগিয়ে রাখবে। 

ব্যক্তিগতভাবে আমার চয়েস এখন থ্রাইভ থিমস। এর অন্যতম কারন হয়তোবা সাথে যে চমৎকার মার্কেটিং টুল পাওয়া যায় তা। আর তাদের থিমটি, মার্কেটিং সম্পর্কিত কাজ করার জন্য খুব ভালভাবে অপটিমাইজড। 

থ্রাইভে আছে, আকর্ষনীয় কন্টেন্ট তৈরী করার জন্য কন্টেন্ট বিল্ডার। এটাকে বলতে পারেন মনমত ওয়েবসাইট তৈরী করার একটি সম্পূর্ণ প্যাকেজ। ড্রাগ এন্ড ড্রপ এই বিল্ডার দিয়ে সাইটের এত বেশী কাষ্টমাইজেশন করতে পারবেন যা আর অন্য কোন থিমে পারবেন না। 

সাধারণ ভিজিটরদেরকে কাষ্টমারে রুপান্তর করে নেয়ার মত আকর্ষনীয় ল্যান্ডিং পেজ তৈরী করতে পারবেন এটি দিয়ে। 

এতে আছে থ্রাইভ হেডলাইন অপটিমাইজার। এর দ্বারা রিয়েল টাইমে আপনি দেখে নিতে পারবেন নিবন্ধের কোন শিরোনাম ভিজিটরদের বেশী আকর্শিত করছে। 

থ্রাইভ লিডস কে ভুললে চলবে না। মার্কেটিং এর কাজে লিড জেনারেশন করার জন্য এটা খুবই কার্যকরী একটা টুল। এটা দিয়ে লিড জেনারেশন করে আমি হাজারেরও বেশী ডলার কামিয়েছি। 

নিবন্ধের পরের অংশে আমরা এ বিষয়ে আলোচনা করবো। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

থ্রাউভ ও জেনেসিস চাইল্ড থিমের তুলনা  | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

১. থ্রাইভ থিম, জেনেসিস থিমের তুলনায় অনেক দ্রুত

দ্রুত লোড হওয়ার সুনাম একসময় জেনেসিস থিমের ছিল। যেহেতু ফিচারের দিক থেকে তাদের থিম সীমাবদ্ধ। সেজন্য প্রায় প্রতিটা ছোট ছোট কাজের জন্যই তাদের একটা করে প্লাগীন লাগে। ফলস্বরুপ সাইট লোড হতে সময় লাগে বেশী। 

অপরদিকে গতী ও দ্রুত লোডিং হওয়ার বৈশিষ্ট্যকে মাথায় রেখেই থ্রাইভ থিমকে অপটিমাইজ করা হয়েছে। 

এটা কিন্ত কথার কথা নয়। আমি প্রমান দিতে পারি। 

এই স্ক্রিনশটটা দেখুন। কিভাবে আমার পেজ ১ সেকেন্ডের মধ্যেই লোড হচ্ছে। 

আর এই ধন্যবাদটা অবশ্যই থ্রাইভের প্রাপ্য। 

ব্লগের স্পীড টেস্ট | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


জেনেসিস যখন ব্যবহার করেছিলাম সে সময়ের সাইট লোডিংয়ের স্ক্রিনশট আমার কাছে নেই। তবে আমার মনে আছে যে, ৫ সেকেন্ডের নিচে এটা কখনো নামেনি। 

সাইটের লোডিং টাইম কেন এত গুরুত্বপূর্ণ ? সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

সাম্প্রতিক গবেষণায় জানা গেছে যে, ৪৭% পাঠক আশা করে যে, তারা যে ওয়েবসাইট ভিজিট করে তা যেন ২ সেকেন্ডের মধ্যেই লোড হয়। 

শুধু তাই নয়, ব্লগপেজের লোড টাইম ৩ সেকেন্ড বা তারচেয়ে বেশী হয়ে গেলে, আপনার ৪০% পাঠক সাইট ছেড়ে চলে যায়। 

