Ordinary IT https://www.ordinaryit.com/2019/11/What-If-the-Internet-Stopped-Working.html

হঠাৎ যদি ইন্টারনেট কাজ করা বন্ধ করে দেয় তাহলে কি হবে?

ইন্টারনেট কাজ করা বন্ধ হয়ে যাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য হেল্পফুল, শিরনাম পড়ে আপনি এমনটা ভাবতেই পারেন। হ্যা, অবশ্যই ইন্টারনেট বন্ধ হয়ে গেলে তাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকার যারা স্মার্ট ফোন আসক্ত। তারা স্মার্ট ফোন রেখে মানুষের সাথে আলাপচারীতায় ব্যস্ত থাকবে। বাস্তবতাকে অনুভব করতে পারবে।


ইন্টারনেট বন্ধ করে দিলে পৃথিবী অচল হবে না। কারণ এখনো প্রায় ৪'শ কোটি মানুষের কাছে ইন্টারনেট পৌঁছে নি। তাই তারা জীবন যাপণ করতে পারলে আমরাও পারব।

ইন্টারনেট শব্দটার সাথে এখন আমরা সবাই পরিচিত। সকালের খবর থেকে শুরু করে সারাদিনে আমরা নানা কাজে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি। আমরা ফেসবুক, টুইটারসহ নানা সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্টিভ থাকি ইন্টারনেটর মাধ্যমে। ব্যাংকের লেনদেন এবং টাকার হিসাব এখন ইন্টারনেটের মাধ্যমে করা হয়। তাছাড়া পড়াশোনা খেলাধুলাসহ নানারকমের দৈনন্দিন কাজ আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে করে থাকি। যদি ইন্টারনেট কাজ করা বন্ধ করে দেয় তাহলে কি হবে?

ইন্টারনেট বন্ধ করার আগে আমরা ইন্টারনেট সম্পর্কে কিছু বিষয় জেনে নেওয়া যাক। ইন্টারনেট কোন সাধারণ সিস্টেম না যে একটি বড় রেড সুইচের মাধ্যমে এটি  বন্ধ করা যাবে। অবশ্য কিছু দেশে যেমন ইরান, তুরস্ক, মিশর, চায়নাতে কিল সুইচ আছে যা দিয়ে তাদের দেশে ইন্টারনেট বন্ধ করে দিতে পারে। পুরো পৃথিবির  ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়া অনেক কঠিন এবং জটিল কাজ।

ধরুন ইন্টারনেট ছাড়া একদিন আপনার কেমন কাটবে? আপনি সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখলেন আপনার ইন্টারনেট কাজ করছে না যার ফলে আপনার ফোনে কোন নোটিফিকেশন  আসেনি আপনার সোশাল মডিয়া  অ্যাপস সহ অন্যান্য অ্যাপস লোড হচ্ছে না এবং কোন ওয়েবসাইট  কাজ করছে না যার ফলে আপনি ফেসবুক, টুইটার, গুগলসহ অন্যান্য ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারছেন না যা আপনাকে অশান্তিতে ফেলে দিবে। 

ধরুন আজকে আপনি নতুন কোন জায়গাতে খেতে যাবেন, গাড়ি বের করে গুগল ম্যাপের ন্যাগিভেশন অন করলেন,ন্যাগিভেশন লোড হচ্ছে না ভাবলেন রাস্তার সাইনবোড দেখে খুজে বের করবেন কিন্তু সারাদিন খুজে কিছু পেলেন না, আর কি করার চুপচাপ বাড়িতে চলে আসলেন। 

বাড়িতে এসে ভাবলেন খাওয়াতো হলো না এবার স্মার্ট টিভি অন করে একটু নেটফ্লিক্স দেখে নিয় কিন্তু ইন্টারনেট নাই তাই নেটফ্লিক্সও দেখা হলো না। এগুলোর মাঝে ভুলে গেছিলেন যে আজকে আপনার ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে হবে। তাই  সময় নষ্ট না করে ব্যাংকে গেলেন কিন্তু ব্যাংকে সার্ভার বন্ধ যার ফলে কোন ট্রানজেকশন হচ্ছে না তাই টাকাও তুলতে পারলেন না ।

আপনি একটি বড় কোম্পানিতে কাজ করেন আজ একটি  গুরুত্বপূর্ণ ইমেল করা দরকার কিন্তু ইন্টারনেট না থাকায় সেটা করতে পারছেন না । অনেক বড় বড় কোম্পানি যেমন আমাজন, ইবে, দারাজ, গুগল, অরাকল যেগুলো ইন্টারনেটের মধ্যমে সকল কাজ সম্পন্ন করে। ইন্টারনেট না থাকলে তাদের সকল কাজ বন্ধ হয়ে যাবে।

ইন্টারনেট বন্ধ হয়ে গেলে মানুষ একে অপরকে কল করে কথা বলবে। তারা হ্যলো বা কেমন আছো না বলে প্রথমেই একে অপরকে বলবে "তোমারো কি ইন্টারনেট কাজ করছে না? " তখন ফোন কল বেড়ে যাবে। ফলে মোবাইল অপারেটরদের উপর চাপ পরে যাবে এবং নেটওয়ার্ক দূর্বল বা কল ড্রপ হবে বেশি।

বর্তমানে সকল ব্যাংক তাদের সকল কাস্টমারদের ডাটা অনলাইনে রাখে। ফলে খুব সহজেই যেকোন সময় যেকোন কাস্টমারের তথ্য বের করা যায়। ইন্টারনেট না থাকলে তা অসম্ভব হয়ে যাবে। মানি ট্রান্সফার বন্ধ হয়ে যাবে। ইন্টারনেট না থাকলে আপনার ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডটি হয়ে যাবে একটি ইউজলেস প্লাস্টিক কার্ড।
সকল ডিজিটাল মানি ট্রান্সফার সিস্টেম (বিকাশ, রকেট, নগদ, ইউক্যাশ ইত্যাদি) বন্ধ হয়ে যাবে। আপনার ব্যাংকে রাখা টাকা দেরি করে হলেও ফেরত পাবেন। কিন্তু যদি টাকা ক্রিপ্টোকারেন্সিতে থাকে তাহলে তা আর কখনো ফিরে পাবেন না।

শেয়ার বাজারের কাজ বন্ধ হয়ে যাবে, নাসা কাজ করতে পারবে না, স্যাটালাইট কাজ করবে না এবং নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলবে। ইন্টারনেট আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অনেকটা জায়গা জুড়ে রয়েছে তাই ইন্টারনেট ছাড়া জীবন কল্পনা করা কঠিন।

তবে এই ইন্টারনেট কি আদৌ বন্ধ করা সম্ভব? না। কারন এই ইন্টারনেটের কোন মেইন মেশিন নেই যেখান থেকে ইন্টারনেট অফ করা যাবে। একটি অংশে ইন্টারনেট বন্ধ থাকলেও চালু থাকবে হাজার হাজার অংশে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

অর্ডিনারি আইটি কী?