সাইটের ৪০% ভিজিটর হারানো কোন মূল্যেই গ্রহণযোগ্য নয়। সেকারণেই আমি এখন থ্রাইভ থিমে চলে এসেছি। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

২. প্লাগীন ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা অনেক কমে যায় | সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

জেনেসিস এ আপনি এমনকি থিমের ফন্টও বদলাতে পারবেন না যদিনা আপনার কোডিিং এ দক্ক্ষতা থাকে। যা খুবই বিরক্তিকর একটা ব্যপার। 

জেনেসিস ব্যবহারের সময় আমি যেসমস্ত প্লাগীন ব্যবহার করেছি তার তালিকা:

  1. শুধুমাত্র জেনেসিস ডিজাইন প্যালেট প্রো প্লাগীনটির পেছনেই বছরপ্রতি ৪৯ ডলার খরচ করতে হয়েছে আমাকে।
  2. কিছু CSS কোড ব্যবহার করে আমার থিমকে অন্য একই থিমগুলোর থেকে আলাদা দেখানোর জন্য, কাস্টম CSS প্লাগীন ব্যবহার করেছি।
  3. সাইটের ফুটার এরিয়ার লিংক ও লেখা পরিবর্তনের জন্য সিম্পল এডিটস কে ব্যবহার করেছি। 
  4. সাইটের ছবিগুলোকে চাপিয়ে সাইজে ছোট করার জন্য, মাসপ্রতি ৫ ডলার খরচে Kraken.io ব্যবহার করেছি। 
  5. সাইটের যেই অংশ স্ক্রোল করা হবে শুধুমাত্র সেই অংশের ছবিগুলো যেন দেখায় সেজন্য লেজি লোড প্লাগীন ব্যবহার করেছি। 
  6. সাইটের জায়গায় জায়গায় বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য জেনেসিস সিম্পল হুক ব্যবহার করেছি। 
  7. সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করার বাটন ও ফিচার আনতে ২৯ ডলার মাসপ্রতি সোস্যাল ওয়্যারফেয়ার প্লাগীন ব্যবহার করেছি। 
  8. একটা দরকারী কাষ্টম ই-মেইল অপট-ইন ফর্ম যুক্ত করেছিলাম। এই তালিকাটা অনেক লম্বা। ফিচার পাওয়ার জন্য আমাকে আরো অনেক দরকারী প্লাগীন যুক্ত করতে হয়েছিল। 

এখন কল্পনা করে নিন, এত এত প্লাগীন ব্যাকএন্ডে আমার ব্লগের পারফরমেন্স কতখানী কমিয়ে দিয়েছিল 

আমি জানি, প্লাগীন ব্যবহার করতে সবারই ভাল লাগে। এটা মজার।

কোন এক লাইন কোডও স্পর্শ না করে, অনেক বড় বড় কাজ করিয়ে নেয়া যায় এগুলো দিয়ে। 

বেশি প্লাগীন ব্যবহারে সমস্যাটা কোথায় ? | সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

এই প্রশ্ন কখনো না কখনো নিশ্চয়ই আপনার মনে জেগেছে। আসলে কেউই কনফিডেন্সের এই জবাবটা দিতে পারবেনা যে, কতটা প্লাগীন ব্যবহার করলে আসলে সেটাকে বেশী পরিমাণ বলা যাবে। এগুলোর ব্যবহার কমিয়ে সর্বোনিম্ন রাখাটাই হল পার্ফরমেন্স বৃদ্ধির চাবিকাঠি। 

বেশী পরিমাণ প্লাগীন থাকলে তা সার্ভারের  চাপ ফেলে:

সার্ভারে অনেক HTTP রিকোয়েস্ট পাঠায়,  এবং

অনেক ডাটাবেজ কোয়েরী করতে থাকে

টেকনিক্যাল বিষয়াবলীতে না গিয়ে, সহজ ভাষায় এটা আপনার সাইটের যেভাবে ক্ষতী করে তা হল:

  • কিছুসময় পরপর আপনার সাইট ক্রাশ করবে,
  • পেজ স্পীড ও সাইটের পারফরমেন্স খুবই দূর্বল হয়ে যাবে
  • সাইটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ে। হ্যাক হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায় (এখানে বিস্তারিত পড়ুন)

থ্রাইভ ব্যবহার করলে আপনার এই সমস্ত প্লাগীনের কোনই দরকার হবেনা। কারন এই সমস্ত কাজ করার জন্য থ্রাইভে, ইনবিল্ট কাস্টম ডিজাইন এবং ডিফল্ট Kraken.io ইমেজ কম্প্রেশর (ফ্রি'তে) দিয়ে দেয়াই আছে। 

এমনকি সাইট লোড টাইম কমানোর আরও একটি অপশন রয়েছে থ্রাইভে। পোস্টে মন্তব্যকারী ব্যক্তিদের কমেন্টের ছবিকেও লেজি লোড করা যায় । আপনার পেজে/পোস্টের কমেন্টবাক্সে যদি অনেক মন্তব্য আসে, তাহলে এই পদ্ধতিতে পেজের লোড টাইম কমিয়ে নিতে পারবেন। 

থ্রাইভে আপনি পাবেন দ্রুত লোডিং এবং দৃষ্টিনন্দন সোস্যাল শেয়ারিং বাটন।

এইসমস্ত ফিচারগুলি আমার সাইটের লোডিং ঝামেলা ও সময় অনেকগুন কমিয়ে দিয়েছে। সাথে অদরকারী প্লাগীন ব্যবহারের খরচও কমিয়ে দিয়েছে। 

সুতরাং দেখতেই পাচ্ছেন, থ্রাইভে শুধুমাত্র আপনার থিমটাই প্রয়োজন। উপরে জেনেসিসে যেসব প্লাগীন উল্লেখ করা হয়েছে তার কোনটাই আপনার দরকার পড়বে না। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৩. কাষ্টমাইজেশন দক্ষতা বিষয়ে | সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

আপনার যদি থিম কাষ্টমাইজেশনের দক্ষতা থাকে তাহলে অনেক স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারবেন। আপনাকে কোন বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিতে হবে না এমনকি কোডিং'ও শিখতে হবে না।

যেহেতু আমি আমার ব্লগের গ্রোথ ও কন্টেন্ট নিয়ে ব্যস্ত থাকি। সেজন্য কাস্টমাইজেশ যেন দ্রুত করা যায় তারপ্রতি আমার নজর থাকে। আমি লক্ষ্য করেছি, সেদিক থেকে জেনেসিস ব্যবহার করা সম্পূর্ণ সময়ের অপচয়। অতি সাধারণ কাষ্টমাইজেশন যেমন থিমের রং, ফন্ট বদলানো, লাইন স্পেস দিতে গেলেও অনেকটা  সময় নষ্ট হয় জেনেসিসে। 

আমাকে একাধিকবার ওয়েব ডিজাইনার হায়ার করতে হয়েছিল যার কারনে আমার ওভারঅল খরচও বেড়ে গিয়েছিল। 

জেনেসিস থিম ডিজাইনে খরচ | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


থ্রাইভে নিজে নিজে কাষ্টমাইজেশন করতে গিয়ে আমাকে হতাশ হতে হয়নি। মনমত পরিবর্তন করা খুব এই থিমে খুব সহজ। 

টীকা: জেনেসিস থিম কিন্ত ফালতু বা বাজে মানের নয়। যারা চান তাদের থিম ঠিক যেমনই দেখানো হয়েছে ঠিক তেমনই কাজ করুক তাদের জন্য এটা একদম উপযুক্ত। 

আপনি যদি এমন ধরনের থিম চান যা বেসিক সব কাজই করতে পারবে। খুব বেশী অপশন পরিবর্তনের ঝামেলা পোহাতে হবে না, তাহলে জেনেসিস আপনার জন্য সঠিক চয়েস। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑ 

৪. আকর্ষনীয় কন্টেন্ট তৈরী করা কতটা সহজ | সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

থ্রাইভ কন্টেন্ট বিল্ডার দিয়ে আপনি প্রফেশনাল ডিজাইনের ব্লগ পোস্ট এবং ল্যান্ডিং পেজ তৈরী করতে পারবেন। 

অ্যানিমেটেডভাবে কিছু করার নির্দেশ পাঠকদেরকে নির্দিষ্ট জায়গায় ক্লিক করতে আগ্রহি করে। ইন্টারেস্টিং এই ফিচারটা থ্রাইভে আছে। 

থ্রাইভে বড় পোস্টসমূহের জন্য, স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরী হবে এমন টেবিল অফ কন্টেন্ট (TOC) এর অপশন রয়েছে। এটা এক নজরে পোস্টের বিষয়বস্তু দেখে নেয়ার ও সহজে ন্যাভিগেশনের সুযোগ করে দেয়। এটা আপনার পাঠকদের পাঠ অভিজ্ঞতা আরও সহজ ও ইউজার ফ্রেন্ডলী করে দেবে। 

এর ডিফল্ট TOC টা আপনি ঠিক এভাবে ব্যবহার করতে পারবেন:

থ্রাইভ কন্টেন্ট বিল্ডারের টেবিল অফ কন্টেন্টস | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review
এছাড়াও আলাদা এলিমেন্ট ব্যবহার করে, নিজে নিজে ডিজাইন করা টেবিল অফ কন্টেন্টস বক্স তৈরী করার সুযোগ দেয়া আছে এই থিমে। 

আমার ইমেজ অপ্টিমাইজেশন গাইডের জন্য যেই ডিজাইনটি করেছিলাম সেটি এখানে দেখতে পাচ্ছেন। 

থ্রাইভ কন্টেন্ট বিল্ডারের কাষ্টম টেবিল অফ কন্টেন্ট | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review
কমপ্যারিসন টেবিল, পেজ সিলেকশন, প্রাইসিং টেবিল সবই যুক্ত করতে পারবেন থ্রাইভ কন্টেন্ট বিল্ডার প্লাগীনের মাধ্যমে। কন্টেন্ট টগলস এর মাধ্যমে অদরকারী কন্টেন্টকে ১ ক্লিকেই লুকিয়ে ফেলতে পারবেন আবার ১ ক্লিকেই সম্প্রসারীত হয়ে পুনরায় সামনে চলে আসবে। 
থ্রাইভ কন্টেন্ট বিল্ডারের অপশনসমূহ | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৫. সম্পর্কিত পোস্ট | সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম

জেনেসিস থিমে রিলেটেড পোস্টের জন্য কোন ব্যবস্থা রাখা হয়নি। কিন্ত...থ্রাইভ থিমসে এটা আছে। আপনি চাইলে রিলেটেড পোস্টকে কাষ্টমাইজ করে পাঠকদের জন্য এমন অ্যাট্রাকটিভ করতে পারবেন যে, আপনার সাইটের বাউন্স রেটস অনেক কমে যাবে। 

থ্রাইভ থিমের রিলেটেড পোস্ট | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

শুধু তাই নয়, ধরুন আপনি একটি ব্লগপোস্ট লিখছেন। চাইলে তার মধ্যেও রিলেটেড পোস্ট যুক্ত করতে পারবেন। এতে আপনার পাঠকরা পরিষ্কার ধারণা পাবে যে তারা যে বিষয়ে পড়ছে তা সমন্ধে বিস্তারিত জানতে হলে আপনার সাইটের কোন রিসোর্সগুলো পড়তে হবে। 

থ্রাইভ থিমের পোস্ট তালিকা | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৬. কনভার্সনের জন্য কতটা উপযোগী | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

থ্রাইভ থিমসকে তৈরীই করা হয়েছে, ভিজিটরদের কিভাবে কনভার্সন করা যায় তা মাথায় রেখে।

তাদের ফোকাস এরিয়া সেইসব ফাংশনালিটির প্রতি, যার মাধ্যমে আপনি উইজেট, অপ্ট-ইন ফর্ম বা কাষ্টম বিজ্ঞাপনের ব্যানার যুক্ত করতে পারবেন।

ফোকাস এরিয়া হল ওয়েবসাইটের সেইসব স্থান, যেসব স্থানে ইমেইল উইজেট বসালে আপনি কনভার্সন হার (৫১.৭% পর্যন্ত) বাড়াতে পারবেন। 

আপনি যদি অ্যাফলিয়েট পন্য বিক্রি করেন বা ইমেইল মার্কেটিংয়ের কাজ করেন তাহলে আপনার অবশ্যই এটা ইউজ করা উচিৎ৷। 

থ্রাইভের ফোকাস এরিয়ার কারনে, আপনি চাইলে পোস্টের ফুটারের নিচে, হেডার বা হিরো সেকশনের উপরে, হ্যালো বারে রিবনের মত করে উইজেট বসাতে পারবেন। 

বেশীরভাগ জেনেসিস থিমে কনভার্শনের বিষয়টাকে তেমন গুরুত্ব দেয়া হয়নি। 

তাদের অবশ্য ইমেইল সংগ্রহের উপযোগী করে বানানো:জেনারেট প্রো ও ডিজিটাল প্রো থিম রয়েছে। 

শো টার্গেটেড উইজেট: | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ

ভিজিটরদের কনভার্সন করতে এই অসাধারণ উইজেটটির জুড়ি মেলা ভার। 

চাইলে এক পোস্টের পাঠকদের এক উইজেট আবার অন্য আরেক পোস্টের পাঠকদেরকে অন্য উইজেট দেখাতে পারবেন থ্রাইভের ক্লেভার উইজেট'টির মাধ্যমে। শুধু এই ফিচারটা একাই আপনার কনভার্সন হার রকেটগতীতে বাড়িয়ে দিতে সক্ষম। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৭. ব্লগিং/ মার্কেটিং টুলসমূহের একটি সম্পূর্ণ সেট | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

থ্রাইভ থিমসের মেম্বারশীপ প্ল্যানের সাথে আপনি পেয়ে যাবেন মার্কেটিং টুলসমূহের একটি সেট। একজন ব্লগার হিসেবেও এগুলো আপনার কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি করবে। 

এগুলো হল:

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন জেনারেশনের কন্টেন্ট বিল্ডার |  জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন জেনারেশনের কন্টেন্ট বিল্ডার।

সেরা ইমেইল মার্কেটিং প্লাগীন (লীড জেনারেশন) | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


এখন পর্যন্ত আমার দেখা সেরা ইমেইল মার্কেটিং প্লাগীন (লীড জেনারেশন)

থ্রাইভ হেডিং অপটিমাইজার | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

ট্রাফিক, ক্লিক এসব বিবেচনায় কোন শিরোনামটি সর্বোত্তম হবে তা যাচাই করার জন্য, থ্রাইভ হেডিং অপ্টিমাইজার।

থ্রাইভ আল্টিমেটাম | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

মৌসুম অনুসারে অফার প্রদান করে আপনার সাইটের বিক্রি বাড়ানোর জন্য কার্যকরী, থ্রাইভ আল্টিমেটাম।

থ্রাইভ ওভেশন | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


ল্যান্ডিং পাতা, পণ্য বিক্রির পাতায় পূর্বের ক্লায়েন্টদের প্রশংসাপত্র যুক্ত করার মাধ্যমে সাধারণ ভিজিটরদেরকে কনভার্সন করার টুল, থ্রাইভ ওভেশন। 

থ্রাইভ ক্লেভার উইজেটস | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


আপনার সাইটের ক্লিক, কনভার্সন রেট বৃদ্ধির জন্য পূর্বনির্ধারিত উইজেটগুলো প্রদর্শন করানোর জন্য, থ্রাইভ ক্লেভার উইজেটস। 

এই সবগুলো একত্রে আপনার সাইটের ট্রাফিক, লীড সর্বোপরী বিক্রি বাড়িয়ে দেবে কয়েকগুন।  

টীকা: আমি নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি। থ্রাইভ থিমে আসার পর থেকে আমার নিবন্ধের ভিউ, কনভার্সন এবং অ্যাফলিয়েট বিক্রি কয়েকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে। 

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৮. পেজ লেআউট বা ল্যান্ডিং পেজ টেমপ্লেটস | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

সব জেনেসিস থিমেরই মাত্র একটা করে ল্যান্ডিং পেজ রয়েছে, যা কখনো কখনো বেশ বিরক্তিকর। 

এদিকে দেখুন থ্রাইভ থিমসের সাথে আপনি কতগুলো ল্যান্ডিং পেজ পাচ্ছেন। ১৫৬ টি'রও বেশী লিখিত কন্টেনসহ (পরিবর্তনযোগ্য) ল্যান্ডিং পেজ যেগুলো সাধারণত টপ ক্লাস ব্লগগুলোতে দেখে থাকেন। 

জেনেসিস থিম ল্যান্ডীং পেজ টেমপ্লেট | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

নিচের স্ক্রিনশটিতে এদের কয়েকটি দেখতে পাচ্ছেন। 

থ্রাইভ থিমস, ল্যান্ডীং পেজ টেমপ্লেট | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

৯. মূল্য | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

স্টুডিওপ্রেস সম্প্রতি তাদের থিমের দাম বাড়িয়েছে। এখনথেকে কেনার প্রথমবছর আপনাকে গুনতে হবে ৪৯৯ মার্কিন ডলার। তারপরথেকে প্রতিবছর রিনিউ, আপডেট ও অন্যান্য আনুসাঙ্গীক সেবা পেতে হলে খরচ করতে হবে ১০০ মার্কিন ডলার।

এটা শুধুমাত্র স্টুডীয়প্রেস থিমগুলোর ক্ষেত্রে প্রোযোজ্য। যেহেতু তাদের নিজস্বকোন প্লাগীন নেই। অন্যদিকে থ্রাইভ থিমস কিনতে হলে, প্রথমবছর আপনাকে গুনতে হবে ৫৮৮ ডলার। সেইঅর্থে জেনেসিসের তুলনায় এটা বেশ দামী। 

থ্রাইভে প্লাগীন কেনার খরচটা আপনার বেঁচে যাচ্ছে। কারণ স্টুডিওপ্রেসের কোন থিম কিনলে আপনাকে কিন্ত বেশকিছু প্লাগীনও কিনতে হত। 

একটা উদাহরণ দেই, তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে। থ্রাইভ লিডস এবং ল্যান্ডিং পেজ প্লাগীন থাকার কারনে আপনাকে কিন্ত আর মার্কেটিং এর জন্য অপটিনমনস্টারে বছরপ্রতি ৩৪৮ ডলার ব্যয় করতে হচছে না। 

শুধু এই সুবিধা পাওয়ার জন্যই হয়তোবা আপনাকে লিডপেজেস এ মাসপ্রতি ২০০ ডলার খরচ করতে হতো।

টীকা: তার মানে কিন্ত এইনয় যে, জেনেসিস কেনাটা টাকার শ্রাদ্ধ। 

যদি সিম্পল ধরনের কিছু চান যার কাষ্টমাইজেশনের কোন ফিচার নাই তাহলে জেনেসিস আপনার জন্য পার্ফেক্ট। 

চাইলে জেনেসিস ফ্রেমওয়ার্ক থেকে কাষ্টম থিম বানিয়ে নেয়ার জন্য কোন ওয়েব ডিজাইনারকেও আপনি হায়ার করতে পারেন। 

মোটকথা আপনি যদি মার্কেটিং, প্রডাক্ট/ সার্ভিস নিয়ে ব্লগ না চালান তাহলে থ্রাইভের আপনার প্রয়োজনে নেই।  

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

১০. সাপোর্ট সেবা | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

এখন পর্যন্ত আমার দেখা সবচেয়ে সেরা ও ত্বরিতগতীতে সাপোর্ট। তারা শুধু তাদের পণ্য সম্পর্কিত জবাবই দেয়না। আপনার ব্লগের জন্য কোন কোন ফিচার উপযুক্ত হবে, ধৈর্য্য ধরে সে সম্পর্কিত পরামর্শও তারা দিয়ে থাকে। যদি কোন এরর থেকে থাকে, তারা তখন আপনার ড্যাশবোর্ডে লগইন করে ট্রাবলশ্যুটও করে দেবে।

থ্রাইভ থিমস সাপোর্ট ফোরাম | জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


তাদের পণ্যগুলো থেকে কিভাবে লাভবান হওয়া যায় সে বিষয়ে তারা নিয়মিত ভিভিও টিউটোরিয়াল প্রকাশ করে।

তাদের কাষ্টমার কেয়ার সত্যিকার অর্থেই কার্যকরী ও টপক্লাস মানের। আপনার কোয়েরিসমূহের জবাব দ্রুতই পেয়ে যাবেন তাদের থেকে।

সূচীপত্রে ফিরে যান ↑

শেষকথা: আপনার কোনটি চয়েস করা উচিৎ? | কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব

ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ পোস্ট - কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব। থ্রাইভ বনাম জেনেসিসের এই তুলনামূলক পোস্টে আমার  রেকমেন্ডেশন কোনটি তা আশা করি ইতোমধ্যেই বুঝে গেছেন? 

জেনেসিস (স্টুডীওপ্রেস) বনাম থ্রাইভ থিম | ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ | কোন  ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব | Genesis VS Thrive Wordpress Themes Review


আমার উদ্দেশ্য ছিল এ'দুটি থিম সমন্ধে আমার অভিজ্ঞতাটুকু আপনাদের সাথে শেয়ার করা। যাতে আপনি আপনার জন্য যেটি সর্বোত্তম সেটি চয়েস করতে পারেন। 

আপনার যদি বেশী কাষ্টমাইজেশনের প্রয়োজন না থাকে এবং এটাকে বাড়তি একটা ঝামেলা বলে মনে হয়। আপনাকে ওয়েবসাইটে পরিবর্তন না আনতে চান, থিমে যেমন পাচ্ছেন তেমনই রাখতে চান সেক্ষেত্রে আপনি জেনেসিস চয়েস করতে পারেন।

আপনি যদি থিম বিষয়ে নবিশ হয়ে থাকেন। সাইটের গ্রোথই যদি আপনার মূল লক্ষ্য হয়, অ্যাফলিয়েট, ইমেইল মার্কেটিংয়ের প্রোয়োজনীয়তা না থাকে সেক্ষেত্রেও জেনেসিস আপনার জন্য চমৎকার চয়েস। এমনকি তারপরও আপনি SumoMe এর মত ফ্রি টুল ব্যবহার করে ইমেইল কালেকশন করতে পারবেন।

কিন্তু আপনার ব্লগ যদি ইতিমধ্যেই অনেক বড় হয়ে গিয়েছে বা নিয়মিত অনেক ভিজিটর ট্রাফিক আসে যাদেরকে আপনি ক্রেতা, ক্লায়েন্ট বা ফলোয়ারে রুপান্তর করতে চান, সেক্ষেত্রে আমি আপনাকে থ্রাইভ রেকমেন্ড করবো। 

দাম নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। টাকা তখনই ফেরত আসে যখন আপনি সেখানে বিনিয়োগ করেন। আর আমি থ্রাইভ থেকে কয়েকগুন লাভ ফেরত পেয়েছি যতটা বিনিয়োগ করেছিলাম। আমি বলছি, থ্রাইভকে নিশ্চিতে চয়েস করতে পারেন।

সেরা ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম আজ এ পর্যন্তই। কোন ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনব, আশা করি এ প্রশ্নের জবাব পেয়ে গেছেন। থ্রাইভ, জেনেসিস সম্পর্কিত যেকোন প্রশ্ন নিচের কমেন্টবাক্সে জানান। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?